channel 24

সর্বশেষ

  • শুধু আ.লীগ নয়, সব দলেরই বঙ্গবন্ধুর ছবি ব্যবহার করা উচিত: সালমান এফ রহমান

  • সড়ক দুর্ঘটনায় ফরিদপুর সদরে ৮ ও তালমায় ২ জন নিহত

  • রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সরকারের ব্যর্থতা নেই: ওবায়দুল কাদের

  • ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেলে শিশুর মৃত্যু...

  • গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ১,১৭৯: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  • ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণের জন্য আমাকে সম্মাননা দেয়া হয়নি: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

  • শিশু আইন নিয়ে হাইকোর্টের নির্দেশনা এখন থেকে...

  • আইন হিসেবে কার্যকর হবে: বিচারপতি ইমান আলী

  • শিশুকে অপরাধী বলা যাবে না; আসামি বা সাক্ষী হলে...

  • ছবি ও পরিচিতি দেখানো যাবে না: বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ

  • জাহালম ইস্যু: দায় স্বীকার করে হাইকোর্টে সোনালী ব্যাংকের প্রতিবেদন...

  • জড়িত ৮ জনের বিরুদ্ধে নেয়া হয়েছে বিভাগীয় ব্যবস্থা

  • সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় কমরেড মোজাফফর আহমদের জানাজা শেষে...

  • রাষ্ট্রপতির পক্ষে সামরিক সচিব, প্রধানমন্ত্রী ও স্পিকারের শ্রদ্ধা

  • রংপুরে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর ছবি ভাঙচুরের অভিযোগে...

  • ছাত্রলীগ নেতা ফয়সালসহ গ্রেপ্তার ২; অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন

হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হচ্ছে আজ

হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হচ্ছে আজ

হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হচ্ছে আজ (বৃহস্পতিবার, ৮ আগস্ট)। সন্ধ্যার পর নিজ নিজ আবাস এবং মসজিদুল হারাম থেকে ইহরাম বেধে মক্কা থেকে প্রায় ৯ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে মিনার উদ্দেশে যাত্রা করবেন হাজিরা।

এরপরেই শুরু হবে মুসলমানের অন্যতম ফরজ ইবাদাত হজ। দীর্ঘ যানজট এড়াতে অনেকে হেঁটে যাবেন মিনায়। হজ পালনকারীদের জন্য মিনায় অবস্থান করা সুন্নত।

শুক্রবার (৯ আগস্ট) সারাদিন মিনায় অবস্থান করে সেদিন রাতে ও ভোরে আরাফাতের ময়দানের দিকে যাত্রা করবেন।

শনিবার (১০ আগস্ট) আরাফাতের ময়দানে অবস্থিত মসজিদে নামিরা থেকে হজের খুৎবা দেওয়া হবে। সেদিন তারা মাগরিব ও এশার নামাজ আদার করবেন। মুজদালিফায় খোলা আকাশের নিচে সারারাত অবস্থানের পর শয়তানের স্তম্ভে পাথর নিক্ষেপের করতে মিনায় যাবেন তারা। এরপর পশু কুরবানি দেবেন তারা।

এরপর ১০, ১১ ও ১২ জিলহজ বিভিন্ন আনুষ্ঠানিকতা শেষে বিদায়ী তাওয়াফের মাধ্যমে সমাপ্ত হবে হজের আনুষ্ঠানিকতা।

ইসলামের বিধান অনুযায়ী, ১০ জিলহজ মিনায় প্রত্যাবর্তনের পর হাজিদের পর্যায়ক্রমে চারটি কাজ সম্পন্ন করতে হয়। শয়তানের স্তম্ভে পাথর নিক্ষেপ, আল্লাহর উদ্দেশে পশু কোরবানি (অনেকেই মিনায় না পারলে মক্কায় ফিরে গিয়ে পশু কোরবানি দেন), মাথা ন্যাড়া করা এবং তাওয়াফে জিয়ারত। এরপর ১১ ও ১২ জিলহজ অবস্থান করে প্রতিদিন তিনটি শয়তানকে প্রতীকী পাথর নিক্ষেপ করবেন হাজিরা। সবশেষে কাবা শরিফকে বিদায়ী তাওয়াফের মধ্য দিয়ে শেষ হবে হজের আনুষ্ঠানিকতা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর