channel 24

সর্বশেষ

  • ভারতের নয়াদিল্লিতে অল ইন্ডিয়া মেডিকেল ইনস্টিটিউটে আগুন...

  • নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ৩৪টি ইউনিট

  • অবসর বিষয়ে মাশরাফীর সিদ্ধান্ত দুই মাস পর: বিসিবি সভাপতি

  • ক্রিকেট দলের নতুন হেড কোচ দক্ষিণ আফ্রিকার রাসেল ক্রেগ ডোমিঙ্গো...

  • দায়িত্ব নেবেন ২১ আগস্ট, চুক্তি দুই বছরের: বিসিবি সভাপতি

  • গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ভর্তি ১ হাজার ৪শ' ৬০: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  • ডেঙ্গুতে ঢাকা মেডিকেলে নারী ও ফরিদপুর মেডিকেলে কলেজছাত্রের মৃত্যু

  • ডেঙ্গু প্রতিরোধ: ঢাকা উত্তরের প্রতিটি ওয়ার্ডকে...

  • ১০ ভাগে ভাগ করে চিরুনি অভিযান: মেয়র আতিকুল

  • ঢাকাকে হংকং, সিঙ্গাপুর বানানোর ঘোষণা স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর

  • বকেয়া পরিশোধ না করায় ট্যানারিতে আপাতত...

  • চামড়া না দেয়ার ঘোষণা পোস্তার আড়তদারদের...

  • কাল সরকারের সাথে বৈঠকের পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত...

  • চামড়া বিক্রি করা না করা তাদের নিজস্ব ব্যাপার...

  • বকেয়া পরিশোধ হবে কেস টু কেস ভিত্তিতে: ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশন

  • সুপরিকল্পিতভাবে রাজনীতিকে শূন্য করার চক্রান্ত চালাচ্ছে সরকার: ফখরুল

  • কলকাতায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ বাংলাদেশি নিহত

ইউএস বাংলার উড়োজাহাজ বিধ্বস্তের শেষ মুহূর্তের ভিডিও

ইউএস বাংলার উড়োজাহাজ বিধ্বস্তের শেষ মুহূর্তের ভিডিও

নেপালে গেল বছর ইউএস বাংলার উড়োজাহাজ বিধ্বস্তের শেষ মুহূর্তের কিছু ছবি চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের হাতে এসেছে। যদিও এ দুর্ঘটনার জন্য পাইলটের গাফিলতিকেই দুষছে নেপাল। দেশটির তদন্ত কমিটির ৪৩ পৃষ্ঠার প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, উড়োজাহাজের ককপিটে ধূমপান করেছিলেন পাইলট। এছাড়া উড়োজাহাজের ত্রুটি নয়, পাইলটের মানসিক বিপর্যস্ততা ও ভুল সিদ্ধান্তের কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটে। তবে, এসব বিষয় নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বাংলাদেশ সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ। আর এ অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে ইউএস বাংলা।

ইউ এস বাংলা ফ্লাইট নং, বিএস ২১১। অতরণের চেষ্টায় উড়োজাহাজটি। মুহূর্তেই ৭১ আরোহী নিয়ে ত্রিভূবন বিমানবন্দরে বিধ্বস্ব হয়। ২০১৮'র মার্চের এই ঘটনায় পাইলট ক্রুসহ প্রাণ হারান ৫১ জন।

আরও জানতে - নির্দোষ ব্যক্তিকে জেল খাটানোয় দুদক চেয়ারম্যানের প্রতিনিধিসহ চারজনকে তলব

দাম্পত্য কলহে ডিভোর্স: সন্তানকে ফিরে পেতে আদালতের দ্বারস্থ বাবা

এখন আসলেই সবকিছু এডিট করা যায়

ঘটনার পর থেকেই বিধ্বস্তের জন্য ইউএস বাংলার পাইলটকে দায়ী করে আসছিলো নেপাল। দেশটির তদন্ত কমিশনের ৪৩ পৃষ্ঠার চূড়ান্ত প্রতিবেদনে, অবতরণের শেষ মুহুর্তে রানওয়ে নিয়ে এয়ার কন্ট্রোল রুমের সাথে পাইলটের ভুল বোঝাবুঝির বিষয়টি স্বীকার করলেও একে দুর্ঘটনার প্রধান কারণ বলতে নারাজ। তাদের দাবি, পাইলটের মানসিক অস্থিরতা, বিচলিত হওয়া ও পরিস্থিতি সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা না থাকার কারণেই বিধ্বস্ত হয় বিমানটি। এমনকি নিয়ম ভঙ্গ করে বিমানে ধূমপানও করে পাইলট আবিদ।

তবে ধূমপান জনিত কারণে উড়োজাহাজ দুর্ঘটনা ঘটে নি এমন দাবি এয়ারক্রাফট অ্যাক্সিডেন্ট ইনভেস্টিগেশন গ্রুপ অব বাংলাদেশ।  

যদিও বাংলাদেশের সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ কাঠমান্ডুর প্রতিবেদনের কিছু বিষয় নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। তাদের দাবি, কন্ট্রোল টাওয়ারের যারা দায়িত্বে ছিলেন তারা পাইলটকে সঠিক নির্দেশনা দিলে ঠেকানো যেতো এই দুর্ঘটনা।

বেশকিছু সংযুক্তি দিয়েছে এএআইজি অব বাংলাদেশ। যদি তা চূড়ান্ত প্রতিবেদনে পুণরায় উল্লেখ না করে আইকাওতে আপিল করবে এয়ারক্রাফট অ্যাক্সিডেন্ট ইনভেস্টিগেশন গ্রুপ অব বাংলাদেশ। এছাড়া নেপালের চূড়ান্ত প্রতিবেদন পুরোপুরি সত্য নয় বলে দাবি, ইউএস বাংলা কর্তৃপক্ষও।

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর