channel 24

সর্বশেষ

  • 'সোনালী কাবিন'-এর কবি আল মাহমুদ মারা গেছেন...

  • রাজধানীর একটি হাসপাতালে রাত ১১:০৫ মিনিটে মারা যান তিনি...

  • মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৮২ বছর

উয়েফা নেশন্স লিগে মাঠে নামছে ইউরোপের দেশগুলো

উয়েফা নেশন্স লিগে মাঠে নামছে ইউরোপের দেশগুলো

আজ বিশ্বজুড়ে ম্যাচের মিছিল। উয়েফা নেশন্স লিগে নামবে ইউরোপের দেশগুলো। আর প্রীতি ম্যাচে লাতিন আমেরিকা। উয়েফা

নেশন্স লিগে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ডস। রাত পৌনে দুইটায় হবে ম্যাচটি। একই সময় ওয়েলস-ডেনমার্ক, স্লোভাকিয়া-ইউক্রেন মুখোমুখি হবে। আর প্রীতি ম্যাচে নামবে দুই সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ও লাতিন পরাশক্তি আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল।

সেলেসাওদের প্রতিপক্ষ উরুগুয়ে। রাত দুইটায় ম্যাচটি। আর আলবিসেলেস্তেরা খেলবে মেক্সিকোর বিপক্ষে। ভোর ছয়টায়। বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স মুখোমুখি হবে বিশ্বকাপ খেলতে না পারা নেদারল্যান্ডস-এর।

ম্যাচটা উয়েফা নেশন্স লিগের। ডাচদের হারাতে পারলেই নক আউট পর্বে জায়গা করে নেবে ফরাসীরা। এক ম্যাচ আর চার পয়েন্ট বেশি নিয়ে এই ম্যাচ খেলতে নামবে লেস ব্লুরা।

ঘরের মাঠে জার্মানিকে হারিয়ে কিছুটা হলেও আত্মবিশ্বাসী অরেঞ্জরা। রোনাল্ড কোম্যানের দলেরও সামনে সুযোগ সম্ভাবনা বাচিয়ে রাখার। প্রথম লেগে অবশ্য ২-১ গোলে হেরেছিলো নেদারল্যান্ডস।

দু দলের আগের নয় দেখায় সমানে সমান। পল পগবা, অ্যান্থনি মার্শিয়াল, বেঞ্জামিন মেন্ডি, ল্যাকাজাত্তে ইনজুরির কারণে নেই ফ্রান্স দলে।
প্রীতি ম্যাচ মানেই ব্রাজিলের ছন্দময় ফুটবল।

বিশ্বকাপের পর টানা চার ম্যাচ জিতেছে সেলেসাওরা। পুরো বছরে সংখ্যাটা আট। এমনকি কোনো গোলও হজম করেনি। মাঝে বিশ্বকাপের দুঃসহ স্মৃতি। কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায়।

বিশ্ব মঞ্চে উরুগুয়েরও একই অবস্থা। তবে বাছাই পর্বে বিপরিত। জাপান, দক্ষিণ কোরিয়ার কাছে হেরে কিছুটা হলেও চাপে লা সেলেস্তেরা।

লড়াইটা দক্ষিণ আমেরিকার দুই দলের। তবে খেলাটা হবে ইংল্যান্ডে। লন্ডনে আর্সেনালের এমিরেটস স্টেডিয়ামে। ব্রাজিল মিস করবে ফেলিপে কুতিনিয়ো, ক্যাসেমিরো, মার্সেলোকে। শূণ্যস্থান পূরণে ডাক পেয়েছেন রাফিনহা, অ্যালেক্স স্যান্দ্রো, রেনেতো অগাস্তো।

উরুগুয়েও সেরা গোলরক্ষক ফার্নান্দো মুসলেরা, ক্রিস্টিয়ান স্টুয়ানি ও দিয়াগো গদিনকে ছাড়াই খেলতে নামবে।

ব্রাজিল যদি প্রীতি ম্যাচে ধারাবাহিকতার প্রতীক হয় তবে আর্জেন্টিনা গোলক্ষরার। বিশ্বের অন্যতম সেরা আক্রমনভাগ নিয়েও গোলই সবচেয়ে বেশি ভোগাচ্ছে আলবিসেলেস্তেদের।

সবশেষ কলম্বিয়া, ব্রাজিল ম্যাচ তারই উদাহরণ। তবে গুয়েতেমালা, ইরাকের বিপক্ষে অবশ্য গোল পেতে অসুবিধা হয়নি দুবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের।

মেক্সিকোর বিপক্ষে ডাবল লড়াইয়ের প্রথমটি হবে কর্দোবার মারিও কাম্পোস স্টেডিয়ামে। চারদিনের ব্যবধানে দ্বিতীয়টি আর্জেন্টিনারই আরেক শহর মেনদোজায়।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্পোর্টস 24 খবর