channel 24

সর্বশেষ

  • ৭ কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ

  • নিষ্ঠুরতার শিকার হয়ে মাকে হারালো অবুঝ শিশু তুবা

  • পশুর দেহে স্টেরয়েড ব্যবহারে নেতিবাচক প্রভাব পড়ে চামড়ার মানে

  • চীনে ঋণ পরিশোধে বিদেশি বন্ড বিনিময়ের সুযোগ উন্মুক্ত হলো

  • প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদন

  • সুন্নতে খতনা করার সময় শিশুর মৃত্যু

  • দেশে ফিরে বীরের সংবর্ধনা পেলো আফ্রিকা সেরা আলজেরিয়া

  • রাজধানী থেকে রিক্সা তুলে দেয়ার পক্ষে নয় ডিটিসিএ

  • শিরোপা উৎসবের অপেক্ষা বাড়ালো বসুন্ধরা কিংস

  • নেইমারকে না নেয়া পর্যন্ত বার্সায় চুক্তি করবেন না মেসি

  • কুষ্টিয়ায় পুলিশের সাথে 'গোলাগুলিতে' মাদক ব্যবসায়ী নিহত

  • ব্রিটিশ তেলবাহী ট্যাংকার ছেড়ে দিতে ইরানের প্রতি আহবান যুক্তরাজ্যের

  • ছেলেধরা সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা: ৫-৬শ জনের বিরুদ্ধে মামলা

  • সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবিতে মস্কোতে বিক্ষোভ

  • প্রিয়া সাহার বক্তব্যে ক্ষুব্ধ তার গ্রামের বাড়ির হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ

নিজেরাই হতাহতের তালিকা করছেন রোহিঙ্গারা

নিজেরাই হতাহতের তালিকা করছেন রোহিঙ্গারা

সাংবাদিক, আন্তর্জাতিক সংগঠন বা মানবাধিকার কর্মীদের ওপর নির্ভরশীল না থেকে এবার নিজেরাই হতাহতের তালিকা করছেন রোহিঙ্গারা।

আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হচ্ছে, কক্সবাজারের কুতুপালং শিবিরে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গারা এরইমধ্যে একটি প্রাথমিক তালিকাও তৈরি করেছেন, যেখানে দাবি করা হয়েছে, গত দুই বছরে মিয়ানমার সেনাদের হাতে প্রাণ হারিয়েছেন ১০ হাজারেরও বেশি মানুষ। মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে দেশটির সেনাদের হত্যাযজ্ঞের তদন্তে এ পর্যন্ত আওয়াজ তুলেছে জাতিসংঘ, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের বহু দেশ ও মানবাধিকার সংস্থা। এ নিয়ে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিলেও এখনও হতাহতের সুনির্দিষ্ট সংখ্যা পাওয়া যায়নি।

এবার হতাহতের পরিসংখ্যান তৈরিতে উদ্যোগী হয়েছেন রোহিঙ্গারাই। কমিটিতে আছেন কক্সবাজারের কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরে আশ্রয় নেয়া সাবেক শিক্ষক, ধর্মীয় নেতা ও মানবাধিকারকর্মীরা। প্রাথমিক তালিকাও তৈরি করেছেন। সবশেষ বেসরকারি সেবা সংস্থা মেডিসিন সান ফ্রন্টিয়ার্স নিহত রোহিঙ্গাদের তালিকা প্রকাশ করে। যাতে বলা হয়, ২০১৬ সালের অক্টোবর থেকে এ পর্যন্ত মিয়ানমারের সেনাদের হাতে ৬ হাজার ৭শর বেশি রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে।

যদিও ওই তালিকায় ভুক্তভোগীদের নাম-ঠিকানা ছিল না। তবে রোহিঙ্গাদের করা প্রাথমিক তালিকা বলছে, এই সময়ের মধ্যে নিহতের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়েছে। শুধু সংখ্যা নয় নতুন এই তালিকায় নিহতদের নাম, পরিচয়, ঠিকানা এবং কিভাবে নিহত হয়েছেন তার বিস্তারিত লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। এছাড়া ধর্ষণের শিকার নারী, গ্রেপ্তার ও আহত রোহিঙ্গাদের নাম-পরিচয়ও রয়েছে। আছে নির্যাতনকারী সেনাদের নেতৃত্বে থাকা ব্যাটেলিয়ন কমান্ডারের নামও।

মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলছে, মিয়ানমারের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের বিচারে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নথি হবে এই তালিকা। তবে নতুন এই তালিকা সম্পর্কে এখনও কোনো মন্তব্য করেনি মিয়ানমার। মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে গত বছরের আগস্টে শুরু হওয়া নৃশংসতার শিকার হয়ে দলে দলে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে রোহিঙ্গারা। এ যাত্রায় সাত লাখেরও বেশি মানুষ পালিয়ে আসে। এখানে আগে থেকে আছে আরও প্রায় ৫ লাখ বাস্তুচ্যুত মানুষ।

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর