channel 24

সর্বশেষ

  • বঙ্গবন্ধু জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ: দ্বিতীয় রাউন্ডে যশোর-চুয়াডাঙ্গা-ভোলা-কুড়িগ্রাম

  • কৌশলে বুরুন্ডির অগোছালো রক্ষণের সুযোগ নিবে বাংলাদেশ

  • প্রেমিকের বাসায় গিয়ে তরুণীর আত্মহত্যার অভিযোগ

  • ছাত্রীকে উত্যক্তের অভিযোগে বাকৃবির ৪ শিক্ষার্থী সাময়িক বহিষ্কার

  • পরিকল্পিতভাবে অস্ত্র ও ডিম নিয়ে হামলা করা হয়েছে: তাবিথ

  • বাংলাদেশ-পাকিস্তান টি টোয়েন্টি সিরিজের টিকিট বিক্রি শুরু লাহোরে

  • নিরাপদ সবজির গ্রাম

  • আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে তাপসকে সতর্ক করেছেন ম্যাজিস্ট্রেট

  • ক্যাপসিকাম বা মিষ্টি মরিচের গুণাগুণ

  • ড্রোন দিয়ে ঠেকানো হচ্ছে অপরিকল্পিত রাসায়নিকের ব্যবহার

  • নির্বাচন নিয়ে বিএনপির অভিযোগ তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেবে ইসি

  • বিপিএলের পারফরম্যান্স ধরে রাখলে পাকিস্তানে সিরিজ জয় সম্ভব: মাহমুদউল্লাহ

  • রকিবুলের হ্যাটট্রিকে যুব বিশ্বকাপে বাংলাদেশের দুর্দান্ত জয়

  • ধর্ষণ মামলায় সহযোগিতা করতে গিয়ে পুলিশের সামনেই মারধরের শিকার যুবক

  • স্যার আবেদ একটি প্রেরণা, জনকল্যাণের রোল মডেল: হোসেন জিল্লুর

প্রত্যাবাসনের আলোচনায় অংশ নিতে চায় রোহিঙ্গারা

প্রত্যাবাসনের আলোচনায় অংশ নিতে চায় রোহিঙ্গারা

রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন যখনই করা হোক না কেন, সেই আলোচনায় অংশ হতে চায় তারা। আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস ও হিউম্যান রাইটসের সভাপতি মহিবুল্লাহ জানান, এই আলোচনার জন্য তারা চীনে যেতেও প্রস্তুত। কিন্তু তাদের সাথে আলোচনা না করে সংকট সমাধান সহজ হবে না। কারণ মিয়ানমারের সাথে দর কষাকষি করতে রোহিঙ্গাদের উপস্থিতি জরুরি।

গত ১৫ নভেম্বর ও চলতি বছরের ২২ আগষ্ট দু দফা ব্যর্থ হয় রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরানোর প্রক্রিয়া। কারণ হিসাবে, বাস্তুচ্যুত মানুষগুলোর মিয়ানমারের প্রতি অনাস্থা এবং প্রত্যাবাসনের আলোচনায় তাদের না রাখার কথা বলা হচ্ছে।

রোহিঙ্গা নেতা মহিবুল্লাহ বলেন, 'প্রত্যাবাসনের আলোচনায় আমাদের অন্তর্ভুক্ত করা হলে আমরা বাস্তবতা তুলে ধরতে পারব। তাতে চাপ আরও বাড়বে মিয়ানমারের ওপর।'

রোহিঙ্গা এই নেতার দাবি, আলোচনার জন্য চীন-মিয়ানমার কিংবা তৃতীয় কোন দেশে নিজেদের অবস্থান তুলে ধরতে প্রস্তুত তারা।

মহিবুল্লাহ বলেন, 'আমাকে সুযোগ দেয়া হলে আমি চীন, রাশিয়া, ভারতসহ সব দেশে যাব। উদাহরণ ও যুক্তি দিয়ে তুলে ধরব, মিয়ানমার সরকার তাদের যা বলছে তা পুরোটা সত্য নয়।'

ত্রাণ, প্রত্যাবাসন ও শরণার্থী কমিশনার বলছেন, রোহিঙ্গাদের খাবার, বাসস্থানসহ বিভিন্ন বিষয় এতদিন গুরুত্ব নিয়ে দেখা হয়েছে। তবে, এখন অগ্রাধিকার পাচ্ছে প্রত্যাবাসন।

ত্রাণ, শরণার্থী ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মোহাম্মদ আবুল কালাম বলেন, রোহিঙ্গাদের অসম্মতির কারণে তাদের আমরা ফেরত পাঠাতে পারি নাই। সামনে আমাদের অগ্রাধিকার হবে কিভাবে দ্রুত একটা টেকসই প্রত্যাবাসন কাজ শুরু করতে পারি।'

এই ইস্যুতে নীতিনির্ধারণী বৈঠকগুলোতে রোহিঙ্গাদের রাখা হবে কিনা, সে সিদ্ধান্তে এখনও পৌঁছায়নি সরকার কিংবা আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো।

নিউজটির ভিডিও-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর