channel 24

সর্বশেষ

  • ছাত্রলীগের এমন ঘটনা বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য লজ্জার: ভিপি নুর

  • জঙ্গিবাদ-মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রাখার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে শোভন-রাব্বানীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: কাদের

  • ছাত্রলীগের ভাবমূর্তি নষ্ট হলে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায়...

  • পুনরুদ্ধারে কাজ করার অঙ্গীকার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের

  • আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের জন্য সতর্কবার্তা: শেখ সেলিম

  • ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী এমন সিদ্ধান্ত: ঢাবি উপাচার্য

  • পুলিশের সেবা নিতে গিয়ে কেউ যেন হয়রানি না হয়: ডিএমপি কমিশনার

  • রংপুর-৩ উপনির্বাচনে প্রার্থিতা নিয়ে আওয়ামী লীগের সাথে...

  • আলোচনা হয়েছে, কালকের মধ্যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত: রাঙ্গা

  • ৩ মাসের মধ্যে পুঁজিবাজারে নিবন্ধিত হতে হবে সব বিমা কোম্পানিকে...

  • অর্থমন্ত্রীর সাথে বৈঠক শেষে আইডিআরএ চেয়ারম্যান

  • ঋণ পুনঃতফসিলীকরণ নিয়ে টিআইবির বিবৃতিতে কোম্পানির ভাবমূর্তি...

  • ক্ষুণ্ন হওয়ায় প্রতিবাদ জানিয়েছে বেক্সিমকো গ্রুপ

কমরেড মোজাফফর আহমদ আর নেই

কমরেড মোজাফফর আহমদ আর নেই

উপমহাদেশের বাম রাজনীতির অন্যতম পুরোধা, ন্যাপ সভাপতি কমরেড মোজাফফর আহমদ আর নেই। আজ শুক্রবার (২৩ আগস্ট) সন্ধ্যা ৭টা ৫০ মিনিটে রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে মারা যান প্রবীণ এই রাজনীতিবিদ। দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনতি নানা রোগে ভুগছিলেন তিনি।

তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় গেলো ১৪ আগস্ট হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় অধ্যাপক মোজাফফর আহমদকে। এরপর থেকেই আইসিইউতে ছিলেন তিনি।

মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণের পাশাপাশি বিশ্ব জনমত গঠনেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন প্রবীণ এই রাজনীতিবিদ। ভাষা আন্দোলনেও রেখেছেন স্মরণীয় ভূমিকা।

বাম ও সাম্রাজ্যবাদবিরোধী রাজনীতির এই পুরোধা ব্যক্তিত্ব সাধারণ নির্বাচনে অংশ নেয়ার পাশাপাশি রাষ্ট্রপতি নির্বাচনেও অংশ নিয়েছেন। দীর্ঘ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা কলেজে শিক্ষকতা করেন। ১৯২২ সালে কুমিল্লার দেবীদ্বারে জন্ম নেন মোজাফফর আহমদ।

মুক্তিযুদ্ধকালে মোজাফফর আহমদ মুজিবনগর সরকারে এবং আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সম্মেলনের পাশাপাশি বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের সদস্য হিসেবে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে যোগ দিতে নিউইয়র্ক যান তিনি। মোজাফফর আহমদের সম্পাদনায় ‘নতুন বাংলা’ নামে একটি সাপ্তাহিক পত্রিকাও প্রকাশিত হয়েছিল মুজিবনগর থেকে।

১৯৫৮ সালে সামরিক শাসন জারি হলে মোজাফফর আহমদের নামে হুলিয়া জারি হয় এবং তিনি আত্মগোপনে চলে যান। এর আগেই তিনি নিষিদ্ধ ঘোষিত কমিউনিস্ট পার্টির সদস্য হন। ১৯৬৭ সালে ন্যাপ বিভক্ত হলে মস্কোপন্থী অংশের পূর্ব পাকিস্তান শাখার সভাপতির দায়িত্ব নিতে হয় তাকে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর