channel 24

সর্বশেষ

  • ডেঙ্গু প্রতিরোধে ঢাকা উত্তর সিটির কর্মকর্তা-কর্মচারিদের ছুটি বাতিল

  • চট্টগ্রামে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ কাল; পুলিশের অনুমতি না পাওয়ায় এখনও চূড়ান্ত হয়নি স্থান

  • দুর্নীতি নিয়ে দুদক চেয়ারম্যানের মন্তব্য স্পষ্ট নয়; বললেন কাদের

  • বানের জলে চরম দুর্ভোগ; দু'দিনের মধ্যে মধ্যাঞ্চলে আরও অবনতির শঙ্কা

আমানত-ঋণ প্রবৃদ্ধি: ব্যাংকখাতে বিরাজ করছে অস্বাভাবিক অবস্থা

আমানত-ঋণ প্রবৃদ্ধি: ব্যাংকখাতে বিরাজ করছে অস্বাভাবিক অবস্থা

ব্যাংকখাতে আমানত-ঋণ প্রবৃদ্ধিতে এক অস্বাভাবিক অবস্থা বিরাজ করছে। সরকারি ব্যাংকগুলো যেখানে ঋণ দিতে পারছে না, সেখানে বেসরকারি ব্যাংকগুলোর ঋণ প্রবৃদ্ধি আমানতের তুলনায় আকাশচুম্বী। ব্যাংকাররা বলছেন, মূলত আমানতের প্রবৃদ্ধি খুবই কম হওয়ায় ঋণ-আমানত প্রবৃদ্ধিতে বিস্তর ফারাক দেখা দিয়েছে।

নয় ছয়ের প্রভাবে ব্যাংকের আমানত এখন তলানিতে। ঋণই ব্যাংকের মুনাফার মূল ভিত্তি। তাই আমানত প্রবৃদ্ধি না থাকলেও ঋণ যোগান চালু রেখেছে বেসরকারি ব্যাংকগুলো।

তাই তাদের ঋণ-আমানত অনুপাত (এডিআর) বেড়ে গিয়ে ছাড়িয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্ধারিত সীমা।

মার্চ শেষে সার্বিকভাবে বেসরকারি ব্যাংকের এডিআর দাঁড়িয়েছে ৮৭ শতাংশ। এর মধ্যে ১৮ টি ব্যাংকের এডিআর কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্ধারিত সীমার চেয়ে বেশি। আমানত প্রবৃদ্ধি না থাকায় অধিকাংশ বেসরকারি ব্যাংকই এখন সরকারি ব্যাংকগুলো থেকে আমানত নিয়ে ঋণ প্রবাহ চালু রেখেছে।

অপরদিকে সরকারি ব্যাংকগুলো এডিআর দাঁড়িয়েছে ৬০ শতাংশ। এরমধ্যে বেসিক ব্যাংকের ১১৩ শতাংশ ও রাজশাহী উন্নয়ন ব্যাংকের ১০৫ শতাংশ এডিআর বাদ দিলে তা ৫০ শতাংশেরও নিচে। অগ্রণী ব্যাংকের সিইও মো. শামসুল ইসলাম জানান, সরকারি ব্যাংকগুলোও চেষ্টা করছে ঋণ যোগান বাড়ানোর।

এডিআর কম থাকলেও সরকারি ব্যাংকগুলোর ব্যাপক মুনাফা হচ্ছে। তবে, এটাকে কোনভাবেই টেকসই মনে করেন না এবিবি'র সভাপতি সৈয়দ মাহবুবুর রহমান।

এই পরিমাণ ঋণ প্রবৃদ্ধি দিয়ে কোনভাবেই জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জন সম্ভব নয় বলেও মনে করেন তিনি।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর