channel 24

সর্বশেষ

  • লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরির দায়িত্ব ইসির: ওবায়দুল কাদের...

  • ভালো প্রার্থী পেলে মহাজোটের অন্য দলকে আসন ছাড়বে আ.লীগ

  • মুক্তিযুদ্ধের শক্তি ঐক্যবদ্ধ, বিজয় সুনিশ্চিত: নাসিম

  • বর্তমান সরকারের ক্ষমতায় থাকা অসাংবিধানিক: ড. কামাল

  • সরকার ইচ্ছামতো বিচার ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করছে: ফখরুল

  • নির্বাচন বানচালের চেষ্টা করলে জাতি তাদের ক্ষমা করবে না: বি. চৌধুরী

  • প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন চায় না ইসি, নিরপেক্ষতার প্রশ্নে ছাড় নয়: কমিশনার শাহাদাত

  • কাল শুরু পিইসি ও ইবতেদায়ি পরীক্ষা; থাকছে না এমসিকিউ

গ্রেনেড হামলা মামলায় সুষ্ঠু বিচারের আশা বেঁচে ফেরাদের

গ্রেনেড হামলা মামলায় সুষ্ঠু বিচারের আশা বেঁচে ফেরাদের

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট, বিকেল ৫ টা ২২ মিনিট। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে, সে সময়ের বিরোধী দল আওয়ামী লীগের ডাকে চলছিল সন্ত্রাস বিরোধী সমাবেশ। দলের সভাপতি শেখ হাসিনার ভাষণও প্রায় শেষ পর্যায়ে। ঠিক তখনই বিকট শব্দে কেঁপে ওঠে পুরো এলাকা।

মাত্র দেড় মিনিটের ব্যবধানে বিস্ফোরিত হয় কমপক্ষে ১৩টি গ্রেনেড। কুণ্ডলী পাকানো কালো ধোঁয়ার পর্দাটা ভারী তখন, আর্তনাদের স্বরে। সমাবেশের উচ্ছাস মুহূর্তেই রূপ নেয়, রক্তের বন্যায়। ছিন্নভিন্ন নিথর দেহ, ছড়ানো ছিটানো জুতা স্যান্ডেল, ছেঁড়া ব্যানার তৈরি করে এক অবর্ণনীয় দৃশ্যপট।

একদিকে আহতদের চিকিৎসার ব্যবস্থা, আরেকদিকে দ্রোহের আগুন। দিশেহারা এমন অবস্থায় নেতাকর্মীদের উপর পুলিশের লাঠিচার্জ। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যেন উল্টো দেশে, উল্টো বেশে।

নেতাকর্মীরা বর্ম গড়ে তোলায় কপাল গুণে শেখ হাসিনা বেঁচে গেলেও, প্রাণ হারান মহিলা আওয়ামী লীগের তখনকার সভানেত্রী আইভি রহমানসহ অন্তত ২২ জন। স্প্লিন্টার আর গুলিতে আহত হন তিনশতাধিক নেতাকর্মী।

সেদিনের দুর্বিষহ সেই অভিজ্ঞতা এখনও তাড়া করে ফেরে তাদের। একটাই চাওয়া দোষীদের সুষ্ঠু বিচার।

বিচারের জন্য চৌদ্দ বছরের প্রতিক্ষার অবসান হতে চলেছে আসছে ১০ অক্টোবর। পুলিশ বলছে, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় ঘিরে যেকোনো অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঠেকাতে সর্বোচ্চ সতর্ক রয়েছে তারা।

যদিও এখন পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে নাশকতার কোনো তথ্য নেই বলে জানাচ্ছে পুলিশ।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর