channel 24

সর্বশেষ

  • খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে আন্তর্জাতিক মহলকে অবহিত করা হবে: ফখরুল

  • বকেয়া পরিশোধ না হলে চামড়া বিক্রি বন্ধ: আড়তদার সমিতি

  • ধ্বংসাত্মক রাজনীতির কারণে ভুলের চোরাবালিতে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

  • ভারতের নয়াদিল্লিতে অল ইন্ডিয়া মেডিকেল ইনস্টিটিউটের আগুন নিয়ন্ত্রণে

  • অবসর বিষয়ে মাশরাফীর সিদ্ধান্ত দুই মাস পর: বিসিবি সভাপতি

  • ক্রিকেট দলের নতুন হেড কোচ দক্ষিণ আফ্রিকার রাসেল ক্রেগ ডোমিঙ্গো...

  • দায়িত্ব নেবেন ২১ আগস্ট, চুক্তি দুই বছরের: বিসিবি সভাপতি

  • গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ভর্তি ১ হাজার ৪শ' ৬০: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  • ডেঙ্গুতে ঢাকা মেডিকেলে নারী ও ফরিদপুর মেডিকেলে কলেজছাত্রের মৃত্যু

  • ডেঙ্গু প্রতিরোধ: ঢাকা উত্তরের প্রতিটি ওয়ার্ডকে...

  • ১০ ভাগে ভাগ করে চিরুনি অভিযান: মেয়র আতিকুল

  • ঢাকাকে হংকং, সিঙ্গাপুর বানানোর ঘোষণা স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর

  • বকেয়া পরিশোধ না করায় ট্যানারিতে আপাতত...

  • চামড়া না দেয়ার ঘোষণা পোস্তার আড়তদারদের...

  • কাল সরকারের সাথে বৈঠকের পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত...

  • চামড়া বিক্রি করা না করা তাদের নিজস্ব ব্যাপার...

  • বকেয়া পরিশোধ হবে কেস টু কেস ভিত্তিতে: ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশন

  • সুপরিকল্পিতভাবে রাজনীতিকে শূন্য করার চক্রান্ত চালাচ্ছে সরকার: ফখরুল

  • কলকাতায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ বাংলাদেশি নিহত

বাংলাদেশে শ্রমিকদের নিরাপত্তা কতটুকু?

বাংলাদেশে শ্রমিকদের নিরাপত্তা কতটুকু?

বিশ্বের উন্নত দেশে কাজে গিয়ে কোন শ্রমিক হতাহত হলে তাদের ক্ষতিপূরণ দেয়া হয়। আর বাংলাদেশে হাতে গোনা কয়েকটি প্রতিষ্ঠান কিংবা মালিকপক্ষ শ্রমিকের পাশে এগিয়ে এলেও না আসার তালিকাটা বেশ বড়। শ্রম আইন বলছে, ন্যূনতম একশো শ্রমিক কোনো কারখানায় কাজ করলে তাদের জীবনবীমা বাধ্যতামূলক। কিন্তু, বাস্তবতা ভিন্ন। আইন বিশ্লেষক ও শ্রমিক নেতারা বলছেন, আইনের প্রয়োগ ও সহযোগীতার মানসিকতা উন্নয়ন সবচেয়ে জরুরি।

হাজারো শ্রমিকের ঘামে আজকের বাংলাদেশ। জীবন বাজি রাখা এই মানুষগুলোর অধিকার বঞ্চনার গল্পেরও শেষ নেই।

বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬ অনুযায়ী কর্মক্ষেত্রে শ্রমিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। কিন্তু, বাস্তব চিত্র কেমন?

কাজ করতে গিয়ে শ্রমিকের অঙ্গহানি এমনকি মৃত্যুও নতুন কিছু নয়। সেফটি অ্যান্ড রাইটস সোসাইটির জরিপ বলছে, ১০ বছরে দেশের বিভিন্ন খাতে দুর্ঘটনা হয়েছে প্রায় আড়াই হাজার। আর এসব ঘটনায় মারা গেছেন চার হাজারের বেশি শ্রমিক। যার বেশিরভাগের জন্যই দায়ী, কর্মক্ষেত্রে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা না থাকা।

শ্রমিক নেতা ও অধিকারভিত্তিক সংগঠনগুলো বলছে, কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং শ্রমিকের জীবন বীমা চালুসহ নানা দাবি থাকলেও অনেক সময়ই মালিকপক্ষ এসব আমলে নেয় না। বিশ্লেষকরা বলছেন, আইনের যথাযথ প্রয়োগের মাধ্যমে শ্রমিকের অধিকার নিশ্চিত করা সম্ভব।

সরকারি-বেসরকারি সব প্রতিষ্ঠানেই শ্রমিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত হোক মে দিবসে এই প্রত্যাশা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর