channel 24

সর্বশেষ

  • যুক্তরাজ্যের কনজারভেটিভ দলের নেতা নির্বাচিত বরিস জনসন...

  • পেয়েছেন ৯২ হাজার ১৫৩ ভোট; হতে যাচ্ছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী

  • গাজীপুরে ২ ও জামালপুরে নারীকে গণপিটুনি; নবাবগঞ্জে নারীকে পুলিশে সোপর্দ...

  • এ পর্যন্ত গণপিটুনিতে নিহত ৬ জন; ৯টি মামলায় গ্রেপ্তার ৮১...

  • সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়ালে ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • নেতৃত্বের প্রশ্নে জাতীয় পার্টিতে কোনো দ্বন্দ্ব নেই: জি এম কাদের

  • ঘুষ গ্রহণের মামলায় সাময়িক বরখাস্ত হওয়া দুদক পরিচালক...

  • এনামুল বাছিরের জামিন নামঞ্জুর; কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

  • শুধু ডেঙ্গুতে নয়, অন্য রোগ থাকলে মৃত্যুঝুঁকি বাড়ে: ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য বিএসএমএমইউ

  • সার্চলাইটে সংবাদ প্রচারের পর মেহেরপুরে ভুয়া ডাক্তার হান্নানকে...

  • ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও চেম্বার সিলগালা, চিকিৎসা না দেয়ার মুচলেকা

হামদর্দে পারিবারিক একনায়কতন্ত্র, এমডিকে আজীবন দায়িত্বে রাখতে বিতর্কিত গেজেট

হামদর্দে পারিবারিক একনায়কতন্ত্র, এমডিকে আজীবন দায়িত্বে রাখতে বিতর্কিত গেজেট

ছিলেন একটি শাখার ১৭০ টাকা বেতনের বিক্রয়কর্মী আর এখন পুরো প্রতিষ্ঠানের অঘোষিত মালিক। তাও আবার ওয়াকফ করা সম্পত্তি। দেশের অন্যতম বড় ওয়াকফ প্রতিষ্ঠান হামদর্দে চলছে পারিবারিক একনায়কতন্ত্র। আজীবন দায়িত্বে থাকার পাশাপাশি ভবিষ্যত প্রজন্মকেও একই পদে বসানোর জন্য পাশ করানো হয়েছে বিতর্কিত গেজেটও। সবই দশকের পর দশক ধরে হামদর্দের এমডি থাকা হাকিম ইউসুফ হারুন ভুইয়ার ক্যারিশমা। সহযোগিতার অভিযোগ ওয়াকফ প্রশাসনের বিরুদ্ধেও।

হামদর্দ, উপমহাদেশের অন্যতম প্রাচীন ও বড় আয়ুর্বেদিক চিকিৎসা ও প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান।

১৯০৬ সালে হাকিম আব্দুল মজিদের মাধ্যমে ভারতের দিল্লীতে যাত্রা শুরু করা হামদর্দ, ওয়াকফ প্রতিষ্ঠানে রূপান্তর হয় ১৯৪৮ সালে। দেশে এর প্রতিষ্ঠাতা ওয়াকিফ ও মোতওয়াল্লি হাকিম হাফেজ মো. সাঈদের কন্যা সাদিয়া রশিদ যার আনুষ্ঠানিক উত্তরসুরী।

সম্প্রতি হামদর্দের দুর্নীতি ও নানা অনিয়মের খবর যায় প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়, দুর্নীতি দমন কমিশন ও ধর্ম মন্ত্রণালয়সহ সরকারি বেশ কয়েকটি দপ্তরে।

আল্লাহর নামে দান করা বিপুল সম্পত্তি একটি পরিবার ভোগ করা, যুগের পর যুগ এক ব্যক্তিই প্রতিষ্ঠানটির শীর্ষ পদ দখল করে থাকাসহ নানা অনিয়মের দালিলিক প্রমাণসহ অভিযোগ জমা দেন লিগ্যাল এইড হিউম্যান ডেভলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা ড. সুফি সাগর সামস্। এরপরই নড়াচড়া শুরু হয় প্রশাসনে। এরই মধ্যে তদন্ত কমিটিও গঠন করে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

চ্যানেল 24-এর অনুসন্ধানে জানা যায়, মুক্তিযুদ্ধের সময় স্বাধীনতার বিরুদ্ধে থাকা ইউসুফ হারুন ভুইয়া, ১৯৭২ সালে ১৭০ টাকা বেতনে কাজ করতেন হামদর্দের গুলিস্তান শাখায়। বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার পর, জামায়াতের শীর্ষ নেতৃত্ব গোলাম আজম, মুজাহিদদের আঁতাত করে হামদর্দের বড়পদ দখল করেন। সেই ধারাবাহিকতা চলছে এখনও।

সবশেষ গত মার্চে নিজের ও পরিবারের দখলদারিত্ব চিরস্থায়ী করতে, ওয়াকফ প্রশাসনের সহায়তায় হামদর্দ নিয়ে নতুন গেজেট করান হাকিম ইউসুফ হারুন ভুইয়া।

১৯৮৬ ও ১৯৭৭ সালের আইন মেনেই হামদর্দ পরিচালিত হয়ে আসলেও, তাতে বড় পরিবর্তন আসে ২০১২ সালে।

অভিযোগ আছে, তৎকালীন ওয়াকফ প্রশাসক নুরুল হুদাকে আড়াই কোটি টাকা ঘুষ দিয়ে এসব পরিবর্তন করা হয়। যাতে নিজেকে হামদর্দের আজীবন চিফ মোতওয়াল্লি ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক করেন ইউসুফ হারুন ভুইয়া। আর মার্চের গেজেটে তাকে ঘোষণা করা হয় হামদর্দের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। এছাড়াও পরিবারের সব সদস্য অনন্তকাল হামদর্দের দায়িত্বে থাকবেন-যুক্ত করা হয় এমন বিতর্কিত ধারাও।

যদিও, ইউসুফ হারুনের অসুস্থতার কারণে ডিএমডির দায়িত্বে থাকা তার ছেলে, এখন পালন করছেন এমডির দায়িত্ব। নিজের অন্য দুই ছেলে-মেয়েকে বানিয়েছেন বিভিন্ন বিভাগের পরিচালক।

এসব বিষয়ে জানতে গেলে যেসব তথ্য দরকার তার খসড়া নিলেও, এক সপ্তাহ পর অন্য চেহারায় ওয়াকফ প্রশাসক শহীদুল ইসলাম। অনিয়মের বেশি কিছু বিষয় স্বীকার করলেও, ক্যামেরায় কোনো কথা বলতে রাজি হননি তিনি।

বারবার ফোন আর বার্তা পাঠিয়েও, সাড়া মেলেনি হামদর্দের এমডি ও তার পরিবারের কোন সদস্যের। কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গেলেও, দেখা মেলেনি কারও। জনসংযোগ বিভাগের এককর্মী প্রশ্ন নিলেও, পাওয়া যায়নি কোনো উত্তর।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর শেখ মো. আব্দুল্লাহ হুঁশিয়ারি, আল্লাহর নামে দান করা সম্পত্তির, এমন বেহাত অবস্থা মানবে না সরকার। কঠোরভাবে দমন করা হবে সব অনিয়ম দুর্নীতি। অচিরেই হামদর্দসহ অনিয়মের অভিযোগ ওঠা ওয়াকফ প্রতিষ্ঠানগুলোতে নজর দেয়া হবে বলেও জানান ধর্ম প্রতিমন্ত্রী।

প্রতিবেদনটি দেখুন ভিডিওতে-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর