channel 24

সর্বশেষ

  • বাণিজ্যিক বিবেচনায় চীনা প্রেসিডেন্টের ভারত সফর বেশ সফল: বেইজিং

  • ভারতে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে বাড়ি ধসে ১০ জনের প্রাণহানি

  • রেমিটেন্সের বিপরীতে প্রণোদনার টাকা ছাড় দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক

  • তৃতীয় বছরে দৈনিক বিজনেস বাংলাদেশ

  • শান্তিপূর্ণ পরিবেশেই অনুষ্ঠিত হচ্ছে বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষা

  • আট উপজেলা ও দুই পৌরসভা নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে

  • যশোরের যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত ৫ আসামিকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

  • আবরার হত্যা: আসামি অমিত সাহাকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার

  • জম্মু-কাশ্মীরে ৭২ দিন পর সচল করা হলো পোস্টপেইড মোবাইল সার্ভিস

  • কুড়িগ্রামের রেল স্টেশন ভবনের বেহাল দশা

  • লোভ আর চাপে ক্যাম্পাসে রাজনীতিতে জড়াচ্ছে মেধাবীরা

  • আবরার হত্যার সুষ্ঠু বিচার চায় সিপিবির নারী সেল

  • তীব্র স্রোত ও নাব্য সংকটে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ

  • থানার ভেতরেই ওসির যোগদানের বর্ষপূর্তি আয়োজন!

  • মালয়েশিয়ায় ১৭৭ বাংলাদেশি অবৈধ অভিবাসী আটক

খালেদা জিয়া নিজেই চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে চান: এমপি হারুন

খালেদা জিয়া নিজেই চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে চান: এমপি হারুন

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া নিজেই চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে চান। এই চাওয়া তাকে মাইনাসের রাজনীতি নয়। সরকারের সাথেও কোনো সমঝোতা নয় বলে দাবি করেছেন, বিএনপির সংসদ সদস্য হারুন অর রশীদ। তবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়টি আদালতের।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট এবং জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারী থেকে কারাগারে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। সবশেষ পয়লা এপ্রিল চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে আনা হয় তাকে। সেই থেকে হাসপাতালেই আছেন তিনি।

দেড় বছরে আইনি প্রক্রিয়ায় অনেক চেষ্টা করেও জামিন নিতে ব্যর্থ হয়েছেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। হঠাৎ মঙ্গলবার অসুস্থ খালেদা জিয়াকে দেখতে যান বিএনপির তিন সংসদ সদস্য। তখন থেকে আবারো আলোচনায় খালেদা জিয়ার জামিন ও চিকিৎসা ইস্যু।

বিএনপির সংসদ সদস্য ও দলের যুগ্ম মহাসচিব হারুনুর রশীদ বুধবার সচিবালয়ে দেখা করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সাথে। পরে তিনি জানান, খালেদা জিয়া অত্যন্ত অসুস্থ। জামিন হলে চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে চান তিনি।

বিএনপির সংসদ সদস্য হারুন অর রশীদ বলেন, 'খালেদা জিয়া সাবেক তিনবারের প্রধানমন্ত্রী। যিনি আজ অত্যন্ত অসুস্থ, সে অবস্থায় এই বিষয়টি নিয়ে প্যারোলে আসারতো কোনো প্রয়োজন নাই। প্যারোলের প্রসঙ্গ আসাটা যুক্তিসংগত বিষয়ও না। উনি জামিন পাওয়ার একেবারে যৌক্তিক অধিকার রাখেন। আমি কালকে তার (খালেদা জিয়া) শারীরিক অবস্থা দেখেছি, এ অবস্থায় সর্বপ্রথম প্রয়োজন হচ্ছে উন্নত চিকিৎসা। সুতরাং এই উন্নত চিকিৎসা দেশের অভ্যন্তরে হউক বা দেশের বাইরে হউক।'

তিনি আরও বলেন, 'ওনার যে শারীরিক অবস্থা, গতকালকে আমি যে বিবৃতি দিয়েছি, একেবারে সত্য। এর মধ্যে কোন রাজনীতি নেই। আমি দলের প্রতিনিধি হিসেবে কালকে যে বিষয়টা বলেছি, তার শারীরিক অবস্থার যে বর্ণনা দিয়েছি সম্পুর্ণ সঠিক। এ অবস্থায় তার (খালেদা জিয়া) উন্নত চিকিৎসা দরকার।'

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে বিএনপি নেতা ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, রাজনৈতিক কারণে জামিন মিলছেনা বেগম জিয়ার। খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে গণতন্ত্রকে মুক্তি করা যাবে না।

তবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, খালেদা জিয়ার জামিন আদালতের বিষয়। জামিনের পর চিকিৎসকরা তাকে বিদেশে নেয়ার কথা বললে, বিষয়টি তখন ভাবা যাবে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর