channel 24

সর্বশেষ

  • খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি ঘিরে আদালত প্রাঙ্গনে নিরাপত্তা জোরদার

  • ইলিয়াস কাঞ্চনের বিরুদ্ধে শ্রমিকদের আন্দোলন নোংরামি: হাইকোর্ট

  • শারীরিক প্রতিবন্ধকতা দমাতে পারেনি দুই ভাই-বোনকে

  • শহরগুলোকে স্মার্ট করতে প্রয়োজন প্রশাসনের বিকেন্দ্রীকরণ: মুহিত

  • 'এসডিজি অর্জনে অর্থায়নে সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বকে গুরুত্ব দিতে হবে'

  • পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে সান্ধ্যকালীন কোর্স বন্ধে নির্দেশনা

  • চট্টগ্রামে রোহিঙ্গাদের এনআইডি দেয়ার অভিযোগে ইসি'র ২ কর্মচারি গ্রেপ্তার

  • কারাগারে খালেদা জিয়াকে সর্বোচ্চ চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • চট্টগ্রামে চলন্ত বাস থেকে পড়ে যুবক নিহত

  • 'বিএনপি সংখ্যালঘুবান্ধব' মির্জা ফখরুলের এমন দাবি হাস্যকর: কাদের

  • ৭১-এর গণহত্যার কথা এখনও ভুলতে পারেন না আলমডাঙ্গাবাসী

  • ইউএনডিপির মানব উন্নয়ন সূচকে বাংলাদেশের এক ধাপ অগ্রগতি

  • মোবাইল ব্যবহার বাড়লেও কমছে আর্থিক সেবা গ্রহীতার সংখ্যা

  • গাম্বিয়াকে অভিনন্দন জানিয়েছে বাংলাদেশ

  • ১ বছর পর চালু হলো যমুনা সার কারখানা

পদ্মা সেতু প্রকল্প: খরচ করতে না পেরে দেড় হাজার কোটি টাকা ফেরত

পদ্মা সেতু প্রকল্প: খরচ করতে না পেরে দেড় হাজার কোটি টাকা ফেরত

খরচ করতে না পেরে এডিপি বরাদ্দের প্রায় দেড় হাজার কোটি টাকা ফেরত পাঠানো হচ্ছে পদ্মা সেতু প্রকল্প থেকে। ফলে, চলতি অর্থবছরের জন্য ৪ হাজার ৪শ কোটি টাকা নেমে আসছে তিন হাজার কোটিতে। প্রকল্প পরিচালক বলছেন, সময়মতো নকশা চূড়ান্ত করতে না পারায় বেশ খানিকটা পিছিয়ে ছিলো কাজকর্ম। আর বিশ্লেষকরা বলছেন, বিশেষ নজরদারিতে থাকার পরও বরাদ্দের টাকা কাটছাঁট হওয়া অনাকাঙ্ক্ষিত।

পদ্মার বুকে সেতুর দৈর্ঘ্য বাড়ছে নিয়মিত বিরতি দিয়ে। এখন পর্যন্ত নয়টি স্প্যানে দৃশ্যমান হয়েছে সোয়া এক কিলোমিটারের বেশি। এগুচ্ছে, অন্যান্য কাজকর্মও। এছাড়া, পুরোপুরি প্রস্তুত বেশ কয়েকটি খুঁটি। যেগুলোর ওপরও বসানো হবে নতুন স্প্যান।

এক রকম প্রত্যাশিত গতিতে কাজ এগুলেও, সমস্যা রয়ে গেছে টাকা খরচের ক্ষেত্রে। কেননা, দীর্ঘদিন ধরে ৬ ও ৭ নম্বর খুঁটি নিয়ে জটিলতার সমাধান না হওয়ায় ফেরত পাঠাতে হচ্ছে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি- এডিপিতে থাকা বরাদ্দের টাকা।

পদ্মা প্রকল্পের জন্য এখন পর্যন্ত মোট খরচ ধরা হয়েছে ত্রিশ হাজার দুইশ কোটি টাকা। আর ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বরাদ্দ ছিল ৪ হাজার ৪শ কোটির মতো। কিন্তু, ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত হিসাব বলছে, বরাদ্দের বিপরীতে মোট ছাড় করা হয় ২হাজার কোটির বেশি। যার থেকে খরচ হয় দেড় হাজার কোটির কম। যা মোট বরাদ্দের মাত্র তিন ভাগের এক ভাগ। প্রশ্ন হলো, ফাস্টট্র্যাকের অধীনে থাকার পরও কেনো গতি নেই খরচের ক্ষেত্রে?

ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত পদ্মা প্রকল্পে মোট খরচ হয়েছে সোয়া ১৮ হাজার কোটি টাকা। যা মোট বরাদ্দের পাঁচ ভাগের তিন ভাগ।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর