channel 24

সর্বশেষ

  • সশস্ত্র বাহিনীকে একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায়...

  • সক্ষম করে তুলতে কার্যকর পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী...

  • সেনাকুঞ্জের সম্প্রসারিত ও পুনর্নির্মিত ভবন উদ্বোধন

  • ইমার্জিং এশিয়া কাপ: আফগানিস্তানকে ৭ উইকেটে হারিয়ে...

  • ফাইনালে বাংলাদেশ; শনিবার প্রতিপক্ষ পাকিস্তান...

  • আফগানিস্তান ২২৮/৯ (দারউইশ ১১৪), বাংলাদেশ ২২৯/৩ (সৌম্য ৬১)

  • অন্ধকার যুগ পেছনে ফেলে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ: প্রধানমন্ত্রী

  • বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যা: প্রসিকিউশন টিমে...

  • পরিবারের পছন্দ অনুযায়ী দুজন আইনজীবী রাখা হচ্ছে: আইনমন্ত্রী

  • চালের দাম বৃদ্ধির কারণ বোধগম্য নয়: কৃষিমন্ত্রী...

  • ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেলে একজনের মৃত্যু

  • খুলনাসহ বিভিন্ন জেলায় এখনও বাস চলাচল বন্ধ...

  • সড়ক আইনের কিছু বিষয় নিয়ে চিন্তা করছেন প্রধানমন্ত্রী: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী...

  • যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটার কোনো কারণ নেই: ওবায়দুল কাদের

  • বিচারপতি আবু জাফর সিদ্দিকীর ছেলে জুম্মান সিদ্দিকীকে...

  • বিশেষ বিবেচনায় হাইকোর্টে সনদ দেয়ার ঘটনা চ্যালেঞ্জ করে রিট

  • অর্থপাচার: ইটিভির সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুস সালামের মামলা...

  • বাতিল করেছেন হাইকোর্ট; আপিল করবে দুদক: আইনজীবী

  • সশস্ত্র বাহিনী দিবস: শিখা অনির্বাণে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা...

  • বীরশ্রেষ্ঠসহ খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনা

  • বিচারপতি আবু জাফর সিদ্দিকীর ছেলে জুম্মান সিদ্দিকীকে...

  • বিশেষ বিবেচনায় হাইকোর্টে সনদ দেয়ার ঘটনা চ্যালেঞ্জ করে রিট

  • স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আশ্বাসে পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার...

  • খুলনাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় এখনও বাস চলাচল বন্ধ

৪৮ বছর পর সাভারে সন্ধান মিললো পাক-বাহিনীর গণহত্যার স্থান

৪৮ বছর পর সাভারে সন্ধান মিললো পাক-বাহিনীর গণহত্যার স্থান

সাভারের ইছরকান্দি গ্রাম। পাক বাহিনী যে গ্রামে ১৯৭১ সালে বর্বর এক হত্যাযজ্ঞ চালায়। নিরীহ এবং অসহায় মানুষের উপর চালানো সেই হত্যাযজ্ঞে প্রায় একশ জন প্রাণ হারান। স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর ভয়াবহ সেই হত্যাযজ্ঞের নির্মমতা তুলে এনেছেন চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের অনুসন্ধানী সাংবাদিক ফয়সাল আলম।

ইতিমধ্যে হত্যাযজ্ঞের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়েছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ড. এনামুর রহমান এবং বিশিষ্ট ইতিহাসবিদ অধ্যাপক মুনতাসির মামুন। তারা গণকবরের স্থানটিকে বধ্যভূমি করার উদ্যোগ নেয়ার কথা যেমন জানিয়েছেন, তেমনি মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হকও যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেছেন।

ইছরকান্দি গ্রাম মূলত সাভার থানার ইয়ারপুর ইউনিয়নে। যেটি তুরাগ নদীর তীড়ে অবস্থিত। যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ইছরকান্দি গ্রামের একমাত্র অবলম্বন খেয়াপাড়াপাড়। ফলে ১৯৭১ সালের ২০ জুন (বাংলায় ৫ জৈষ্ঠ্য ১৩৭৮ সাল) পাক বাহিনী এই গ্রামে হত্যাযজ্ঞ চালায়। ইছরকান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ে বিভিন্ন গ্রাম থেকে আত্মগোপনে থাকা বা আশ্রয় নেয়া প্রায় অর্ধশত লোককে লাইন করে দাঁড় করিয়ে গুলি করে হত্যা করা হয়। মাগন মিয়াকে এই গ্রামে সবার আগে হত্যা করা হয়। 

নিহত মাগন মিয়ার ভাই মালেক জানান, সকাল বেলা পাকবাহিনীর ৪০/৫০ সদস্য নদী পার হয়ে তাদের বাড়িতে হানা দেয়। এরপর তার ভাইকে হত্যা করে। তিনি জানান, লাশগুলো হত্যার পর কিছু নদীতে ফেলে দেয়া হয় এবং পাঁচটি গণকবরে প্রায় ৪০ জনকে চাপা দেয়া হয়।
 
বলাই সিধবা নামে একজনের পরিবারের ৯ জনকে সেদিন পাক বাহিনী হত্যা করে। যারা হচ্ছেন- দ্রুপদি সিধবা,সচিন্দ্র চন্দ্র সিধবা, যোগিন্দ্র চন্দ্র সিধবা, প্রফুল্ল চন্দ্র সিধবা, মায়াদাসি সিধবা, ভাই মন্টু চন্দ্র সিধবা এবং লক্ষণ চন্দ্র সিধবার নাম জানা গেলেও বাকি দুজনের নাম জানা যায়নি।

পাচু শিকদারের মা কমলা ও বোন যমুনা পাকবাহিনীর নির্মম হত্যাযজ্ঞের শিকার হন। এর বাইরে তার আরেক বোনকে গুলি করা হয়।

পাক বাহিনীর হাতে প্রাণ হারানো মন্টু বিশ্বাস পরিবারের স্বজনদের মধ্যে নিতাই শিধা, দয়াল শিধা, হরিনাথ শিধা ও মনিন্দ্র শিধা এবং ছেলে সুধীর সিধা ও সুধাংশু সিধার নাম জানা গেছে। এর বাইরে আরেকজন মারা গেলেও তার নাম জানা যায়নি।

তথ্য বলছে, সাতজনের মধ্যে মন্টু বিশ্বাসের স্বজন সীতানাথ মাস্টারের দুই ছেলেকে হত্যা করা হয় এবং একমাত্র মেয়ে পুষ্পরানীকে পাকবাহিনী তুলে নিয়ে যায়। দুই মাস পর ছাড়া পেলে পুষ্পরানী পরিবারের সাথে দেশ ছাড়েন। পাক বাহিনীর হয়ে এই হত্যাযজ্ঞে বাংলাদেশি পাঁচজন দোসর সহযোগিতা করেন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর