channel 24

সর্বশেষ

  • জয়পুরহাটে জরাজীর্ণ বেইলি ব্রিজ দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলছে যানবাহন; যেকোনো সময় বড় দুর্ঘটনার শংকা

  • বারবার ট্রেন দুর্ঘটনা নিয়ে উদ্বেগে যাত্রীরা; রেলপথ নিরাপদ করতে কর্তৃপক্ষের কার্যকর উদ্যোগের দাবি

  • বাজারে পেঁয়াজের অস্বাভাবিক দাম নিয়ে একে অপরকে দুষছেন আমদানিকারক ও পাইকাররা

  • চট্টগ্রামের পাথরঘাটায় গ্যাস লাইনে বিস্ফোরণে নিহত ৭

রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে সংকটে সিলেটের টিলাগড় ইকোপার্ক

রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে সংকটে সিলেটের টিলাগড় ইকোপার্ক

সঠিক রক্ষণাবেক্ষণের অভাব ও প্রাণিচিকিৎসক না থাকায়, সংকটে পড়েছে সিলেটের বন্যপ্রাণি সংরক্ষণ কেন্দ্র। প্রতিষ্ঠার ১০ মাসের মধ্যেই হরিণ, ময়ূর, খরগোশসহ মারা গেছে অন্তত ২০টি প্রাণী। কমছে দর্শনার্থীও। সংরক্ষণের দায়িত্বে থাকা বন বিভাগ তাদের ত্রুটির বিষয়টি স্বীকার করে বলছে, বন্যপ্রাণি রক্ষায় পার্কটিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে।

গত বছরের (২০১৮ সাল) নভেম্বরে সিলেটের টিলাগড় ইকোপার্কে ৯ প্রজাতির ৫৮টি প্রাণি নিয়ে যাত্রা শুরু করে এই বন্যপ্রাণি সংরক্ষণ কেন্দ্র।

ম্যাকাও, আফ্রিকান গ্রে, লাভবার্ডসহ বিচিত্র সব পাখির সাথে জেব্রা, অজগর-সবই রাখা হয়েছিলো পার্কটিতে। কিন্তু প্রতিষ্ঠার ১০ মাসের মধ্যেই তিনটি ময়ূর, একটি হরিণ, একটি অজগর, দুইটি খরগোস ও পাখিসহ মারা গেছে অন্তত ২০টি প্রাণি।

স্থানীয়দের অবাধ যাতায়াত ও বনের ভেতর দিয়ে গাড়ি চলাচলকেই এই সংকটের জন্য দায়ী করছেন বন্যপ্রাণি নিয়ে কাজ করা সংগঠনের কর্মীরা।

তবে প্রাণিবিশেষজ্ঞদের মতে, সিলেট ইকোপার্কে যেসব প্রাণি রাখা হয়েছে তাদের টিকে থাকার মতো পরিবেশ ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা নেই। আর ব্ন বিভাগ বলছে, বিশেষজ্ঞ ডাক্তার না থাকা এবং প্রতিকূল পরিবেশের কারণে প্রাণিদের মৃত্যুর হার বাড়ছে।

২০০৬ সালে ১১২ একর জায়গায়, সিলেটের টিলাগড় এলাকায় ইকোপার্কটি গড়ে তোলে বন বিভাগ। এরপর গত বছর ৩০ একর জায়গায় যাত্রা শুরু করে চিড়িয়াখানাটি।

নিউজটির ভিডিও প্রতিবেদন-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর