channel 24

সর্বশেষ

  • অসাম্প্রদায়িক চেতনায় এগিয়ে যাচ্ছে দেশ: প্রধানমন্ত্রী

  • ১৫ থেকে ২০ দিনের মধ্যে তফসিল: সেতুমন্ত্রী

  • সরকার একদলীয় শাসনের প্রকল্প নিয়েছে: আমীর খসরু

  • জেএসসি পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসসহ সার্বিক বিষয়ে সরকার সতর্ক: শিক্ষামন্ত্রী

  • ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন গণমাধ্যম কর্মীদের জন্য বাধা হবে না: তথ্যমন্ত্রী

  • ইসি বাক প্রদানের স্বাধীনতা দেইনি বলে কমিশন সভা বর্জন করেছি: মাহবুব তালুকদার

  • ঢাবি'র 'ঘ' ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল স্থগিত

  • সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগি নিখোঁজের...

  • বিশ্বাসযোগ্য তদন্তের আহবান যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স ও জার্মানির

চূড়ান্ত হলো জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ক্ষয়ক্ষতির বিধিমালা

চূড়ান্ত হলো জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ক্ষয়ক্ষতির বিধিমালা

চূড়ান্ত হলো, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ক্ষয়ক্ষতির বিধিমালা। তবে ক্ষতিপূরণ নয়, ঝুঁকিতে থাকা গরীব মানুষের ওপর চাপিয়ে দেয়া হয়েছে, বীমার বোঝা। উদ্বোধন করা হয়েছে, এ সংক্রান্ত ইনস্যু-রেজিলিয়েন্স গ্লোবাল পার্টনারশিপ-আইজিপি। 

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায়, প্যারিস চুক্তির অন্যতম বিষয় লস অ্যান্ড ড্যামেজ। জলবায়ু পরিবর্তন জনিত ক্ষতিপূরণ ছিল এর মূল কথা। কিন্তু, ২৩ তম সম্মেলনে যে বিধিমালা চূড়ান্ত করা হয়েছে তাতে অর্থায়নের কোন দিক নির্দেশনা নেই। আছে শুধু বেসরকারি বীমা। উদ্বোধন করা হয়েছে, ইনসু-রেজিলিয়েন্স গ্লোবাল পার্টনারশিপ।

ফিজির প্রধানমন্ত্রী ফ্রাঙ্ক বাইনিমারামা বলেন, 'সমস্যা সমাধানে বাস্তবধর্মী বীমা ব্যবস্তায় অংশগ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে। জলবায়ু পরিবর্তনে ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর দৃঢ়তা বৃদ্ধি এবং উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখাকেও আমরা গুরুত্ব দিচ্ছি।'

উন্নত দেশের কোম্পানিগুলো বীমার আওতায় আনবে জলবায়ু ঝুঁকিতে থাকা দরিদ্র মানুষদের।

বিশ্বব্যাংকের টেকসই উন্নয়নের সহ-সভাপতি লরা টাক বলেন, 'রাষ্ট্রীয় অর্থনীতি জোরদার এবং মানবিক ত্রাণের উপর নির্ভরশীলতা কমাতে সাহায্য করবে ইনসু-রেজিলিয়েন্স।'

এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভিডিও বার্তায়, জলবায়ুজনিত ঝুঁকিতে থাকা মানুষের সক্ষমতা বাড়ানোর তাগিদ দেন জাতিসংঘ মহাসচিব।

জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেন, 'দুর্যোগকালীন ক্ষয়ক্ষতি রোধে আমাদের প্রতিরোধমূলক পদক্ষেপ নিতে হবে। এটা ২০১৯ সালের জলবায়ু সম্মেলনের গুরুত্বপূর্ণ অংশ। ইনসু-রেজিলিয়েন্সে জার্মানি ও অন্যান্য দেশের বিনিয়োগকে সাধুবাদ জানাচ্ছে জাতিসংঘ।'

তবে জলবায়ু ইস্যুতে বীমাকে ভাল চোখে দেখছেন না পর্যবেক্ষকরা।

অ্যাকশনএইড ইন্টারন্যাশনালের গ্লোবাল লিড অন ক্লাইমেট চেইঞ্জ হারজিৎ সিং বলেন, 'বীমাকে অন্যতম সমাধান হিসেবে মনে করে উন্নত দেশগুলো। কিন্তু সবার জন্য সব পরিস্থিতিতে ইন্স্যুরেন্স কাজ করে না। যেমন, বাংলাদেশের সমুদ্রা উচ্চতা বৃদ্ধির ক্ষেত্রে বীমা ব্যবস্থা কাজ করবে না তা শত ভাগ নিশ্চিত।'

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর