channel 24

সর্বশেষ

  • তাজিয়া মিছিলের নিরাপত্তায় সর্বোচ্চ ব্যবস্থা: ডিএমপি কমিশনার

  • কোটা নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পাল্টাপাল্টি মিছিল

  • একুশ আগস্ট গ্রেনেড হামলার বিচার কাজ শেষ; রায় ১০ অক্টোবর

  • ইভিএম কিনতে ৪ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন একনেকে

  • বিএনপি নেতা আমীর খসরুর সম্পদ অনুসন্ধানে দুদকের অভিযান

  • ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৭.৮৬ শতাংশ: পরিকল্পনামন্ত্রী

বৃদ্ধদের সেবাদান পদ্ধতির অন্যতম জগতের নাম স্যার উইলিয়াম বিভারেজ ফাউন্ডেশন

বৃদ্ধদের সেবাদান পদ্ধতির অন্যতম জগতের নাম স্যার উইলিয়াম বিভারেজ ফাউন্ডেশন

বিশ্বায়ণের এ যুগে সবারই রয়েছে ব্যস্ততা। আর তাই ঘরে থাকা অসুস্থ বাবা মাকে চাইলেও সময় দিতে পারেন না অনেকেই। অথচ জীবনের এ পড়ন্ত সময়টাই সবচেয়ে বেশি অসহায়ত্ব বোধ করেন তারা। তাদের এ শূন্যতাকে অনুভব করেছে স্যার উইলিয়াম বিভারেজ নামের একটি ফাউন্ডেশন। সেবা দেয়, বাড়িতে গিয়েও। যাতে বিষন্নতা কাটিয়ে ওঠেন রোগীরা। 

 

মানুষের জীবনে বার্ধক্য এমন একটি সময় যখন তার জগতজুড়ে অনেকে থেকেও যেনো কেউ নেই। সন্তানদের ব্যস্ততা, অথবা জীবনসঙ্গীর অনুপস্থিতি। একাকী জীবনে দৈনন্দিন কাজকর্মগুলোও বেশ কঠিন হয়ে পড়ে।হাসনা ইসলাম এমনই একজন। স্ট্রোক ও ডায়াবেটিসসহ নানা রোগ ব্যাধীতে প্রায় অচল হয়ে পড়েছিলেন। নিঃসঙ্গতাও ঘিরে রাখতো সারাক্ষণ। 

হাসনা ইসলামের এসব অভাব অনুভব করেছে স্যার উইলিয়াম বিভারিজ ফাউন্ডেশন নামের একটি সংস্থা। তাদের কেয়ার গিভার বা সেবক বাড়ি-বাড়ি গিয়ে বয়বৃদ্ধদের সঙ্গ দেন; দেখভাল করেন। গত তিন বছরে দৈনিক আট ঘন্টা করে তেমনই একজন সেবিকার সান্নিধ্যে আছেন হাসনা ইসলাম। 

চাহিদামতো সেবা দিয়ে আসছে সংস্থাটি। আর সেবামূল্য নেয়া হয় রোগীর পরিবারের সামর্থ্য অনুযায়ী। রাজধানীর নিউ ইস্কাটন রোডে অবস্থিত এই প্রতিষ্ঠানে সরাসরি সেবা নেন অনেকেই। এখানেও যেনো গড়ে উঠেছে একটি পরিবার। 

প্রতিষ্ঠানটির কান্ট্রি ডিরেক্টর মেজর জেনারেল (অব:) জীবন কানাই দাস জানান, 'পেশাদারিত্বের পাশাপাশি মমত্ববোধকেই বেশি গুরুত্ব দেয়া হয়।'  স্যার উইলিয়াম বিভারিজ ফাউন্ডেশনের বাংলাদেশে শুরুটা হয়েছিলো ২০০৬ সালে। আগামীতে কার্যক্রমের পরিধি আরো বাড়াতে চান তারা।

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর