channel 24

সর্বশেষ

  • জনমনে আতঙ্ক ছড়াতেই পুলিশের গাড়িতে বিস্ফোরণ: ডিএমপি কমিশনার

  • ঈদ সামনে রেখে বাড়তে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম

  • জাপানি সুমিতোমো করপোরেশন বাংলাদেশে ২০ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে

  • নুসরাত হত্যা: ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

  • কলকাতার ঈদের বাজারে বাংলাদেশিদের ভিড়

  • মৌলভীবাজারে আইনজীবী খুন, ভাড়াটিয়া পলাতক

  • মাগুরা, দিনাজপুর ও নাটোরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫

  • শান্তিচুক্তির দুই দশক পরও সন্ত্রাসের বলি পাহাড়ের সাধারণ মানুষ

  • সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় পাঁচজন নিহত

  • আদালত পরিবর্তন: খালেদার রিটের শুনানি কাল

  • পোল্ট্রি খাতে অ্যান্টিবায়োটিকের ৩৫টি মিশ্রন বাতিল

  • ইইউ পার্লামেন্ট নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ

  • মোবাইল চুরির বিরোধের জেরে কলেজ ছাত্রকে হত্যা, আটক ৩

  • রোহিঙ্গা হত্যার দায়ে সাজাপ্রাপ্ত মিয়ানমারের ৭ সেনা সদস্যকে গোপনে মুক্তি

  • কিশোরগঞ্জে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে নিহত ১

বাংলাদেশে শ্রমিকদের নিরাপত্তা কতটুকু?

বাংলাদেশে শ্রমিকদের নিরাপত্তা কতটুকু?

বিশ্বের উন্নত দেশে কাজে গিয়ে কোন শ্রমিক হতাহত হলে তাদের ক্ষতিপূরণ দেয়া হয়। আর বাংলাদেশে হাতে গোনা কয়েকটি প্রতিষ্ঠান কিংবা মালিকপক্ষ শ্রমিকের পাশে এগিয়ে এলেও না আসার তালিকাটা বেশ বড়। শ্রম আইন বলছে, ন্যূনতম একশো শ্রমিক কোনো কারখানায় কাজ করলে তাদের জীবনবীমা বাধ্যতামূলক। কিন্তু, বাস্তবতা ভিন্ন। আইন বিশ্লেষক ও শ্রমিক নেতারা বলছেন, আইনের প্রয়োগ ও সহযোগীতার মানসিকতা উন্নয়ন সবচেয়ে জরুরি।

হাজারো শ্রমিকের ঘামে আজকের বাংলাদেশ। জীবন বাজি রাখা এই মানুষগুলোর অধিকার বঞ্চনার গল্পেরও শেষ নেই।

বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬ অনুযায়ী কর্মক্ষেত্রে শ্রমিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। কিন্তু, বাস্তব চিত্র কেমন?

কাজ করতে গিয়ে শ্রমিকের অঙ্গহানি এমনকি মৃত্যুও নতুন কিছু নয়। সেফটি অ্যান্ড রাইটস সোসাইটির জরিপ বলছে, ১০ বছরে দেশের বিভিন্ন খাতে দুর্ঘটনা হয়েছে প্রায় আড়াই হাজার। আর এসব ঘটনায় মারা গেছেন চার হাজারের বেশি শ্রমিক। যার বেশিরভাগের জন্যই দায়ী, কর্মক্ষেত্রে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা না থাকা।

শ্রমিক নেতা ও অধিকারভিত্তিক সংগঠনগুলো বলছে, কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং শ্রমিকের জীবন বীমা চালুসহ নানা দাবি থাকলেও অনেক সময়ই মালিকপক্ষ এসব আমলে নেয় না। বিশ্লেষকরা বলছেন, আইনের যথাযথ প্রয়োগের মাধ্যমে শ্রমিকের অধিকার নিশ্চিত করা সম্ভব।

সরকারি-বেসরকারি সব প্রতিষ্ঠানেই শ্রমিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত হোক মে দিবসে এই প্রত্যাশা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর