channel 24

সর্বশেষ

  • ঢাবি ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁস: বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ...

  • পলাতক ৭৮ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

  • রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফেরত না পাঠালে নিরাপত্তা ও...

  • স্থিতিশীলতা ব্যাহত হওয়ার শঙ্কা প্রধানমন্ত্রীর

  • ঋণখেলাপিদের সুবিধা দিতে পাগল হয়ে গেছে...

  • বাংলাদেশ ব্যাংক: হাইকোর্ট; প্রজ্ঞাপনের বিষয়ে আদেশ কাল

  • ১৯৮৯ সালের হত্যা মামলা: ৩ মাসের মধ্যে নিস্পত্তির নির্দেশ হাইকোর্টের...

  • ২৮ বছর পর মামলা সচল হওয়ায় সাগেরা মোর্শেদের পরিবারের সন্তুষ্টি

  • ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে আইনানুযায়ী ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী...

  • অস্ত্রের লাইসেন্স বাতিল ও জব্দে দুদকের চিঠি

  • দুই সাংবাদিককে ভিন্ন ভাষায় তলবকারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে...

  • বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ কমিশনের; চিঠির অবমাননাকর অংশ...

  • বাদ না দিলে আরও কঠোর কর্মসূচির ঘোষণা গণমাধ্যমকর্মীদের

  • আসামে নাগরিকত্ব ইস্যু: খসড়া তালিকা থেকে ১ লাখ ২ হাজার...

  • ৪৬২ জনকে বাদ দিয়ে নতুন তালিকা প্রকাশ

প্রথম বাংলাদেশি হিসাবে বিদেশি কোন জাতীয় দলের সহকারী কোচ টাফ রহমান

প্রথম বাংলাদেশি হিসাবে বিদেশি কোন জাতীয় দলের সহকারী কোচ টাফ রহমান

বাংলাদেশের বাইরে অন্য কোন দেশের জাতীয় দলে কাজ করা প্রথম বাংলাদেশী টাফ রহমান। প্রবাসী এই সাবেক ফুটবলার এখন কাজ করছেন ক্যারিবিয়ান দেশ গায়ানার জাতীয় দলের সহকারী কোচ হিসেবে। এই কোচিং স্টাফের হাত ধরে দেশটি প্রথমবারের মতো খেলছে কনকাকাফ গোল্ডকাপের মুল পর্বে।

২৩ মার্চ। ক্যারিবিয়ান দেশ গায়ানার ফুটবল ইতিহাসের সবচে স্মরনীয় একটি দিন। স্বাধীনতার ৫৩ বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো এদিন উত্তর ও মধ্য আমেরিকার ফুটবল শ্রেষ্ঠত্বের আসর কনকাকাফ গোল্ডকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে দেশটি। যেই অর্জনের পেছনে ছিলো একজন বাংলাদেশীর ভূমিকাও।

তিনি টাফ রহমান। বৃটেন প্রবাসী এই বাংলাদেশী ২০১৮র জুন থেকে গায়ানার সহকারী কোচের দায়িত্বে। ফুটবলে যার শুরুটা আর্সেনাল একাডেমীর হয়ে। এরপর সান্নিধ্য পেয়েছেন থিয়েরি অঁরি, রবার্ট পিরেস, বার্গক্যাম্পদের। ইনজুরির কারণে ফুটবল ছাড়ার পর কাজ করেছেন টটেনহ্যাম একাডেমীর কোচ হিসেবে।

আর এবারপ্রথম বাংলাদেশী হিসেবে কোচিং স্টাফে কাজ করার সুযোগ। আর এক বছরের মাথায় সাফল্যে উচ্ছসিত টাফ রহমান। আমাদের জন্য ইউরোপের বাইরে কাজ করাটা অনেক বড় একটা চ্যালেঞ্জ। সেখানে আমি এতো তাড়াতাড়ি সাফল্য পাবো তা চিন্তা করি নি।

কনকাকাফের মুল পর্বে খেলার এই সুযোগে শুধু গায়ানার নয় যেনো আমারও একটি স্বপ্ন পুরণ হয়েছে। সত্যিই অবিশ্বাস্য।ক্যারিবিয়ান দেশ বলেই জনপ্রিয়তার বিচারে গায়ানায় ফুটবল থেকে ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা একটু বেশি।

ক্লাইভ লয়েড, কার্ল হুপার, সারওয়ান চন্দরপলের দেশে ভালো ফুটবলার খুজে বের করার চ্যালেঞ্জও নিতে হয়েছে। তবে লম্বা একটা সময় ইংলিশ এফএর কোচিং অ্যাডুকেটর হিসেবে কাজ করা টাফ সে পরীক্ষাও উতরে গেছেন। 

এটা ঠিক গায়ানা ক্রিকেটের জন্য বেশি পরিচিত। কিন্তু তারা ফুটবল উন্নয়নের জন্য ক্রমাগত কাজ করে যাচ্ছে। আর তাদের সহায়তায় শুধু গায়ানা নয় গায়ানার বাইরে অনেক প্রবাসী ফুটবলারের খোজও আমরা পেয়েছি ইউরোপে নিজের কোচিং ক্যারিয়ার গড়তে নানা উত্থান-পতনের স্বাক্ষী হতে হয়েছে টাফকে। জানালেন সেই সংগ্রামের গল্প। 

আমার মনে হয় আমি ৪৫ কিংবা ৫০ বারের মতো চাকরি থেকে প্রত্যাখ্যাত হয়েছি। ফুটবল এখন অনেক প্রতিযোগীতামুলক। খুব কম সুযোগই পাবেন আপনি। তাই আপনাকে চেষ্টা করে যেতেই হবে।

জুনে কনকাকাফ গোল্ডকাপের গ্রুপপর্বে টাফের গায়ানাকে খেলতে হবে বিশ্বকাপে খেলা তিন দেশ যুক্তরাষ্ট্র, পানামা ও ত্রিনিদাদ অ্যান্ড টোবাগোর বিপক্ষে এর এভাবেই সব অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করে টাফ দেখেন প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে বিশ্বকাপে কাজ করার স্বপ্ন।

আমার স্বপ্ন সর্বোচ্চ পর্যায়ে কাজ করা। হতে পারে ক্লাব লেভেল কিংবা জাতীয় দল। কিন্তু এখন আমি অভিজ্ঞতা অর্জন করতে চাই। আমরা যাদের বিরুদ্ধে খেলবো তাদের কাছ থেকে অভিজ্ঞতা অর্জনই এখন মুল লক্ষ্য।

মৌলভীবাজারের এই সন্তান সুযোগ পেলে কাজ করতে চান নিজের দেশেও। কিন্তু তাকে মুল্যায়ন করবে কে???

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্পোর্টস 24 খবর