channel 24

সর্বশেষ

  • বাঘাইছড়িতে ফের সেনাটহলে গুলি, পাল্টা গুলিতে সন্ত্রাসী নিহত

  • দেশের উন্নয়নে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি কাজে লাগাতে রাষ্ট্রপতির আহ্বান

  • ধর্ষণের অধিকাংশ ঘটনায় নির্যাতনকারী ক্ষমতাসীন দলের: সেলিমা রহমান

  • ডেঙ্গু জ্বরে সাতক্ষীরায় গৃহবধূর মৃত্যু

  • সাফ অনূর্ধ্ব ১৫ ফুটবল: ভূটানকে ৫-২ গোলে বিধ্বস্ত করলো বাংলাদেশ

বিশ্বকাপ নিয়ে ইমরুল কায়েসের স্মৃতিচারণ

বিশ্বকাপ নিয়ে ইমরুল কায়েসের স্মৃতিচারণ

২০১১ বিশ্বকাপে দেশীয়দের মধ্যে সর্বোচ্চ স্কোরার ছিলেন তিনি। কিন্তু বিশ্বকাপের মাহাত্ম্য বোঝেননি তখন। বদলী হিসেবে ২০১৫ আসর খেলে খুব একটা ভালো করতে পারেননি। তামিম, সৌম্য, লিটনদের দারুন পারফরম্যান্স এবার তাকে স্কোয়াডের বাইরে রেখেছে। তবে দলের প্রয়োজনে সদা প্রস্তুত ইমরুল কায়েস।

ইমরুল কায়েসের ক্রিকেট ক্যারিয়ার রোলার কোস্টার রাইডের মত। উত্থান-পতনের মিশলে দূর্ভাগা ক্রিকেটার হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন এ ওপেনার।

২০১১ বিশ্বকপে যে তিন ম্যাচ জিতেছিলো বাংলাদেশ তার দুটোতে সবচেয়ে বেশি অবদান ইমরুলের। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে হার না মানা ৭২ আর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৬০ করে ম্যাচ সেরা। সবমিলিয়ে ১৮৮ করে দেশীয়দের মাঝে সর্বোচ্চ রান ছিল কায়েসের। কিন্তু বিশ্বকাপের আবেদনটাই বুঝতে পারেননি তখন।

পরেরবার যখন বুঝেছেন তখন স্কোয়াডের বাইরে। এনামুল হকের ইনজুরিতে বিশ্বকাপের মাঝপথে উড়ে গেছেন অস্ট্রেলিয়ায়। কিন্তু তিন ম্যাচে নয় রান করে ব্যর্থ ইমরুল।  

এবারও দূর্ভাগা ইমরুল কায়েস। নেই ১৫ সদস্যের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে। তারপরও আশাহত নন। এলিট ক্যাম্পে নিজেকে ফিট রাখছেন ইমরুল যদি আবারো হঠাৎ ডাক পরে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্পোর্টস 24 খবর