channel 24

সর্বশেষ

  • দুর্নীতি, টেন্ডারবাজ আর সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার অ্যাকশন শুরু: কাদের

  • জি কে শামীমকে থানায় হস্তান্তর; অস্ত্র, মাদক ও মানি লন্ডারিংয়ে মামলা...

  • অস্ত্র ও মাদক মামলায় ৭ দিন করে ১৪ দিনের রিমান্ড আবেদন

  • গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির পদত্যাগ দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়ে সহকারী প্রক্টর হুমায়ুন কবিরের পদত্যাগ

  • প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই দুর্নীতি ও অপকর্মের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে...

  • তথ্য প্রমাণ পেলে শুধু সম্রাট নয়, কেউ ছাড় পাবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • আ.লীগের তৃণমূল থেকে উচ্চ পর্যায় দুর্নীতিতে নিমজ্জিত: ফখরুল

  • অস্ত্র ও মাদক আইনে গ্রেপ্তার কলাবাগান ক্লাবের সভাপতি...

  • সফিকুল ইসলাম ফিরোজের ২০ দিনের রিমান্ড আবেদন

  • ভিসির পদত্যাগ দাবি: গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা...

  • আন্দোলন ঘিরে বহিরাগতদের হামলায় আহত অন্তত ২০ শিক্ষার্থী

  • চট্টগ্রামে জিয়াদ হত্যা মামলার আসামি রাসেল 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত

  • ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেলে নারীর মৃত্যু...

  • গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ৪০৮ জন: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হচ্ছে আজ

হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হচ্ছে আজ

হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হচ্ছে আজ (বৃহস্পতিবার, ৮ আগস্ট)। সন্ধ্যার পর নিজ নিজ আবাস এবং মসজিদুল হারাম থেকে ইহরাম বেধে মক্কা থেকে প্রায় ৯ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে মিনার উদ্দেশে যাত্রা করবেন হাজিরা।

এরপরেই শুরু হবে মুসলমানের অন্যতম ফরজ ইবাদাত হজ। দীর্ঘ যানজট এড়াতে অনেকে হেঁটে যাবেন মিনায়। হজ পালনকারীদের জন্য মিনায় অবস্থান করা সুন্নত।

শুক্রবার (৯ আগস্ট) সারাদিন মিনায় অবস্থান করে সেদিন রাতে ও ভোরে আরাফাতের ময়দানের দিকে যাত্রা করবেন।

শনিবার (১০ আগস্ট) আরাফাতের ময়দানে অবস্থিত মসজিদে নামিরা থেকে হজের খুৎবা দেওয়া হবে। সেদিন তারা মাগরিব ও এশার নামাজ আদার করবেন। মুজদালিফায় খোলা আকাশের নিচে সারারাত অবস্থানের পর শয়তানের স্তম্ভে পাথর নিক্ষেপের করতে মিনায় যাবেন তারা। এরপর পশু কুরবানি দেবেন তারা।

এরপর ১০, ১১ ও ১২ জিলহজ বিভিন্ন আনুষ্ঠানিকতা শেষে বিদায়ী তাওয়াফের মাধ্যমে সমাপ্ত হবে হজের আনুষ্ঠানিকতা।

ইসলামের বিধান অনুযায়ী, ১০ জিলহজ মিনায় প্রত্যাবর্তনের পর হাজিদের পর্যায়ক্রমে চারটি কাজ সম্পন্ন করতে হয়। শয়তানের স্তম্ভে পাথর নিক্ষেপ, আল্লাহর উদ্দেশে পশু কোরবানি (অনেকেই মিনায় না পারলে মক্কায় ফিরে গিয়ে পশু কোরবানি দেন), মাথা ন্যাড়া করা এবং তাওয়াফে জিয়ারত। এরপর ১১ ও ১২ জিলহজ অবস্থান করে প্রতিদিন তিনটি শয়তানকে প্রতীকী পাথর নিক্ষেপ করবেন হাজিরা। সবশেষে কাবা শরিফকে বিদায়ী তাওয়াফের মধ্য দিয়ে শেষ হবে হজের আনুষ্ঠানিকতা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর