channel 24

সর্বশেষ

  • একনেকে ১ লাখ ২৫ কোটি ২৩ লাখ টাকার ১০টি প্রকল্পের অনুমোদন...

  • প্রায় ৯৪ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে মেট্রোরেল লাইন ১ ও লাইন ৫ অনুমোদন

  • অস্ত্র ও মাদক মামলায় বহিষ্কৃত যুবলীগ নেতা সম্রাট ১০ দিনের রিমান্ডে...

  • সহযোগী আরমান মাদক মামলায় ৫ দিনের রিমান্ডে

  • আবরার হত্যায় সরকার বিব্রত কিন্তু গুটিকয়েক ছাত্রনেতার...

  • ভুলের দায় সরকার নেবে না: ওবায়দুল কাদের...

  • আসামি নাজমুস সাদাত দিনাজপুরের বিরামপুরে গ্রেপ্তার

  • এমবিবিএস ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ

  • নবম ওয়েজবোর্ডের গেজেট কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্টের রুল

  • সুনামগঞ্জে শিশু তুহিন হত্যা: বাবাসহ তিনজনের ৩ দিন করে রিমান্ড

  • অবৈধ সম্পদ অর্জন: সরকার দলীয় এমপি শামশুল হক চৌধুরী ও...

  • নুরুন্নবী চৌধুরী শাওনের বিরুদ্ধে দুদকের অনুসন্ধান শুরু

  • ফুটবল: বিশ্বকাপ বাছাই: ভারত-বাংলাদেশ (রাত ৮টা)

মেহেরপুরে মারাত্মক আকার নিয়েছে অ্যানথ্রাক্স; কয়েকশো গবাদি পশুর মৃত্যু

মেহেরপুরে মারাত্মক আকার নিয়েছে অ্যানথ্রাক্স; কয়েকশো গবাদি পশুর মৃত্যু

মেহেরপুরে ভয়াবহ আকার নিয়েছে, অ্যানথ্রাক্স। এরইমধ্যে মারা গেছে, কয়েকশো গবাদি পশু। খামারিদের অভিযোগ, সরকারের সরবরাহ করা ভ্যাক্সিনে কাজ হচ্ছে না। তবে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের দাবি, ছাগল থেকে এবার রোগ ছড়ালেও, প্রাণিটিকে ভ্যাক্সিন দিচ্ছেন না খামারিরা।

২০১০ সালে সিরাজগঞ্জ ও পাবনাসহ দেশের ১২ জেলায় মহামারী আকার ধারণ করে অ্যানথ্রাক্স জারি হয় রেড এলার্ট।

সবচেয়ে বেশি গবাদি প্রাণির এলাকা সিরাজগঞ্জ ও পাবনায় সরকারিভাবে টিকাদানসহ বহুমুখী ব্যবস্থা নেয়ায় আর দেখা মেলে না এই রোগের। কিন্তু ৯ বছরের মাথায় রোগটি এবার মহামারী আকার নিয়েছে মেহেরপুরের গাংনির হাড়ভাঙ্গা গ্রামে। খামারিদের দাবি, এরইমধ্যে মারা গেছে হাজারের মতো গরু-ছাগল।

খামারিদের অভিযোগ, অ্যানথ্রাক্সের প্রতিরোধে সরকারি যে ভ্যাক্সিন দেয়া হয়, তা অনেক সময় কাজ করে না। তাই ঠেকানো যাচ্ছে না রোগের আক্রমণ।
 
তবে এমন অভিযোগ উড়িয়ে দিলেন প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর। তাদের দাবি, ওই উপজেলায় দুই লাখ প্রাণি থাকলেও, খামারিদের অনাগ্রহে অ্যানথ্রাক্স ভ্যাক্সিনের আওতায় আনা গেছে মাত্র ২৮ হাজার।

প্রাণিস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই রোগের ব্যাকটেরিয়া এতটাই শক্তিশালী যে, আক্রান্তের কয়েকঘণ্টার মধ্যেই প্রাণির মৃত্যু হয়। তাই আর্থিক ঝুঁকি এড়াতে অ্যানথ্রাক্সের ভ্যাক্সিন দেওয়ার কোনো বিকল্প নেই।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, প্রাণি থেকে মানুষে ছড়ানো জুনোটিক এই রোগ তিন ধরনের। যার সবগুলোই, ছড়াতে পারে মানবদেহে।
 
প্রাণি সম্পদ অধিদপ্তরের দাবি, দেশে চাহিদার তুলনায় অ্যানথ্রাক্স ভ্যাক্সিনের উৎপাদন অনেক বেশি।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর