channel 24

সর্বশেষ

  • জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনে যোগ দিতে...

  • কাল নিউইয়র্কের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

  • অবৈধ ক্যাসিনো: আটক যুবলীগ নেতা খালেদকে গুলশান থানায় হস্তান্তর

  • রাজধানীতে জুয়ার আসর বসতে দেয়া হবে না: ডিএমপি কমিশনার...

  • ক্যাসিনো মালিক প্রভাবশালী হলেও আইনের আওতায় আনা হবে...

  • মসজিদের শহরকে ক্যাসিনোর শহরে পরিণত করেছে সরকার: ড. মঈন

  • প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি দেয়ার অভিযোগে বিএনপি নেতা...

  • শামসুজ্জামান দুদুর বিরুদ্ধে মামলা; দ্রুত আটকের দাবি ছাত্রলীগের

  • কোনো প্রক্রিয়া ছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া...

  • ছাত্রলীগ নেতাদের ছাত্রত্ব বাতিলের দাবি ডাকসু ভিপির

  • পারিবারিক কলহ: নারায়ণগঞ্জে মা ও ২ শিশুকে ছুরিকাঘাতে হত্যা...

  • আহত আরও এক শিশুকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি

শিডিউল বিপর্যয় ঠেকানো না গেলে রেলে আস্থা হারাবে মানুষ

শিডিউল বিপর্যয় ঠেকানো না গেলে রেলে আস্থা হারাবে মানুষ

ঈদযাত্রায় ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় এখন নিয়মিত ঘটনা। যার জন্য প্রধানত দায়ী অতিরিক্ত যাত্রীর চাপ ও দুর্ঘটনা। কিন্তু এসব পরিস্থিতি মোকাবিলায় থাকে না পর্যাপ্ত আগাম প্রস্তুতি। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পশ্চিমাঞ্চলে ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় ঠেকানো না গেলে রেলের প্রতি মানুষের আস্থা কমবে। রেল সচিব জানান, ট্রেনের ছাদে ভ্রমণ ঠেকানো এবং লাইন মেরামতে বাড়তি নজর দেয়া হচ্ছে। বাকি সমস্যা সমাধানেও চলছে কাজ।

অপেক্ষাকৃত নিরাপদ ও স্বস্তির কারণে ভ্রমনে জনপ্রিয় হচ্ছে ট্রেনযাত্রা। কিন্তু গত দুই ঈদে এ যাত্রায় হয়ে ওঠে, অসহনীয় দুর্ভোগের নামান্তর। রাত জেগে টিকিট হাতে পেলেও, ভিড় ঠেলে ওঠায় যেন দায়। উঠলেও মেলে না নির্ধারিত আসন।

তবে বড় দুর্ভোগটা হয় তখন, যখন সময় মতো স্টেশনে এসেও, ঘণ্টা পর ঘণ্টা দেখা মেলে না কাঙ্খিত ট্রেনের। এই যেমন গত ১০ আগস্ট ঈদুল আজহার দুদিন আগে, রাত ১১টার রাজশাহীর আন্তঃনগর ট্রেন পদ্মা এক্সপ্রেস, ঢাকা ছাড়ে পরের দিন সকাল ১১টায়। আর রাজশাহীর ধূমকেতু সকাল ৬টার পরিবর্তে ছাড়ে সন্ধ্যা ৬টায়। শুধু রাজশাহী নয়, বিপর্যয়ে পড়ে পঞ্চগড়, খুলনা রংপুরসহ রেলের পশ্চিমাঞ্চলের বেশিরভাগ ট্রেনের সময়সূচিও। ১১ আগস্টের লালমনি এক্সপ্রেস ঈদ স্পেশাল ট্রেনটির যাত্রা তো বিলম্বের কারণে বাতিল করতে বাধ্য হয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।  

কিন্তু এত প্রস্তুতির পরও কেন এ বিপর্যয়? রেল সচিব জানান, নতুন বিরতিহীন ট্রেন, ঈদের আগে একটি ট্রেনের লাইনচ্যুতি আর পশ্চিমাঞ্চলে সিঙ্গেল লাইনের কারণে সময়সূচি ঠিক রাখা সম্ভব হয়নি। তবে আগামী বছর যাতে এমন না ঘটে, সেজন্য এখন থেকেই নেয়া হচ্ছে প্রস্তুতি।  

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ডাবল লাইন না করে, বিরতিহীন ট্রেন চালুর সিদ্ধান্ত সঠিক ছিলো না। এতে অন্যান্য আন্তঃনগর ট্রেনের পাশাপাশি কমিউটার ট্রেনের যাত্রা বিরতি বেড়েছে।

যাত্রা নিরাপদ ও সময়সূচি ঠিক রাখতে ট্রেনের ছাদে ভ্রমন বন্ধ ও রেলপথ মেরামতে চলতি মাসের প্রথম দিন থেকে বাড়ানো হয়েছে নজরদারি।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর