channel 24

সর্বশেষ

  • তাজিয়া মিছিলের নিরাপত্তায় সর্বোচ্চ ব্যবস্থা: ডিএমপি কমিশনার

  • কোটা নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পাল্টাপাল্টি মিছিল

  • একুশ আগস্ট গ্রেনেড হামলার বিচার কাজ শেষ; রায় ১০ অক্টোবর

  • ইভিএম কিনতে ৪ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন একনেকে

  • বিএনপি নেতা আমীর খসরুর সম্পদ অনুসন্ধানে দুদকের অভিযান

  • ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৭.৮৬ শতাংশ: পরিকল্পনামন্ত্রী

সেই স্লুইচ গেট-ই এখন কৃষকদের জন্য মরণফাঁদ

সেই স্লুইচ গেট-ই এখন কৃষকদের জন্য মরণফাঁদ

জোয়ারের পানি ঠেকাতে স্লুইচ গেট নির্মাণ করা হলেও এগুলোই এখন কৃষকের মরণফাঁদ। রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে ১০ টি স্লুইচ গেট অকেজো হয়ে পড়ায় জোয়ারের সাথে কৃষিজমিতে ঢুকছে লবণাক্ত পানি। স্থানীয়রা বলছেন, এর ফলে প্রতি বছরই নষ্ট হচ্ছে বিপুল পরিমাণ ফসল। সেইসাথে তৈরি হচ্ছে জলাবদ্ধতা। অথচ এ নিয়ে খুব একটা উদ্যোগ নেই কর্তৃপক্ষের। 

 

নদী ও সাগরবেষ্টিত ভোলার মনপুরা উপজেলা। মেঘনার ভাঙন ও জোয়ারের পানি থেকে রক্ষার জন্য এখানে ১০০ কিলোমিটার বাঁধের উপর নির্মাণ করা হয়, ১২টি স্লুইচ গেট। কিন্তু এখন ১০টিই অকেজো। জরাজীর্ণ স্লুইচ গেটগুলো দিয়ে জোয়ারের পানি ঢুকছে লোকালয়ে। স্থানীয়রা স্লুইচ গেট মেরামত বা নতুন করে নির্মাণের দাবি জানালেও তা আজও বাস্তবায়ন হয়নি। কর্তৃপক্ষের অবহেলার কারণে এগুলো নষ্ট হয়েছে বলেও অভিযোগ তাদের।

কৃষকদের এই দাবির সাথে একমত উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানও। তবে, দ্রুতই নতুন করে স্লুইচ গেট নির্মাণের আশ্বাস দিয়েছেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা। স্থানীয়রা বলছেন, ভোলার মনপুরা উপজেলায় প্রতি বছর ১২ হাজার ৩৫০ হেক্টর জমিতে ফসল উৎপাদন হলেও, স্লুইচ গেট সমস্যার কারণে, প্রায় ৪ হাজার হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হয়।

 

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর