channel 24

সর্বশেষ

  • ৩০ মে'র পর বাড়ছে না সাধারণ ছুটি

  • এক্সিম ব্যাংকের এমডিকে হত্যাচেষ্টা, জানেনা কেন্দ্রীয় ব্যাংক

  • ঈদে থানায় প্রীতি ভোজ: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড়

  • ডলফিনের সবচেয়ে বড় বিচরণক্ষেত্র হালদা নদীই যেন এখন মৃত্যুকুপ

  • করোনায় দেশে আরও ২২ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৫৪১

  • শুরু থেকে লকডাউন দিলে পরিস্থিতি এতোটা ভয়োবহ হতো না: ফখরুল

  • তামিম ইকবালের সাথে একান্ত আলাপচারিতায় চ্যানেল ২৪

  • আম্পানে বাঁধ ভেঙ্গে ভেসে গেছে ৪ হাজারেরও বেশি চিংড়ি ঘের

  • মুন্সিগঞ্জে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মাইক্রোবাস খাদে পড়ে নিহত ৩

  • কৃষি বিজ্ঞানী ও কর্মকর্তাদের প্রণোদনার কথা ভাবছেন কৃষিমন্ত্রী

  • দিনাজপুরে বিষাক্ত মদপানে ৪ জনের মৃত্যু, অসুস্থ ১

  • ঝড়-বৃষ্টিতে রাজধানীর বেশ কিছু স্থানে গাছ উপড়ে পড়ে যান চলাচল বন্ধ

  • করোনায় থমকে গেছে কমিউনিটি সেন্টার ও কনভেনশন হলের ব্যবসা

  • করোনা মহামারীর নতুন কেন্দ্র: পেলে, রোনালদো, নেইমারদের দেশ ব্রাজিল

  • নিজের আইনজীবীর কাছে মামলার ভবিষ্যত জানতে চান খালেদা জিয়া

পূর্ব পরিকল্পিত নীতি না থাকায় চামড়া খাত ক্ষতিগ্রস্ত: ফখরুল

পূর্ব পরিকল্পিত নীতি না থাকায় চামড়া খাত ক্ষতিগ্রস্ত: ফখরুল

পূর্ব পরিকল্পিত নীতি না থাকায় চামড়া খাত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আজ বুধবার (১৪ আগস্ট) সকালে ঠাকুরগাঁওয়ে নিজ বাসায় এমন মন্তব্য করেছেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, সিন্ডিকেটের কারণে আজ দেশে চামড়ার বাজারে ধস নেমেছে। চামড়ার মূল্য না থাকায় কৃষক, ব্যবসায়ী ও দেশের চামড়া শিল্প ব্যপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। বিএনপির সময় চামড়া কেনার জন্য সরকার লোন দিতো। কিন্তু বর্তমান সরকারের তেমন কোনো পদক্ষেপ না থাকায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

মির্জা ফখরুল অভিযোগ করেন, রপ্তানির সিদ্ধান্তও দেরিতে নিয়েছে সরকার। তিনি বলেন, তথাকথিত মাথাপিছু আয় ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি দেখিয়ে সরকার দাবি করছে তারা উন্নয়নের রোল মডেল, বিরাট একটা উন্নয়ন করে ফেলেছে। কিন্তু তাদের সরকারি পরিসংখ্যান বিশ্লেষণ করে দেশের বড় বড় অর্থনীতিবীদরা দেখিয়েছেন, এসব আসলে আরেকটি গণপ্রতারণা।

আজ ব্যাংক সবচাইতে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত এ কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, মানুষ টাকা তুলতে গেলে টাকা পায় না। সরকার টাকা নিয়ে টাকা ব্যাংককে ফেরত দেয় না। আমানতকারীদের কাছ থেকে টাকা কেটে নেওয়া হচ্ছে। আবার অন্যদিকে সরকারি খরচ বাড়ানো হচ্ছে, যা আসছে জনগণের ট্যাক্স থেকে। আগে একটা পরিবার থেকে একটা ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদে একজন থাকতে পারতেন,এখন সেখানে একই পরিবারের চার জন থাকার নিয়ম করা হয়েছে। এভাবে আওয়ামী লীগের কিছু লোকজনের কাছে চলে যাচ্ছে জনগণের সব টাকা। আর এর মাধ্যমে দেশে অভ্যন্তরীণ বিনিয়োগ কমিয়ে বিদেশের বাজারে পরিণত করা হচ্ছে দেশকে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর