channel 24

সর্বশেষ

  • চট্টগ্রামে চলছে চাকরি মেলা

  • নরসিংদীর বাঁশগাড়িতে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষে এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু

  • নির্বাচনি ইশতেহারে স্বাস্থ্য খাতকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়ার আহবান

  • রাইড শেয়ারিং অ্যাপ উবারের ১০৭ কোটি ডলার লোকসান

  • মূলার বাম্পার ফলনের পরও লোকসানে লালমনিরহাটের চাষীরা

  • ইতিহাসের সাক্ষী হবার অপেক্ষায় নোয়াখালী শহীদ ভুলু স্টেডিয়াম

  • শীতকালীন সবজিতে ছেয়ে গেছে কাঁচাবাজার

  • নিপুণ রায়সহ ৭ জন পাঁচ দিনের রিমান্ডে

  • মিডিয়া কাপ ক্রিকেটে বাংলা ট্রিবিউন চ্যাম্পিয়ন

  • বকুলতলায় নাচে-গানে উদযাপিত হচ্ছে নবান্ন উৎসব

  • বর্ণময় জীবনের অধিকারী ছিলেন শিল্পী বারী সিদ্দিকী

  • সংখ্যালঘু নির্যাতনকারীদের মনোনয়ন না দেয়ার দাবি হিন্দু জোটের

  • সানরাইজার্সের হয়েই আইপিএল খেলবেন সাকিব

  • বরিশালের সঙ্গে ঝালকাঠিসহ ছয়টি রুটে বাস চলাচল বন্ধ

  • সৃষ্টির মাঝেও কাটছে না শূন্যতার রেশ

ব্যাংককে 'মৃত্যু সচেতনতা ক্যাফে'

ব্যাংককে 'মৃত্যু সচেতনতা ক্যাফে'

'ক্লিনিক ক্যাফে', 'রোবো ক্যাফে' , 'টয়লেট ক্যাফে' সহ নানা রকম অদ্ভুত রেস্তোরাঁর কথা অনেকই শোনা যায়। তবে থাইল্যান্ডের একটি ক্যাফে তার নামে এবং বিষয়বস্তুতে অন্য সবগুলোকে ছাড়িয়ে গেছে। 'মিট ইয়োর মেকার' বা আপনার সৃষ্টিকর্তাকে স্মরণ করুন এই স্লোগানে থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককে চালু হয়েছে এই অদ্ভুত রেস্তোরাঁ।
এই ক্যাফের মূল আকর্ষণ হল একটি কফিন। নাম ‘কিড-মাই ডেথ ক্যাফে’ যার অর্থ হল মৃত্যু সচেতনতা ক্যাফে। নতুন ভাবনাই বটে! কর্তৃপক্ষের দাবি, ‘কিড মাই’ ক্যাফেতে উপাদেয় খাবার-দাবার, কফি তো মিলবেই, সঙ্গে মিলবে মৃত্যুর অভিজ্ঞতাও! ক্যাফের অভ্যন্তরীণ সাজ-সজ্জাও মানানসই। তবে কফিন-বন্দি হওয়ার বিশেষ অভিজ্ঞতার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের পানীয় এবং কুকি পাওয়া যায় ‘কিড মাই’তে।
সমস্ত বাহারি পদের জন্য মেনুকার্ডে রাখা বিভাগগুলিঃ - 'জন্ম', 'বৃদ্ধ', 'যন্ত্রণা', 'অসুস্থতা', 'মৃত্যু'। যে ড্রিঙ্ক এখানে সার্ভ করা হয়, তার নাম শুনলেই আঁতকে উঠবেন - 'বার্থ', 'ডেথ', 'ওল্ড এজ'। সাদা ফুল, ও কালো চেয়ার সাজানো রয়েছে ক্যাফের ভিতরে।শুধু তাই নয়, দেয়ালে লেখা রয়েছে, ‘মৃত্যুর পর কিছুই সঙ্গে নিতে পারবে না’ কিংবা ‘তুমি কি মৃত্যুর জন্য প্রস্তুত?’ ইত্যাদি বাণী। পুরোটাই যেন মৃত্যুকে মনে করানোর জন্য।
জানা গিয়েছে, ক্যাফেটি শুধুমাত্র ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয়নি। ব্যাংককের সেইন্ট জন’স ইউনিভার্সিটির দর্শন বিষয়ে পিএইচডি করছেন সহকারী অধ্যাপক ভিরানুত রোজানাপ্রাপা। নিজের গবেষণার জন্যই তিনি এই ক্যাফে তৈরি করেছেন। এই ক্যাফেতে যাঁরা কফিনের ভিতরের বিশেষ অভিজ্ঞতা নেন, তাঁদেরকে একটি নোটবইতে নিজেদের অভিজ্ঞতার কথা লিখতে বলা হয়। একই সঙ্গে ক্যাফের ক্যাটালগ থেকে ক্রেতাদের নিজের শেষকৃত্যের জন্য একটি কফিন বাছাই করতে বলা হয়।
সব মিলিয়ে বেঁচে থেকেও মৃত্যুর মুখে টাকা দিয়ে ঘুরে আসার মহাআয়োজন। যে আয়োজনে সাধ করে ঢুঁ মারতে পিছপা হচ্ছেন না জীবনবিলাসীরা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর