channel 24

সর্বশেষ

  • সিনহা হত্যার বিচার নিদিষ্ট সময়ে না হলে কঠোর পদক্ষেপ: রাওয়া

  • লেবাননে বিস্ফোরণে নিহত দুই বাংলাদেশির বাড়িতে শোকের মাতম

  • করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশকে ৩২৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তা দেবে জাপান

  • ডা. সাবরিনা ও স্বামী আরিফুলসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল

  • নাসিমকে নিয়ে কটূক্তি: হাইকোর্টে জামিন পেলেন বেরোবি’র সেই বহিষ্কৃত শিক্ষিকা

  • করোনায় বিপর্যস্ত মানুষের মুখে খাবার তুলে দিচ্ছে 'সেইফ ফাউন্ডেশন'

  • নেত্রকোনায় হাওড়ের জলের রাক্ষুসী রূপ; ট্রলারডুবিতে প্রাণ গেল ১৭ জনের

  • সিনহা নিহতের ঘটনায় দায় ব্যক্তির, কোনো বাহিনীর নয়: সেনাপ্রধান

  • রুপার ইট দিয়ে রাম মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি

  • চট্টগ্রামে প্রকাশনা বন্ধ ৫টি দৈনিক পত্রিকার, অনিশ্চিয়তায় কয়েকশো সাংবাদিক-কর্মচারির ভবিষ্যৎ

  • ১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নষ্ট করার চেষ্টা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

  • ইতিবাচক ধারায় ফিরেছে দেশের রপ্তানি বাণিজ্য

  • করোনায় দেশে আরও ৩৩ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৬৫৪

  • ধীরে ধীরে উন্নতি হচ্ছে দেশের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির

  • নয়াপল্টনে আব্দুল মান্নানের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত

এশিয়া কাপে বাংলাদেশ

এশিয়া কাপে বাংলাদেশ

এশিয়া কাপের ইতিহাসে সফলতম দল না হলেও সবচেয়ে বেশিবারের আয়োজক বাংলাদেশ। এদেশের ক্রিকেট ইতিহাসের সূচনালগ্নও এই এশিয়া কাপ। দুবার খুব কাছে গিয়েও শিরোপা হাতছাড়া হওয়ার আক্ষেপ আছে।

তবে তামিম, মুশফিক, রাজ্জাকদের কারণে মনে রাখার মত অনেক স্মৃতিও দিয়েছে এশিয়া কাপ। মহাদেশীয় ক্রিকেট শ্রেষ্ঠত্বের আসর হলেও এশিয়া কাপের উন্মাদনার ব্যাপ্তি এই উপমহাদেশেই। তবে বাংলাদেশের কাছে মাহাত্ম্যটা একটু বেশি। এশিয়া কাপ দিয়েই যে ওয়ানডেতে অভিষেক হয়েছিলো টাইগারদের।

১৯৮৪ সালের প্রথম আসরটি ছাড়া বাকী ১২টি আসরের সবগুলোতে খেলেছে টিম টাইগার্স। ১৯৮৬ থেকে নিয়মিত। টুর্নামেন্টে অর্জন খুব বেশি না হলেও আবেগের পাল্লাটা দারুণ ভারী। দুবার শিরোপার খুব কাছে গিয়েও ফাইনালে স্বপ্নভঙ্গ। এখনো চোখ ভেজে ২০১২র ফাইনালে শেষ ওভারে পাকিস্তানের বিপক্ষে ২ রানের আক্ষেপের কান্নায়। আর ২০১৬তে ভারতের কাছে হার।

টানা চার হাফ সেঞ্চুরি করে সমালোচকদের চার আঙুল দেখানো তামিমের উদযাপন এশিয়া কাপে বাংলাদেশের ট্রেডমার্ক।
এশিয়া কাপ খেলে ১৪ ম্যাচে হাফ সেঞ্চুরি সহ বাংলাদেশিদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৫৩৭ রান তামিম ইকবালের। ২২ উইকেট নেয়া আব্দুর রাজ্জাক সেরা বোলার। ২০০৮ এশিয়া কাপে প্রথম সেঞ্চুরি করেছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল। ফতুল্লায় ভারতের বিপক্ষে ২০১৪তে মুশফিকের ১১৭ রানের  ইনিংসটি ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ। আর ৯৫ এশিয়া কাপে সাইফুল ইসলামের চার উইকেট সেরা বোলিং ফিগার।

এশিয়া কাপে দলীয় সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন রানের ইনিংস দুটোই পাকিস্তানের বিপক্ষে। বিজয় দের কৃতিত্বে ২০১৪তে ৩২৬ রানের পাহাড় গড়েছিলো বাংলাদেশ। আর ২০০০সালে ৮৭ রানে অলআউট হওয়া টুর্নামেন্টেরই সবচেয়ে কম রানের লজ্জা। টুর্নামেন্ট পরিসংখ্যানও ভালো নয়। ৪২ ম্যাচ খেলে মাত্র ৭ জয় বাংলাদেশে। হার ৩৫ ম্যাচে। অষ্টম আসরে এসে প্রথম জয়টা পেয়েছিলো বাংলাদেশ। ২০০৪ এ। হংকংয়ের বিপক্ষে। ২০০৮ এ প্রথম সেঞ্চুরি, মোহাম্মদ আশরাফুলের কৃতিত্বে। ৮৮র প্রথম আয়োজনসহ ৫ বার এশিয়া কাপের স্বাগতিক হওয়া টুর্নামেন্টটি  বাংলাদেশের কাছে অনেকটাই আপন। অপেক্ষা শুধু প্রথম শিরোপা ঘরে তোলার ।  

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্পোর্টস 24 খবর