channel 24

সর্বশেষ

  • মানিকগঞ্জের পুখুরিয়ায় বাসচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী বাবা-ছেলে নিহত

  • ভোটারদের কেন্দ্রে আনার দায়িত্ব প্রার্থীর, ইসির নয়: সিইসি

  • উন্নয়ন করতে গিয়ে গরিবের ক্ষতি করা যাবে না: প্রধানমন্ত্রী

  • দায়িত্ব নিচ্ছেন ডাকসুর ভিপি নুর; অফিস বুঝে পেতে চিঠি...

  • ডাকসু নির্বাচন সংক্রান্ত অভিযোগ তদন্তে কমিটি; ৭ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন

  • ঢাকায় পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা ফেরাতে ব্যর্থতা স্বীকার ডিএমপি কমিশনারের

  • ছাত্র আন্দোলনে উসকানি বিএনপির দেউলিয়াত্বের প্রমাণ: হানিফ

  • পদ্মাসেতুর জাজিরা প্রান্তে আজ বসানো হচ্ছে না অষ্টম স্প্যান

  • এমপিওভুক্তির দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে...

  • সড়ক অবরোধ করে আন্দোলন করছে শিক্ষকরা

  • সড়ক দুর্ঘটনায় সিরাজগঞ্জ, খুলনা ও নরসিংদীতে ৩ স্কুলশিক্ষার্থী নিহত

  • রাজধানীর কল্যাণপুরে তেলবাহী লরির ধাক্কায় মাদ্রাসা শিক্ষক নিহত

'রোহিঙ্গাদের ওপর আর কোনো নির্যাতন করবে না মিয়ানমার'

'রোহিঙ্গাদের ওপর আর কোনো নির্যাতন করবে না মিয়ানমার'

রোহিঙ্গাদের ওপর আর কোনো নির্যাতন ও যৌন নিপীড়ন করবে না মিয়ানমার। এমনকি এর আগে ঘটে যাওয়া নৃশংসতারও যথাযথ তদন্ত করবে। চ্যানেল 24 কে এ কথা জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ দূত প্রমিলা প্যাটান। তিনি বলেন, তার অফিসের সাথে একটি চুক্তিও করেছে মিয়ানমার। যেখানে বলা হয়েছে, মিয়ানমার তার সেনাবাহিনী ও নিরাপত্তা বাহিনীকে নজরদারির মধ্যে রাখবে।

২০ মাস হতে চললো প্রাণ ভয়ে বানের জলের মত ভেসে আসা রোহিঙ্গাদের। নিজ দেশের নাগরিকদের ফিরিয়ে নিতে সদিচ্ছার অভাব রয়েই গেছে মিয়ানমারের। তাই দেশটির ওপর চাপ অব্যাহত রাখে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ, মানবাধিকার পরিষদ, ইইউ সংসদ থেকে শুরু করে প্রায় প্রতিটি আন্তর্জাতিক বড় সংস্থা। এ অবস্থায় গেল মাসে জাতিসংঘের সাথে একটি চুক্তি সই করে মিয়ানমার। যেখানে ভবিষ্যতে এমন নির্যাতনের ঘটনা আর না ঘটার আশ্বাস দিয়েছে দেশটি।

আরও জানতে: ইথিওপিয়ায় বিমান বিধ্বস্ত, ১৫৭ আরোহী নিহত

স্টিভ জবস, আবিষ্কারের অনুপ্রেরণা

নারী দিবসে মা ও স্ত্রীর জন্য রান্না করলেন শচীন

সম্প্রতি রোহিঙ্গাদের সবশেষ পরিস্থিতি পরিদর্শনে আসেন জাতিসংঘের মহাসচিবের বিশেষ দূত প্রমিলা প্যাটান। জানান, মিয়ানমারের কিছুটা নমনীয় আচরণের বিষয়টি।

প্রমিলা প্যাটান বলেন, রোহিঙ্গা নির্যাতন ও যৌন নিপীড়ন ঠেকাতে কাজ করার আশ্বাস দিয়েছে মিয়ানমার। যেখানে তারা সেনাবাহিনী ও নিরাপত্তা বাহিনীকেও নজরদারির মধ্যে রাখবে। এজন্য তারা দেশটির বিচার ব্যবস্থাকেও ঢেলে সাজানোর কথা বলেছে। এখন দেখার বিষয় এই প্রতিশ্রুতির কতটা বাস্তবায়ন হয়।

শিগগিরই রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন হচ্ছে না উল্লেখ করে জাতিসংঘের এই নীতিনির্ধারক জানান, রোহিঙ্গাদের পরিচয়ের ইস্যুটি এখনও নিশ্চিত নয়।

তিনি বলেন, শরণার্থী হিসেবে মেনে নেয়া হোক বা না হোক রোহিঙ্গাদের প্রতি বাংলাদেশের দায়িত্ব যেমন আছে তেমনি আন্তর্জাতিক শরণার্থী বিষয়ক আইনি কিছু বাধ্যবাধকতাও আছে। তবে আশার কথা হচ্ছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত খুব শিগগিরই তদন্ত শুরু করবে।)

রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ায় আরও একবার বাংলাদেশকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানান প্রমিলা প্যাটান। বলেন, শরনার্থী প্রবেশ ঠেকাতে উন্নত দেশগুলো যখন দেয়াল তুলছে; তখন বাংলাদেশ অসামান্য উদারতার ইতিহাস তৈরী করেছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর