channel 24

সর্বশেষ

  • ক্রিকেটারদের আন্দোলন অপ্রত্যাশিত: নাজমুল হাসান...

  • ক্রিকেটাররা যখন যা চেয়েছে, সবকিছুই দিয়েছে বিসিবি...

  • ক্রিকেটারদের চাহিদামতোই ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ চলবে...

  • এমন সিদ্ধান্ত আগেই নেয়া হয়েছে...

  • চুক্তিভিত্তিক ক্রিকেটারের সংখ্যা বাংলাদেশেই সর্বোচ্চ

  • মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে আজ থেকে টেলিফোনের নতুন ও...

  • পুনঃসংযোগ ফি সম্পূর্ণ মওকুফ: টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

  • সীমানা পেরিয়ে বরগুনায় ভারতীয় জেলেদের ইলিশ শিকার; আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারি বাড়ানোর দাবি স্থানীয়দের।

  • সড়ক দুর্ঘটনা ঠেকাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পুলিশের উদ্যোগ; বেপরোয়া গতি ও মাদকাসক্ত চালক ধরা পড়বে সহজেই।

  • শরীয়তপুর-চাঁদপুর আঞ্চলিক সড়ক যেন মরণফাঁদ; চরম ভোগান্তিতে যাত্রীরা

  • ফের আলোচনায় ডাকসু জিএস রাব্বানী; এমফিলে ভর্তির বিষয়টি জানতো না সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ

ভিসি দেখা না করলে বুয়েটের সব ভবনে তালা লাগানো হবে

ভিসি দেখা না করলে বুয়েটের সব ভবনে তালা লাগানো হবে

শিক্ষার্থীদের সাথে বসতে উপাচার্যকে আগামীকাল দুপুর পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছেন বুয়েটের আন্দোলনকারীরা। নইলে, সব ভবনে তালা মারার হুমকি তাদের। এ সময় বুয়েটে সাংগঠনিক ছাত্ররাজনীতি বন্ধসহ ১০ দফা দাবি পেশ করা হয়।

সহপাঠী হত্যার প্রতিবাদে সোচ্চার ভবিষ্যৎ প্রকৌশলীরা। বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়-বুয়েটের শহীদ মিনারে আন্দোলনে উত্তাল শিক্ষার্থীরা। আবারও দাবি জানান, বুয়েটে সাংগঠনিক ছাত্ররাজনীতি বন্ধের।

আল্টিমেটাম দেন, শুক্রবার দুপুর ২টার মধ্যে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে উপাচার্য না বসলে বুয়েটের সব ভবনে তালা লাগানোর।

এই ঘটনায় উপাচার্যের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে, তার পদত্যাগ দাবি করেছে বুয়েট শিক্ষক সমিতি।

এই হত্যার অভিযোগের তীর যেই ছাত্র সংগঠনের দিকে, সেই ছাত্রলীগই জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তি চেয়ে মৌন মিছিল করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। ভারপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে মিছিলটি ক্যাম্পাস ঘুরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ ডাকসুর ভিপির নেতৃত্বে গণপদযাত্রা করে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।

রাজু ভাস্কর্য থেকে শুরু করে নীলক্ষেত-কাঁটাবন, শাহবাগ হয়ে মৎস্যভবন, হাইকোর্ট, দোয়েলচত্বর ঘুরে টিএসসিতে এসে শেষ হয়, এই পদযাত্রা। ভিপি বলেন, ছাত্র রাজনীতি নয়; ক্যাম্পাস থেকে ক্ষমতাসীনদের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড নিষিদ্ধ করতে হবে।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক আলোচনায় অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, আবরার হত্যা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে রাজনৈতিকভাবে উপাচার্য নিয়োগেরই কুফল।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে এক অনুষ্ঠানে অতীতের র‍্যাগিং নিয়ে নমনীয় থাকায় বুয়েট প্রশাসনের সমালোচনা করেন শিক্ষামন্ত্রী। 

হত্যাকারীদের বিচার দাবিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়েও মানববন্ধন করেছে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। কর্মসূচি পালিত হয়েছে, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়েও।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা যে ১০ দফা দাবির কথা বলে আসছেন সেগুলো হলো-

১. আবরার ফাহাদের খুনিদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। সিসিটিভি ফুটেজ ও জিজ্ঞাসাবাদে প্রাপ্ত তথ্যানুসারে খুনিদের প্রত্যেকের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

২. বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে সিসিটিভি ফুটেজ থেকে শনাক্তকৃত সবাইকে ১১ অক্টোবর বিকেল ৫টার মধ্যে আজীবন বহিষ্কার নিশ্চিত করতে হবে।

৩. মামলা চলাকালে সব খরচ এবং আবরারের পরিবারের সব ক্ষতিপূরণ বুয়েট প্রশাসনকে বহন করতে হবে। এ মর্মে অফিশিয়াল নোটিশ ১১ তারিখ বিকেল ৫টার মধ্যে দিতে হবে।

৪. দায়েরকৃত মামলা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের অধীনে স্বল্পতম সময়ে নিষ্পত্তি করার জন্য বুয়েট প্রশাসনকে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে হবে। বুয়েট প্রশাসনকে সক্রিয় থেকে সমস্ত প্রক্রিয়া নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করতে হবে এবং নিয়মিত ছাত্রদের আপডেট করতে হবে।

৫. অবিলম্বে চার্জশিটের কপিসহ অফিশিয়াল নোটিশ দিতে হবে।

৬. বুয়েটে সাংগঠনিক ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে হবে। রাজনৈতিক সংগঠনের ব্যানারে দীর্ঘদিন ধরে বুয়েটের হলে হলে ত্রাসের রাজনীতি কায়েম করে রাখা হয়েছে। জুনিয়র ব্যাচকে সব সময় ভয়ভীতি দেখিয়ে জোর করে রাজনৈতিক মিছিল মিটিংয়ে যুক্ত করা হয়েছে। রাজনৈতিক ক্ষমতার অপব্যবহার করে যে কোনো সময় যে কোনো হল থেকে সাধারণ ছাত্রদের বিতাড়িত করা হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে রাজনৈতিক ক্ষমতার অপব্যবহার করে হলে হলে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করা হয়েছে। রাজনৈতিক সংগঠনের এহেন কর্মকাণ্ডে সাধারণ ছাত্রছাত্রীরা ক্ষুব্ধ। তাই আগামী সাত দিনের (১৫ অক্টোবর) মধ্যে বুয়েটে সব রাজনৈতিক সংগঠন এবং এগুলোর কার্যক্রম স্থায়ীভাবে নিষিদ্ধ করতে হবে।

৭. বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি কেন ৩০ ঘণ্টা অতিবাহিত হওয়ার পরও ঘটনাস্থলে উপস্থিত হননি। তিনি ৩৮ ঘণ্টা পরে উপস্থিত হয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বিরূপ আচরণ করেন এবং কোনা প্রশ্নের উত্তর না দিয়ে স্থান ত্যাগ করেন। তাকে সশরীরে ক্যাম্পাসে এসে বুধবার (০৯/১০/১৯) দুপুর ২টার মধ্যে জবাবদিহি করতে হবে।

৮. আবাসিক হলগুলোতে র‌্যাগ এবং ভিন্ন মতাবলম্বীদের ওপর সব ধরনের শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন বন্ধ করতে হবে এবং এ ধরনের সন্ত্রাসে জড়িত সবার ছাত্রত্ব প্রশাসনকে বাতিল করতে হবে। একই সঙ্গে আহসানউল্লা হল এবং সোহরাওয়ার্দী হলের পূর্বের ঘটনাগুলোতে জড়িত সবার ছাত্রত্ব বাতিল করতে হবে ১১ অক্টোবর বিকেল ৫টার মধ্যে।

৯. আগে ঘটা এ ধরনের ঘটনা প্রকাশ এবং পরে ঘটা যে কোনো ঘটনা প্রকাশের জন্য একটা কমন প্লাটফর্ম (কোনো সাইট বা ফর্ম) থাকতে হবে এবং নিয়মিত প্রকাশিত ঘটনা রিভিউ করে দ্রুততম সময়ে বিচারের ব্যবস্থা করতে হবে। এ প্ল্যাটফর্ম হিসেবে বুয়েটের বিআইআইএস অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করতে হবে এবং ১১ অক্টোবর বিকেল ৫টার মধ্যে অগ্রগতি দৃশ্যমান হতে হবে ও পরবর্তী এক মাসের মধ্যে কার্যক্রম পূর্ণরূপে শুরু করতে হবে। নিরাপত্তার স্বার্থে সবগুলো হলের প্রত্যেক ফ্লোরের সবগুলা উইংয়ের দুইপাশে সিসিটিভি ক্যামেরার ব্যবস্থা করতে হবে।

১০. রাজনৈতিক ক্ষমতা ব্যবহার করে আবাসিক হল থেকে ছাত্র উৎপাতের ব্যাপারে ছাত্রদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হওয়ায় শেরে বাংলা হলের প্রভোস্টকে ১১ অক্টোবর বিকেল ৫টার মধ্যে প্রত্যাহার করতে হবে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর