channel 24

সর্বশেষ

  • বাংলাদেশের এখন আর সহজ শর্তে ঋণ নেয়ার প্রয়োজন নেই: অর্থমন্ত্রী

  • সংবিধানের আলোকে বর্তমান প্রক্রিয়া মেনেই আগামী নির্বাচন..

  • নির্বাচন প্রক্রিয়া পরিবর্তনের কোনো সুযোগ নেই: ওবায়দুল কাদের

  • ওয়ান-ইলেভেনের পথ প্রশস্ত করছে ক্ষমতাসীন দলের মন্ত্রীরা: রিজভী

  • সবাই ট্রাফিক আইন মানলে ৭০-৮০ ভাগ বিশৃঙ্খলা দূর হবে: আইজিপি

  • দুর্ঘটনা রোধে ঈদের পরের ৩ দিন মহাসড়কে র‍্যাবের চেকপোস্ট: ডিজি

  • পাকিস্তানের ২২তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন ইমরান খান

বিশ্বকাপ ফাইনালে আজ মুখোমুখি ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া

বিশ্বকাপ ফাইনালে আজ মুখোমুখি ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া

আজ শেষ হবে বিশ্বকাপ। ঘটন অঘটনের শেষটায় অপেক্ষা আরেক ক্লাইমেক্সের। ফাইনালে মুখোমুখি হবে ফ্রান্স ও ক্রোয়েশিয়া। নতুন চ্যাম্পিয়ন পাবে বিশ্ব নাকি দ্বিতীয় শিরোপা উল্লাসে ভাসবে লেস ব্লুরা।

উত্তর মিলবে মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে, রাত ৯টায়। ক্রোয়েশিয়া কোচ জ্লাতকো দালিচ বলছেন শিরোপা জিততে প্রস্তুত তারা। আর দিদিয়ের দেশম আস্থা রাখছেন শীষ্যদের গতির উপর। প্যারিসের জনসংখ্যার দ্বিগুন পুরো ক্রোয়েশিয়ার অধিবাসী। ৪২ লাখ মানুষের ছোট্ট দেশটি আলোড়িত নিজ তারকাদের বিশ্বকাপ ফাইনালে দেখতে পারায়। ভাবনাতীত অবস্থানে পৌঁছে দেশবাসীকে উদযাপনের সুযোগ এনে দিতে চান লুকা মদ্রিচ।
তারা বিশ্বকাপ জিততে চায় সেইসব মানুষের জন্য, যারা তাদের উৎসাহ দিয়েছেন, সমর্থন করেছেন। আর তাদের ছোট্ট দেশের জন্য।
টুর্নামেন্ট শুরুর আগে এমন ফাইনাল কজন ভাবতে পেরেছিলেন? কিন্তু আর্জেন্টিনা, বেলজিয়াম, ইংল্যান্ডকে বিদায় জানানো দুই দল নিজেদের যোগ্যতা দিয়েই সেরার মঞ্চে।
উপভোগের মন্ত্রে নিবিষ্ট জ্লাতকো দালিচ। আর ইতিহাসের নতুন অধ্যায় রচনায় বিশ্বাসী দিদিয়ের দেশম। তার মনে হয় প্রত্যেকের জীবনের সেরা ম্যাচ এটি। অনেকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছে। কিন্তু এটা আলাদা। তারা নিজেদের কোয়ালিটি প্রমান করতে চায়। জিতলে উপভোগ করবে, হারলে প্রতিপক্ষকে অভিনন্দন জানাব। তারা ফাইনাল উপভোগ করতে চায়। ফুটবল এমনই। ২০ বছর আগে কি হয়েছিলো তা সে ভুলে যাই নি। কিন্তু সেই স্মৃতি বর্তমান প্রজন্মের অনেকেই দেখে নি। ছবি দেখেছে। তাদের জন্য নতুন কিছু উপহার দিতে চায় সে। ইতিহাসে নতুন অধ্যায় যুক্ত করতে চায়।
দিদিয়ের দেশমের জন্য ক্ষণটা আরো বেশি স্মরণীয় কেননা তৃতীয় ব্যক্তিত্ব হিসেবে ফুটবলার ও কোচ পরিচয়ে বিশ্বকাপ জেতার হাতছানি তার সামনে। ফাইনালের আগে অনুশীলন, সংবাদ সম্মেলন সবকিছুতেই দারুণ মিল।

গোল্ডেন বলের লড়াইয়েও। ক্রোয়েট অধিনাযক লুকা মদ্রিচের সাথে পাল্লা দিচ্ছেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। গত ছয় বিশ্বকাপ ধরে রীতিটা এমন যে দল চ্যাম্পিয়ন, সেরা ফুটবলারও সেই দলের। অপেক্ষাটা লুঝনিকির ফাইনালের জন্য। মদ্রিচ, র‍্যাকেটিচ, মানজুকিচ, পেরিসিচদের নিয়ে গড়া সেরা প্রজন্ম ক্রোয়েশিয়ার। বিপরিতে এমবাপ্পে, কন্তেদের তারুণ্য নির্ভর ফ্রান্স। দুই দলের আগের পাঁচ দেখায় ফ্রান্স দুইবার জিতলেও ড্র হয়েছে বাকি তিন ম্যাচ। বিশ্বকাপ জেতা আর পরিসংখ্যানে এগিয়ে দেশমের দল। কিন্তু ফাইনাল বলেই পুরনো এসব হিসাব মূল্যহীন দালিচের কাছে।
ফ্রান্স অবশ্যই শক্তিশালী দল। তাদের বিশ্বমানের ফুটবলার আছে। তবে ফাইনালে দুই দল সমানে সমান থেকে নামবে। আগের পরিসংখ্যান খুব একটা বিবেচনায় আসবে না। ফ্রান্স কোচও সমীহ করছেন প্রতিপক্ষকে। তবে এগিয়ে রাখছেন নিজেদেরকেই।
৯৮ দুই দলের প্রেরণার নাম। ফ্রান্স জিতেছিলো বিশ্বকাপ। ক্রোয়েশিয়া দেখিয়েছিলো তাদের সেরা পারফরম্যান্স। এবার নিজেদের ছাড়িয়ে যাবার পালা।
ফেভারিটদের বিদায়ে অবদান রেখে, অপ্রত্যাশিত ফাইনালে মুখোমুখি দুই দল। প্রত্যাশার ফাইনালে কে জিতবে?

সর্বশেষ সংবাদ

স্পোর্টস 24 খবর