channel 24

সর্বশেষ

  • বৈরুত বিস্ফোরণ: পদত্যাগ করলো লেবানন সরকার

  • ট্রাম্প একই মিথ্যে বলেছেন ১৫০ বারের বেশি!

  • সীমিত পরিসরে চলবে খেলাধুলা, মানতে হবে দশ নির্দেশনা: ক্রীড়া মন্ত্রণালয়

  • ১০টি জলাশয় নিয়ন্ত্রণে নিয়ে রক্ষণাবেক্ষণ করা হবে: মেয়র তাপস

  • ৬ মাস দায়িত্ব পালনের সুযোগ পাচ্ছেন চট্টগ্রাম সিটির প্রশাসক

  • ভক্ত-অনুরাগীদের ভালোবাসায় সুরস্রষ্টা আলাউদ্দিন আলীকে শেষ বিদায়

  • বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড বন্ধের দাবি সিনহার মায়ের

  • আমি সিনহা নামে কাউকে চিনি না: ইলিয়াস কোবরা

  • অবশেষে ক্রিকেটে দলের শ্রীলঙ্কা সফর চূড়ান্ত

  • চাল আমদানির আগে পরিস্থিতি বিবেচনা করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

  • নিজেদের তৈরি খাদ্যে মাছের উৎপাদনে সফল ফরিদপুরের মৎস্য চাষিরা

  • বাদামের পুষ্টিগুণ

  • কৃষি সংকট মোকাবেলায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পারিবারিক সবজি বাগান

  • বরগুনায় ইউএনও'র মামলায় কারাগারে যুবলীগ নেতা

  • সিনহা হত্যা: আসামিদের রিমান্ডের সময়সীমা বাড়ানোর আবেদন

ভোটার তালিকায় রোহিঙ্গা: নির্বাচন কমিশনের কর্মী জড়িত; বড় চক্রের সন্ধান

ভোটার তালিকায় রোহিঙ্গা: নির্বাচন কমিশনের কর্মী জড়িত; বড় চক্রের সন্ধান

ভোটার তালিকায় রোহিঙ্গা অন্তর্ভুক্তি ঠেকাতে, অভিযান শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন। যাতে এক বিশাল চক্রের সন্ধান মিলেছে। নানা কৌশলে, মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে যারা ভোটার করছেন রোহিঙ্গাদের। এরই মধ্যে আটক করা হয়েছে, ঐ চক্রের কয়েকজনকে। জড়িত থাকার অভিযোগ মিলেছে, ইসির কয়েক কর্মীর বিরুদ্ধে। এ জন্য আরও কঠোর হওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে, নির্বাচন কমিশন।

ভোটার হালনাগাদ কার্যক্রমের শুরু থেকেই রোহিঙ্গাদের বিষয়ে বেশ কড়াকড়ি ছিলো নির্বাচন কমিশন।

যাচাই বাছাই শুরু হলেই একে একে বেরিয়ে আসতে থাকে থলের বিড়াল। ভোটার তালিকায় সন্ধান মেলে একের পর এক রোহিঙ্গার নাম। এ সংখ্যা দুই হাজারেরও বেশি। যা দেখে বিষ্মিত ইসি। এরপরই কক্সবাজার, টেকনাফ ও চট্টগ্রাম অঞ্চলে শুরু হয় ইসির বিশেষ অভিযান। রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে আটক করা হয় হাফেজ ওবায়দুল্লাহ নামে চক্রের এক সদস্যকে।

ইসির অভিযান পরিচালনাকারী দলের সদস্যরা চ্যানেল টুয়েন্টিফোরকে জানায়, ওবায়দুল্লাহর দেয়া তথ্যে বড় একটি চক্রের খোঁজ পায় কমিশন। সাথে রোহিঙ্গাদের ভোটার করা কক্সবাজার ও চট্টগ্রামের আশপাশের এলাকাও চিহ্নিত হয়েছে।

ইসির চোখ ফাঁকি দিতে এক্ষেত্রে কয়েকটি উপজেলার ইউজার নেইম পাসওয়ার্ড ব্যবহার করা হয়। বেশিরভাগ রোহিঙ্গা ভোটার বানাতে ব্যবহার হয় দুটি নির্দিষ্ট ল্যাপটপ ও একটি স্ক্যানার। এর সাথে মাঠ পর্যায়ের কিছু অপারেটর জড়িত থাকতে পারে বলেও মনে করছে কমিশন।

অভিযানে থাকা কর্মকর্তারা বলছেন, পাঁচ থেকে ছয় কোটি টাকারও বেশি লেনদেনের খোঁজ পেয়েছেন তারা। আটক করা হয়েছে বেশ কয়েকজনকে। এরই মধ্যে ওবায়দুল্লাহ, তার ভাই আব্দুল্লাহ, নুরুল মোহাম্মাদসহ ৬ শ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। চক্রটিকে পুরোপুরি আটক করা পর্যন্ত অভিযান অব্যহত রাখার ঘোষণা ইসির।

রোহিঙ্গাদের ভোটার করতে কোন জনপ্রতিনিধি যুক্ত থাকলে, তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থার হুঁশিয়ারি দিয়েছে কমিশন।

চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে আগামী বছরের জানুয়ারির শেষে।

নিউজটির বিস্তারিত প্রতিবেদন ভিডিওতে-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর