channel 24

সর্বশেষ

  • ৮ বছর পেরিয়ে নয়ে পা রাখলো চ্যানেল টোয়েন্টিফোর

  • করোনায় মারা গেলেন আ.লীগের সাবেক এমপি হাজী মকবুল

  • অনির্দিষ্টকাল মানুষের আয়ের পথ বন্ধ রাখা সম্ভব নয় জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী

  • ঈদুল ফিতর উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে শেখ হাসিনার ভাষণ

  • মহামারিতে কাল বিষাদের ঈদ

  • শারীরিক দূরত্ব মেনে বায়তুল মোকাররমে ৫টি জামাত

  • হালদা নদীতে আরও একটি ডলফিন মারা পড়লো

  • ৮ জুন থেকে লা লিগা ফিরতে বাধা নেই

  • স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ উদযাপনের আহ্বান কাদেরের

  • পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার তৌফিক উমর করোনায় আক্রান্ত

  • জয়পুরহাটে অসহায়দের পাশে দাঁড়িয়েছে 'করোনা যুদ্ধে আমরা' সংগঠন

  • করোনায় ভেঙে পড়েছে ই-কমার্স খাত

  • ভিন্ন প্রেক্ষাপটে উদযাপিত হবে এবারের ঈদ

  • অনুমোদন না পেলেও মঙ্গলবার থেকে করোনা পরীক্ষা শুরু করবে গণস্বাস্থ্য

  • শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় বিপাকে কিন্ডারগার্টেনের শিক্ষকরা

এম মোর্শেদ খানের হংকংয়ের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দের নির্দেশ

এম মোর্শেদ খানের হংকংয়ের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দের নির্দেশ

সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম মোর্শেদ খানের হংকংয়ের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। সেই সাথে প্রায় ১৭ লাখ শেয়ারও বাজেয়াপ্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। হংকং স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড জানিয়েছে, বাংলাদেশের কোনো আদালতের আদেশ ছাড়া তারা অর্থ ও শেয়ার রাখতে পারবেন না। আদেশের কপি শিগগিরই হংকং আদালতে পৌঁছে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

এম মোর্শেদ খান। বিএনপি সরকারের সাবেক এই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ, হংকংয়ের স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকে প্রায় ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৬২ হাজার মার্কিন ডলার এবং ১ কোটি ৩৬ লাখ ৪৫ হাজার হংকং ডলার অর্থপাচার করেছেন।

কিন্তু এ ঘটনায় ২০১৩ সালে মামলা হলেও নানা আইনী মারপ্যাচে তদন্তই শেষ করা যায়নি। সবশেষ গত সেপ্টেম্বরে হংকং স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক জানায়, ১৫ অক্টোবরের মধ্যে মোর্শেদ খান ও তার ছেলে ফয়সাল মোর্শেদের ১৬ কোটি টাকা ও প্রায় ১৭ লাখ শেয়ার আর রাখা সম্ভব নয়।

এমন পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে রাষ্ট্রের অনুকুলে সম্পদ বাজেয়াপ্তের আবেদন করে অ্যাটর্নি জেনারেল ও দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক। শুনানি শেষে ওই অর্থ বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দেন আদালত।

রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা বলছেন, এ অর্থ আটকানো না হলে তুলে নিতেন মোরশেদ খান। এখন এ আদেশ হংকংয়ে পাঠানো হবে।

এর আগে, সিঙ্গাপুর থেকে দ্বিপাক্ষিক আইনি চুক্তির মাধ্যমে বেগম খালেদা জিয়ার ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর পাচার করা অর্থ এনেছিলো বাংলাদেশ সরকার।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর