channel 24

সর্বশেষ

  • বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ: আরব আমিরাতকে ২-০ গোলে হারালো বাংলাদেশ

  • বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের সাথে অংশীদারিত্ব গড়ে তুলতে...

  • ব্রুনাইয়ের ব্যবসায়ীদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহবান...

  • ব্রুনাইয়ের সুলতানের সাথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বৈঠক...

  • এলএনজি সরবরাহসহ ৬টি সমঝোতা স্মারক সই এবং...

  • দুদেশের অফিসিয়াল পাসপোর্টধারীদের বিনা ভিসায় ভ্রমণের নোট বিনিময়

  • শ্রীলঙ্কা ট্র্যাজেডি: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৯০; কাল রাষ্ট্রীয় শোক...

  • আজ মধ্যরাত থেকে জারি হতে পারে জরুরি অবস্থা...

  • জামাত আল তাওহীদ আল-ওয়াতানিয়ার দায় স্বীকার...

  • আল আরাবিয়ার বরাত দিয়ে রুশ সংবাদ মাধ্যম তাস...

  • সেন্ট অ্যান্তোনি চার্চের পাশে বোমা নিষ্ক্রিয়ের সময় বিস্ফোরণ...

  • হতাহত নেই; কলম্বোর বাস স্টেশন থেকে বিস্ফোরক উদ্ধার

বর্মি সেনাদের পাশেই চীন-রাশিয়া

বর্মি সেনাদের পাশেই চীন-রাশিয়া

রোহিঙ্গা ইস্যুতে চীন ও রাশিয়া মিয়ানমারের পক্ষ নেয়ায় জাতিসংঘের অধীনে বিচার করা কঠিন। এমনটাই মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। আর ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশনের প্রতিবেদন প্রত্যাখান করেছে মিয়ানমার। তবে এই প্রতিবেদন বিশ্বে প্রতিষ্ঠিত বলে মন্তব্য করেছেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

জাতিসংঘের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশন রাখাইনে রোহিঙ্গা নির্যাতন নিয়ে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন প্রকাশ করে সোমবার। যেখানে বলা হয়, মিয়ানমার সেনাবাহিনীর জেনারেলরা গণহত্যা, মানবতাবিরোধী অপরাধ এবং যুদ্ধাপরাধ করেছে।

আন্তর্জাতিক আইনের আওতায় মিয়ানমার যে অপরাধ করেছে তার বিচারের জন্য পুরোপুরি দায়িত্ব দেয়া হয়েছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদকে। প্রতিবেদনে বলা হয়, পরিস্থিতি বিবেচনায় বিষয়টি আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে পাঠাতে সুপারিশ করতে পারে নিরাপত্তা পরিষদ। কিংবা অ্যাডহক ভিত্তিতে একটি আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল গঠন করা যেতে পারে।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে চীন ও রাশিয়া। এ অবস্থায় মিয়ানমার সেনাবাহিনীর বিচার করা কি সম্ভব?

এছাড়া রোহিঙ্গা নির্যাতনের সাথে জড়িতদের বিচারের এখতিয়ার আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের আছে কিনা তা জানতে গেলো এপ্রিলে আবেদন করেন আদালতটির প্রসিকিউটর। বিষয়টি বাংলাদেশ এবং মিয়ানমারের কাছে জানতে চায় আইসিসি। ঢাকা এর জবাব দিলেও, আইসিসির সদস্য রাষ্ট্র নয় উল্লেখ করে এর জবাব দেয়নি মিয়ানমার।

ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশনের প্রতিবেদন এরই মধ্যে প্রত্যাখান করেছে মিয়ানমার। তবে এই প্রতিবেদন বিশ্বে প্রতিষ্ঠিত; বলছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

প্রতিবেদনে দ্বিতীয় আরো একটি ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশন গঠনেরও প্রস্তাব করা হয়েছে।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর