channel 24

সর্বশেষ

  • চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের নতুন সভাপতি এম এ সালাম...

  • সাধারণ সম্পাদক শেখ আতাউর রহমান

  • এসএ গেমস: ভারোত্তোলনে মাবিয়া আক্তার, জিয়ারুল ইসলাম...

  • ফেন্সিংয়ে ফাতেমা মুজিব স্বর্ণ জিতেছেন; বাংলাদেশের স্বর্ণ ৭

  • কারো নির্দেশে নয়, হস্তক্ষেপমুক্ত বিচার বিভাগ চাই: বিচারপতি নুরুজ্জামান

  • রাষ্ট্রের তিনটি বিভাগের মধ্যে সমন্বয় থাকা প্রয়োজন...

  • একের কাজে অন্যের হস্তক্ষেপ ন্যায়বিচার বাধাগ্রস্ত করে: প্রধানমন্ত্রী

  • খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে নাটক করছে সরকার: ফখরুল...

  • মুক্তি দাবিতে রাজধানীসহ দেশের সব জেলায় বিক্ষোভ কাল

  • স্টামফোর্ডের শিক্ষার্থী রুম্পাকে ধর্ষণ ও হত্যার বিচার দাবিতে...

  • ধানমন্ডি ও সিদ্ধেশ্বরীতে সহপাঠীদের মানববন্ধন

  • অন্যায়ভাবে চাকরিচ্যুতি ও ছাঁটাইয়ের অভিযোগে...

  • এসএ টিভির কার্যালয়ে তালা দিয়েছেন আন্দোলনরত সাংবাদিকরা

  • এসএ গেমস: ভারোত্তোলন: ৭৬ কেজিতে স্বর্ণ জিতেছেন মাবিয়া আক্তার...

  • আসরে এটি বাংলাদেশের পঞ্চম স্বর্ণ...

  • ৮১ কেজি ওজন শ্রেণিতে রৌপ্য জিতেছেন জোহরা খাতুন...

  • ক্রিকেট: নেপালকে ৪৪ রানে হারিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ...

  • স্কোর: বাংলাদেশ ১৫৫/৬ (নাজমুল হোসেন ৭৫*) নেপাল ১১১/৯

জন্ম থেকেই দু'হাত নেই, প্রতিবন্ধকতার মাঝেও এইচএসসিতে 'এ' গ্রেড

জন্ম থেকেই দু'হাত নেই, প্রতিবন্ধকতার মাঝেও এইচএসসিতে 'এ' গ্রেড

জন্ম থেকেই দু'হাত নেই জয়পুরহাটের বিউটি খাতুনের। শারীরিক প্রতিবন্ধকতার মাঝেও এবারের এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে এ গ্রেড পেয়েছেন তিনি। এর আগে জেএসসি ও এসএসসিতে পেয়েছিলেন জিপিএ ফাইভ। জীবনের সব বাধা পেরিয়ে প্রতিষ্ঠিত হতে চান বিউটি খাতুন।

জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার শিবপুর গ্রামের বিউটি খাতুন। জন্ম থেকেই শারিরীক প্রতিবন্ধী। নেই দুটি হাত। সব কিছু করতে হয় পা দিয়ে।

এমন প্রতিবন্ধকতা জয় করেই চলছে তার জীবন সংগ্রাম। এ বছর অংশ নেন এইচএসসি পরীক্ষায়। পা দিয়ে লিখেই জিপিএ ৪.৬৭ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন। এতে খুশি তার স্বজন, সহপাঠী  ও এলাকাবাসী।

আর সব ছেলেদের মতোই নিত্য প্রয়োজনীয় সব কাজ করতে পারেন। কৃষক পরিবারের আশা বড় ছেলে মাষ্টার্স পাশ করেছে। মেয়েটেকেও ভালোভাবে পড়াশোনা করার আশা, অস্বচ্ছল পরিবারে সে আশা পূরন হবে কিনা সেই দু:চিন্তায় দিন  কাটছে বাবা-মা, তাই সকলের সহযোগিতা চাইলেন তারা।

হাত নেই তাতে কি লেখাপড়াসহ কোন কাজেই হার মানাতে পারেনি কেউ। লেখাপড়া মকরে জীবনের শেষ লক্ষে পৌছার কথা জানালেন এই প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী।

শিক্ষাকালে তার যেন কোন অসুবিধা না হয়, এ জন্য সব ধরণের সহায়তার আশ্বাস দিলেন জেলা প্রশাসক  ইসরাত ফারজানা।

তার ইচ্ছা, উচ্চতর লেখাপড়া শেষ করে শিক্ষকতা পেশায় নিজেকে নিয়োজিত রেখে দেশ ও দশের সেবা করা। অদম্য এই মেধাবী শিক্ষার্থীর স্বপ্ন পূরণে সকলে এগিয়ে আসবেন এমনটাই প্রত্যাশা তার পরিবারের।

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর