channel 24

সর্বশেষ

  • একনেকে ১ লাখ ২৫ কোটি ২৩ লাখ টাকার ১০টি প্রকল্পের অনুমোদন...

  • প্রায় ৯৪ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে মেট্রোরেল লাইন ১ ও লাইন ৫ অনুমোদন

  • অস্ত্র ও মাদক মামলায় বহিষ্কৃত যুবলীগ নেতা সম্রাট ১০ দিনের রিমান্ডে...

  • সহযোগী আরমান মাদক মামলায় ৫ দিনের রিমান্ডে

  • আবরার হত্যায় সরকার বিব্রত কিন্তু গুটিকয়েক ছাত্রনেতার...

  • ভুলের দায় সরকার নেবে না: ওবায়দুল কাদের...

  • আসামি নাজমুস সাদাত দিনাজপুরের বিরামপুরে গ্রেপ্তার

  • এমবিবিএস ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ

  • নবম ওয়েজবোর্ডের গেজেট কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্টের রুল

  • সুনামগঞ্জে শিশু তুহিন হত্যা: বাবাসহ তিনজনের ৩ দিন করে রিমান্ড

  • অবৈধ সম্পদ অর্জন: সরকার দলীয় এমপি শামশুল হক চৌধুরী ও...

  • নুরুন্নবী চৌধুরী শাওনের বিরুদ্ধে দুদকের অনুসন্ধান শুরু

  • ফুটবল: বিশ্বকাপ বাছাই: ভারত-বাংলাদেশ (রাত ৮টা)

র‍্যাব সদস্যদের আবাসনের জন্য জমি অধিগ্রহণ; ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার শঙ্কায় ২৫০ পরিবার

র‍্যাব সদস্যদের আবাসনের জন্য জমি অধিগ্রহণ; ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার শঙ্কায় ২৫০ পরিবার

পাশেই বিপুল পরিমাণ সরকারি জমি। তারপরও ব্যক্তি মালিকানাধীন জায়গা অধিগ্রহণ করছে ঢাকা জেলা প্রশাসন। যেখানে র‍্যাব-৪ এর সদস্যদের জন্য নির্মাণ করা হবে, স্থায়ী বাসস্থান। স্থানীয়রা বলছেন, এর ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে কমপক্ষে আড়াইশ পরিবার। এ নিয়ে ক্ষোভ জানিয়েছেন সেখানকার মানুষ।

ঢাকা জেলা প্রশাসনের একজন ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে সাধারণ মানুষ নিজেদের জমি রক্ষার জন্য আকুতি জানিয়েছেন।

জেলা প্রশাসনের নোটিশের প্রেক্ষিতে জমির কাগজপত্র নিয়ে মঙ্গলবার রাজধানীর মিরপুরে সাগুফতা হাউজিংয়ে হাজির হয়েছিলেন তারা। যদিও মালিকদের কোন সিদ্ধান্ত না জানিয়েই জমি মাপার কাজ চালিয়ে যান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

এই জটিলতা র‍্যাব ৪ এর সদস্যদের জন্য স্থায়ী আবাসন নির্মাণে সাগুফতা হাউজিংয়ের সি ও ডি ব্লকে সাড়ে ৮ একর জমি অধিগ্রহণে সরকারের সিদ্ধান্ত নিয়ে। এলাকাবাসী জানান, হাউজিং প্রকল্পের পাশেই সরকারের ৬৮একর জমি রয়েছে। এতো জমি থাকার পরও তাদের জমি কেন অধিগ্রহণ করতে হবে এই প্রশ্ন তাদের।

এরইমধ্যে ওই এলাকায় একাধিক ভবন উঠেছে। অনেকে চিন্তা করছেন বাড়ি করবেন। যাদের বেশিভাগই সারাজীবনের সঞ্চয় থেকে একটুকরো জমির মালিক হয়েছেন।

যদিও এ নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে কোন কথা বলতে রাজি হননি উপস্থিত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

এ বিষয়ে র‍্যাবের গণমাধ্যম শাখার পরিচালক জানান, বিষয়টি এখনও প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। ফলে এখনই চূড়ান্ত কিছু বলা যাচ্ছে না।

সাগুফতা হাউজিংয়ের ঐ জমি এক থেকে দেড় দশক আগে প্লট আকারে বিক্রি করা হয়। যাদের বেশিভাগই কিস্তিতে কেনেন বেসরকারী আবাসন প্রকল্পের এই জমি।

নিউজটির বিস্তারিত প্রতিবেদন ভিডিওতে-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর