channel 24

সর্বশেষ

  • সীমান্তে আটক ভারতীয় জেলের বিরুদ্ধে বিজিবির মামলা

  • উত্তর চব্বিশ পরগনায় ৮ বাংলাদেশিকে আটক করেছে বিএসএফ

  • বিজিবি-বিএসএফ গোলাগুলির ঘটনা ভুল বোঝাবুঝি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • কথায় কথায় শুধু অভিযোগ-নালিশ করে বিএনপি: কাদের

  • দলের স্বার্থে ভারতকে সব দিয়ে এসেছে আ.লীগ: আমীর খসরু

  • অন্যকে ফাঁসাতে নিজের সন্তান হত্যার কড়া সমালোচনা প্রধানমন্ত্রীর

এখন থেকে কাউকে গ্রেপ্তারে সংবিধানের ৩২ অনুচ্ছেদ মানতে হবে

এখন থেকে কাউকে গ্রেপ্তারে সংবিধানের ৩২ অনুচ্ছেদ মানতে হবে

এখন থেকে কাউকে গ্রেপ্তার করতে হলে সংবিধানের ৩২ অনুচ্ছেদ মেনে চলতে হবে। আগাম জামিন নিয়ে এক রায়ে, এই আদেশ দিয়েছেন, প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ। ৩২ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, জীবন ও ব্যক্তি স্বাধীনতা হতে কাউকে বঞ্চিত করা যাবে না। সেইসাথে রায়ে বলা হয়, হত্যা ও ধর্ষণে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকলে কেউ জামিন পাবে না। এছাড়া কাউকে ৮ সপ্তাহের বেশি আগাম জামিন না দিতেও হাইকোর্টকে নির্দেশ দেয়া হয়।

যেকোনো মামলা হওয়ার সাথে সাথেই আগাম জামিনের জন্য হাইকোর্টে আসেন বেশিভাগ আসামি। তেমনি রাজধানীর হাতিরঝিল থানার নাশকতার মামলায় গত বছরের ৩ অক্টোবর পুলিশ রিপোর্ট না দেয়া পর্যন্ত মির্জা ফখরুলসহ বিএনপির শীর্ষ নেতাদের জামিন দেন হাইকোর্ট। সেই আদেশের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের আপিল এ বছর এপ্রিলে নিষ্পত্তি করে আপিল বিভাগ জানান তারা এর রায়ে কিছু পর্যবেক্ষণ তুলে ধরবেন।

বুধবার সেই রায় প্রকাশ করেন আপিল বিভাগ। রায়ে আগাম জামিনের ক্ষেত্রে  নতুন করে ১৬ টি নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। নতুন করে ব্যাখা এসেছে সংবিধানের ৩২ অনুচ্ছেদের। বলা হয়েছে এখন থেকে যে কাউকে গ্রেপ্তার করার ক্ষেত্রে ৩২ অনুচ্ছেদ মেনে চলতে হবে।

১৬টি নীতিমালার মূল হলো ৮ সপ্তাহের বেশি আগাম জামিন দিতে পারবেন না হাইকোর্ট। হত্যা ডাকাতি, ধর্ষণ এসব ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকলে কখনোই আগাম জামিন দেয়া যাবে না। সেইসাথে আগাম জামিনের অপব্যবহার করলে তা বাতিল চাইতে পারবে রাষ্ট্রপক্ষ।

১৬টি নীতিমালা:

১.হাইকোর্টকে এফ আই আর সূক্ষভাবে পর্যবেক্ষণ করতে হবে।

২. অভিযোগের গুরুত্ব বিবেচনা করতে হবে।

৩. আগাম জামিন দিলে পলাতক হওয়ার সম্ভাবনা আছে কি না।

৪. চরিত্র আচার আচরণ বিবেচনায় নিতে হবে।

৫. গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তি অপদস্থ সম্ভাবনা আছে কিনা তা দেখতে হবে।

৬. কেউ যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেটাও খেয়াল রাখতে হবে।

৭. আগামী জামিন ব্যতিক্রম ক্ষমতা এ ক্ষমতা ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে হবে।

৮. কোনো সাক্ষীকে ভয় ভীতি দেখাতে না পারে আগাম জামিনের ক্ষেত্রে এমন শর্ত জুড়ে দিতে হবে।

৯. জামিন দেয়ার ক্ষেত্রে অত্যন্ত সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

১০. হত্যা ও ধর্ষণে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকলে কেউ জামিন পাবে না।

১১.আমাদের আইনে এক সময় ৪৯৭ (ক) কিন্তু সেটা বাতিল হয়েছে।

১২. অনির্দিষ্টকালের জন্য আগাম জামিন দেয়া যাবে না। এটা তদন্ত ব্যাঘাত ঘটনায়।

১৩. আগাম জামিনের ক্ষেত্রে তদন্তের বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে। 
১৪. আগাম জামিনের পর তদন্ত কর্মকর্তাকে সহযোগিতা করতে হবে 
১৫. ৮ সপ্তাহের বেশি আগাম জামিন নয়। 

১৬. আগাম জামিনের অপব্যবহার করলেই তা বাতিল চাইতে পারবে রাষ্ট্রপক্ষ।

তবে এ রায় আপিল বিভাগ একরাশ হতাশা প্রকাশ করে রায়ে উল্লেখ করেছেন ২০ বছর আগে সরকারকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছিলো, যেন আগাম জামিনের বিষয়ে আইন করে আইন কমিশন। কিন্তু সে বিষয়ে কোন উদ্যোগই নেয়া হয়নি।

যে বিএনপি নেতাদের মামলা ঘিরে এমন নির্দেশনা দিলেন আপিল, তাদের আইনজীবী বলছেন। তারা আশা করছেন এই নীতিমালা যেন সবারক্ষত্রে সমানভাবে প্রযোজ্য হয়।

এ রায় নিম্ন আদালতে যাওয়ার ২ সপ্তাহের মধ্যে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে মির্জা ফখরুল, মির্জা আব্বাস, মওদুদ আহমদ, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী ও ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে।

নিউজটির ভিডিও...

Noormohammad commented 4 days ago
Yes,, thik ase.

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর