channel 24

সর্বশেষ

  • দুর্নীতি ছোট হোক বা বড়, কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না: সুজন

  • জন্মাষ্টমী পালনে সমাবেশ, শোভাযাত্রা বা মিছিল করা যাবে না

  • বঙ্গমাতার সাহসিকতা ও অনুপ্রেরণাতেই ৬ দফা সফল হয়েছিল: কাদের

  • কাশিমপুর কারগারে উধাও কয়েদির খোঁজ মেলেনি এখনও

  • ওয়াশিংটনের সঙ্গে বাণিজ্যদ্বন্দ্বের বলি চীনা প্রতিষ্ঠান টিকটক

  • করোনাকালেও দিন-রাত কাজ চলছে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে

  • বিশ্বজুড়ে করোনায় প্রাণহানি ৭ লাখ ১৯ হাজার

  • ঈদ উৎসবে অর্থনীতিতে প্রাণ ফেরার আভাস

  • রিয়ালকে হারিয়ে শেষ আটে ম্যান সিটি

  • কোটি টাকার সেতু আছে, নেই সংযোগ সড়ক

  • টাঙ্গাইলে বন্যায় সাড়ে দশ হাজার হেক্টর জমির ফসল নষ্ট

  • উন্নতি-অবনতির দোলাচলে বন্দি বানভাসি মানুষের জীবন

  • সিনহা রাশেদ হত্যা মামলায় পলাতক দুই আসামির হদিস নেই

  • চুয়াডাঙ্গায় বাসের ধাক্কায় ইঞ্জিন চালিত ভ্যানের ৬ যাত্রী নিহত

  • বঙ্গমাতার ৯০ তম জন্মবার্ষিকী আজ

পরিবহনখাতে প্রতিদিন এক কোটি ৬৫ লাখ টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগ

পরিবহনখাতে প্রতিদিন এক কোটি ৬৫ লাখ টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগ

দেশের পরিবহনখাত এক ব্যক্তির কব্জায় জিম্মি। নানা নামে তিনি প্রতিদিন এ খাত থেকে ১ কোটি ৬৫ লাখ টাকা চাঁদা আদায় করেন। যার বেশি ভাগই যায় তার পকেটে। সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেছে, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক ঐক্য লীগ। তবে পরিবহনখাতে চাঁদাবাজি করে কেউ পার পাবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

পরিবহন খাতের যতো নৈরাজ্য তার পেছনে অন্যতম কারণ চাঁদাবাজি। গণমাধ্যমে হরহামেশাই প্রকাশ হওয়া এমন প্রতিবেদন আর চালকদের প্রতিদিনের অভিজ্ঞতা তা মেনে নিয়েই চলছে দেশের যানবাহন।

তা বন্ধের দাবিতেই বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক ঐক্য লীগ জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করে।

সংগঠনটির নেতারা অভিযোগ করেন, দেশের পরিবহন খাত বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির এক নেতার কাছে জিম্মি। নানা সমিতির নামে দৈনিক আদায় করা হয় ১ কোটি ৬৫ লাখ টাকা। যার সিংহভাগই যায় তার পকেটে।

পরিবহন মালিক শ্রমিক ঐক্যলীগের সদস্য সচিব মো. ইসমাইল হোসেন বাচ্চু বলেন, চল্লিশ টাকার চাঁদাকে আজ ১২শ' থেকে ২ হাজার টাকা পর্যন্ত দৈনিক গাড়ি প্রতি নিচ্ছে। কোন মালিক ব্যবসা করতে পারছে না। কোন মালিক কথা বললে তার গাড়িতে চিনি-বালু দেয়া হয়। কোন শ্রমিক কথা বললে তাকে গাড়িতে চাকরী দেয়া হয় না। যিনি এসব করেন, তার নাম খন্দকার এনায়েত উল্যাহ। আমরা পরিবহনে চাঁদা বন্ধের দাবি জানাচ্ছি। এই হাজার হাজার কোটি টাকা কোথায় নিয়েছে এটার হিসাব আমরা চাচ্ছি।

খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব। ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতিরও সাধারণ সম্পাদক। অভিযোগের বিষয়ে তার বক্তব্য জানতে চেষ্টা হয় যোগাযোগের তবে দেশের বাইরে থাকায় কোনো বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

এ নিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, এমন অভিযোগ তাদের কাছেও এসেছে। বিষয়টি তদন্ত হচ্ছে। অপকর্ম যেই করবে, চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি যেই করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জাতীয় প্রেসক্লাবে অপর এক সংবাদ সম্মেলন 'নিরাপদ সড়ক চাই' এর চেয়ারম্যান বলেন, এক বছরেও সড়ক পরিবহন আইন বাস্তবায়ন না হওয়া উদ্বেগের।

তিনি বলেন, আইন বাস্তবায়নের উদ্যোগ না নিয়ে সংশোধনের যে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে তাতে জনসাধারণের মনে তৈরি হয়েছে শঙ্কা।

নিউজটির প্রতিবেদন ভিডিওতে-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর