channel 24

সর্বশেষ

  • যুক্তরাজ্যের কনজারভেটিভ দলের নেতা নির্বাচিত বরিস জনসন...

  • পেয়েছেন ৯২ হাজার ১৫৩ ভোট; হতে যাচ্ছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী

  • গাজীপুরে ২ ও জামালপুরে নারীকে গণপিটুনি; নবাবগঞ্জে নারীকে পুলিশে সোপর্দ...

  • এ পর্যন্ত গণপিটুনিতে নিহত ৬ জন; ৯টি মামলায় গ্রেপ্তার ৮১...

  • সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়ালে ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • নেতৃত্বের প্রশ্নে জাতীয় পার্টিতে কোনো দ্বন্দ্ব নেই: জি এম কাদের

  • ঘুষ গ্রহণের মামলায় সাময়িক বরখাস্ত হওয়া দুদক পরিচালক...

  • এনামুল বাছিরের জামিন নামঞ্জুর; কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

  • শুধু ডেঙ্গুতে নয়, অন্য রোগ থাকলে মৃত্যুঝুঁকি বাড়ে: ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য বিএসএমএমইউ

  • সার্চলাইটে সংবাদ প্রচারের পর মেহেরপুরে ভুয়া ডাক্তার হান্নানকে...

  • ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও চেম্বার সিলগালা, চিকিৎসা না দেয়ার মুচলেকা

বিশ্বের কোনো গবেষক যা করতে পারেননি, তাই করেছেন তারেক হাসান

বিশ্বের কোনো গবেষক যা করতে পারেননি, তাই করেছেন তারেক হাসান

স্বপ্ন যার আকাশ ছোঁয়া, তাকে দমিয়ে রাখে সাধ্য কার? বলছি কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক তারেক হাসান আল মাহমুদের কথা। বিশ্বের কোনো গবেষক যে কাজটি করতে পারেননি, তাই করে দেখিয়েছেন তিনি। গবেষণার মাধ্যমে দুটি মিসাইলের কৌণিক দূরত্ব কমিয়ে এনেছেন ২ ডিগ্রির মধ্যে। এ জন্য পেয়েছেন চীনের সেরা উদ্ভাবকের পুরস্কারও। বর্তমান পিএইচডি করছেন ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি অব চায়নাতে।

তারেক হাসান আল মাহমুদ কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক। বছর চারেক আগে ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি অব চায়নাতে যান পিএইচডি করতে।

বাংলাদেশি এই শিক্ষকের প্রতি আস্থা রেখে অত্যন্ত দুরহ একটি কাজের দায়িত্ব দেন তার সুপারভাইজার। বলা হয়, ৫ ডিগ্রি অ্যাংগুলার সেপারেশনের ভেতরে থাকা দুটি মিসাইলের দূরত্ব কমিয়ে ৩ ডিগ্রির মধ্যে আনতে।

গবেষণার মাধ্যমে এক বছরের চেষ্টায় সেই কঠিন কাজটি শেষ করেন, তারেক হাসান। দুটি মিসাইলের কৌণিক দূরত্ব কমিয়ে আনেন ২ ডিগ্রির মধ্যে। তবে এটি অন্যান্য প্রযুক্তির ক্ষেত্রেও সম্ভব বলে জানান তিনি। আর এ আবিষ্কারের জন্য সম্প্রতি জিতে নেন, সেরা উদ্ভাবকের পুরস্কার বেস্ট রিসার্চ পেপার অ্যান্ড প্রেজেন্টেশন অ্যাওয়ার্ড। চীন থেকেই চ্যানেল টোয়েন্টিফোরকে দেয়া সাক্ষাতকারে এই স্বীকৃতি মাতৃভূমিকে উৎসর্গের কথা জানান।

চীনের এই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রথম কোনো বাংলাদেশি পেলেন মর্যাদাপূর্ণ এ পুরস্কার। ভবিষ্যতে ফিরে এসে কাজ করতে চান দেশের জন্য।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের এই শিক্ষকের সাফল্যে উচ্ছ্বসিত তার সহকর্মী ও শিক্ষার্থীরাও

শিক্ষক তারেক হাসান আল মাহমুদের গবেষণা এগিয়ে যাক আরও বিশ্ব দরবারে তুলে ধরুক লাল-সবুজের পতাকা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর