channel 24

সর্বশেষ

  • ফেসবুকে স্ট্যাটাসের ঘটনায় একজনকে আটকের জেরে...

  • ভোলার বোরহানউদ্দিনে পুলিশ ও স্থানীয়দের সংঘর্ষে নিহত ৪...

  • ১০ পুলিশ সদস্যসহ আহত শতাধিক; বিজিবি মোতায়েন

  • ভারী ট্রাক চলাচলে গোপালগঞ্জের কালনা ফেরিঘাট থেকে ভাটিয়াপাড়া সড়কের বেহাল দশা

  • নিষিদ্ধ সময়ে চারঘাট সীমান্তে পদ্মায় ইলিশ ধরেন ভারতীয় জেলেরা; বিএসএফের বিরুদ্ধে সহযোগিতার অভিযোগ

  • ঢাকা উত্তর সিটির আলোচিত কাউন্সিলর রাজিব গ্রেপ্তার; কার্যালয়সহ বাসায় তল্লাশি; অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার

মুরগির বিষ্ঠা দিয়ে মাছ চাষে বাড়ছে স্বাস্থ্যঝুঁকি

মুরগির বিষ্ঠা দিয়ে মাছ চাষে বাড়ছে স্বাস্থ্যঝুঁকি

মাছ উৎপাদনে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান চতুর্থ হলেও, এখনও নিশ্চিত হয়নি এর নিরাপদ চাষাবাদ। ঘের ও পুকুরে মাছের খাদ্য হিসেবে দেয়া হচ্ছে মুরগির বিষ্ঠা। যাতে বাড়ছে স্বাস্থ্যঝুঁকি। মৎস্যবিজ্ঞানীরা বলছেন, মুরগির বিষ্ঠায় অনেক জীবানু থাকায়, মাছের রোগ বালাই বেড়ে যায়। তবে কর্তৃপক্ষের দাবি, সরকার এ বিষয়ে সচেতন আছে।

কয়েক একরের ঘের, যেখানে চাষ হচ্ছে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ। আর সেই ঘেরে তৈরি করা হয়েছে মুরগির খামার।

বাণিজিক ও সমন্বিত এই খামারের  মাছের প্রধান খাদ্য হচ্ছে মুরগির বিষ্ঠা। শুধু ধামরাইয়ের এই খামার নয়, দেশের বিভিন্ন মাছের খামারের এখনো প্রধান খাদ্য এটি। বিভিন্ন মুরগির খামার থেকে সংগ্রহ করে ফেলা হয় পুকুরে, ঘেরে।

মৎস্যবিজ্ঞানীরা বলছেন, মুরগির বিষ্ঠা দিয়ে উৎপাদিত মাছে রয়েছে স্বাস্থ্য ঝুঁকি। এছাড়া মুরগির বিষ্ঠায় অনেক জীবানু থাকায় মাছের রোগ বালাই বেড়ে যায়। বিশেষ করে ৯০ এর দশকে চিংড়িতে যে মড়ক দেখা দিয়েছিল, তার বড় কারণও ছিল মুরগির বিষ্ঠা।

দেশ এখন  প্রাকৃতিক উৎস থেকে মাছ সংগ্রহে বিশ্বে তৃতীয়। আর চাষের মাছ উৎপাদনে বিশ্বে পঞ্চম। মৎস্য অধিদপ্তরের শীর্ষ এই কর্মকর্তাও বলছেন, সরকারের এখন লক্ষ্য, মানুষের জন্য নিরাপদ মাছ উৎপাদন।

দেশে এখন মাছের উৎপাদন বছরে প্রায় সাড়ে ৪১ লাখ টন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর