channel 24

সর্বশেষ

  • ক্রিকেটারদের আন্দোলন অপ্রত্যাশিত: নাজমুল হাসান...

  • ক্রিকেটাররা যখন যা চেয়েছে, সবকিছুই দিয়েছে বিসিবি...

  • ক্রিকেটারদের চাহিদামতোই ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ চলবে...

  • এমন সিদ্ধান্ত আগেই নেয়া হয়েছে...

  • চুক্তিভিত্তিক ক্রিকেটারের সংখ্যা বাংলাদেশেই সর্বোচ্চ

  • মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে আজ থেকে টেলিফোনের নতুন ও...

  • পুনঃসংযোগ ফি সম্পূর্ণ মওকুফ: টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

  • সীমানা পেরিয়ে বরগুনায় ভারতীয় জেলেদের ইলিশ শিকার; আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারি বাড়ানোর দাবি স্থানীয়দের।

  • সড়ক দুর্ঘটনা ঠেকাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পুলিশের উদ্যোগ; বেপরোয়া গতি ও মাদকাসক্ত চালক ধরা পড়বে সহজেই।

  • শরীয়তপুর-চাঁদপুর আঞ্চলিক সড়ক যেন মরণফাঁদ; চরম ভোগান্তিতে যাত্রীরা

  • ফের আলোচনায় ডাকসু জিএস রাব্বানী; এমফিলে ভর্তির বিষয়টি জানতো না সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ

আওয়ামী লীগের অপরাজনীতির সর্বশেষ বলি আবরার: ড. কামাল

আওয়ামী লীগের অপরাজনীতির সর্বশেষ বলি আবরার: ড. কামাল

আওয়ামী লীগ সরকারের অপরাজনীতির সর্বশেষ বলি হয়েছেন বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ। বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) সকালে প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন গণফোরাম নেতা ড. কামাল হোসেন।

তিনি বলেন, সামগ্রিক অস্থিরতা ও মূল্যবোধের অবক্ষয়, রাষ্ট্রের প্রতিটি অঙ্গে-প্রতিষ্ঠানে ছড়িয়ে পড়েছে। ছাত্র রাজনীতি লেজুড়বৃত্তি হওয়ার পরিণাম সারাদেশ ভুগছে।

কামাল হোসেন বলেন, আমি সেই তদন্ত চাচ্ছি, যেখানে বিচার বিভাগের লোক থাকবেন। এর পাশাপাশি গভীরে যেয়ে যাদের তথ্য উদঘাটনের অভিজ্ঞতা আছে, তাদের রাখতে হবে। এখানে আমি গতানুগতিক তদন্ত কমিটির দাবি করছি না। সত্যিকার অর্থে গুরুতর রোগের গোড়াতে কী আছে, সেটা উদঘাটন আমরাও চাইবো, দেশের মানুষও চাইবে। সেটা দ্রুত হোক।

ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করা উচিত কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল হোসেন বলেন, এই বিষয়টি আমাদের দলের ভেতর আলোচনা করতে হবে। লেজুড়বৃত্তি সংগঠন আমরা কোনোদিন চাইনি, এটা আমরা আগাগোড়া থেকে সবসময় বলে আসছি। ছাত্র রাজনীতি লেজুড়বৃত্তি হয়ে গেলে সেটা অন্য কিছু হয়ে যায়। তার পরিণতি আজকে সারাদেশকে ভুগতে হচ্ছে।

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে ড. কামাল হোসেন বলেন, দলের মধ্যে যারা রুগ্‌ণ, তারাই এধরনের কাজ করতে পারে। আমি এমনটা কল্পনা করতে পারিনি। একটি ছেলে মত প্রকাশ করেছে, তাকে এভাবে পিটিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা—এটা আমাদের দেশে হাজার বছরের সভ্যতার ওপর, স্বাধীনতার ওপর আক্রমণ। সংবিধানে পরিষ্কার বলা আছে—আমাদের মত প্রকাশের স্বাধীনতা আছে। মতের অমিল হলে পিটিয়ে মারতে হবে, এটা সংবিধানবিরোধী, দেশবিরোধী, রাষ্ট্রদ্রোহিতা।

তিনি বলেন, আমরা অবশ্যই তদন্তের দাবি জানাচ্ছি। কারণ, তদন্ত ছাড়া তো রহস্য উদঘাটন হয় না। কিন্তু তদন্ত মানে তদন্ত! নামকাওয়াস্তে তদন্ত না। সমাজে যেভাবে আক্রমণ করে পেটানো হচ্ছে, ভিন্ন মত দিলে পেটানো—এটা গণতন্ত্র হতে পারে না, গণতন্ত্রের ষোলআনা পরিপন্থী। আপনারা সময় নিন, ঝুঁকি নিন, সত্যিকার অর্থে তদন্ত করুন। কারণ, এই দেশকে বাঁচাতে হবে। স্বাধীনতার ৫০ বছর হতে যাচ্ছে, এই মুহূর্তে পরাধীন যুগের ঘটনা ঘটবে, এটা আমরা কোনোভাবে মেনে নিতে পারি না। দলমত নির্বিশেষে ঐকমত্য হতে হবে, সন্ত্রাস বন্ধ করতে হবে।

আবরার হত্যায় জড়িতদের ‘জানোয়ার’ উল্লেখ করে কামাল হোসেন বলেন, যারা ঘটিয়েছে, এরকম তো জানোয়ারও করে না। আমি কোনও জন্তু চিনি না, যারা মানুষকে এভাবে পিটিয়ে পিটিয়ে হত্যা করে। আমরা এদেশের ছেলেদেরকে পশুতে পরিণত করছি, এটা ভয়াবহ একটা অবস্থা। এ থেকে সমাজ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও দেশকে মুক্ত করতে হবে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর