channel 24

সর্বশেষ

  • জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনে যোগ দিতে...

  • কাল নিউইয়র্কের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

  • অবৈধ ক্যাসিনো: আটক যুবলীগ নেতা খালেদকে গুলশান থানায় হস্তান্তর

  • রাজধানীতে জুয়ার আসর বসতে দেয়া হবে না: ডিএমপি কমিশনার...

  • ক্যাসিনো মালিক প্রভাবশালী হলেও আইনের আওতায় আনা হবে...

  • মসজিদের শহরকে ক্যাসিনোর শহরে পরিণত করেছে সরকার: ড. মঈন

  • প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি দেয়ার অভিযোগে বিএনপি নেতা...

  • শামসুজ্জামান দুদুর বিরুদ্ধে মামলা; দ্রুত আটকের দাবি ছাত্রলীগের

  • কোনো প্রক্রিয়া ছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া...

  • ছাত্রলীগ নেতাদের ছাত্রত্ব বাতিলের দাবি ডাকসু ভিপির

  • পারিবারিক কলহ: নারায়ণগঞ্জে মা ও ২ শিশুকে ছুরিকাঘাতে হত্যা...

  • আহত আরও এক শিশুকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি

মহাসচিবের মনোনয়ন বাণিজ্য প্রশ্নে জাপাতে চাপা উত্তেজনা

মহাসচিবের মনোনয়ন বাণিজ্য প্রশ্নে জাপাতে চাপা উত্তেজনা

দলের মহাসচিবের মনোনয়ন বাণিজ্য প্রশ্নে চাপা উত্তেজনা চলছে জাতীয় পার্টিতে। সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য মাসুদা রশিদ চৌধুরীর প্রেসিডিয়াম পদ স্থগিত করার নেপথ্যে কী আছে, তা তদন্তের কথা জানিয়েছেন দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান। মাসুদা রশিদের ছেলের দাবি, মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গা ৩ কোটি টাকা নিয়েছেন বাকি আরও দুই কোটি সময় মতো না পাওয়ায় তার মায়ের সাথে ষড়যন্ত্র করছেন। তবে টাকা নেয়ার অভিযোগ নাকচ করেছেন মহাসচিব।

অধ্যাপক মাসুদা রশিদ চৌধুরী জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম ও প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। দায়িত্ব পালন করছেন জাতীয় মহিলা পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবেও। ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উচ্চতর ডিগ্রি নেয়া এই রাজনীতিক, শিক্ষকতা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও বুয়েটে। অংশ নিয়েছিলেন মুক্তিযুদ্ধেও। এছাড়া, সার্ক চেম্বার, বিশ্বব্যাংকসহ বিভিন্ন বিদেশী সংস্থার সাথেও যুক্ত তিনি।

সংরক্ষিত মহিলা আসনে এবার তাকে সংসদ সদস্য করেছে জাতীয় পার্টি। কিন্তু কয়েক মাস না যেতেই গেল ১৫ জুন তার সব ধরণের দলীয় পদ স্থগিত করে জাতীয় পার্টি। এর আগে তার নামে কারণদর্শানো নোটিশও দেয়া হয়।

তাহলে, হঠাৎ কী কারণে মাসুদা রশিদ চৌধুরীর ব্যাপারে এমন সিদ্ধান্ত?

পদ স্থগিত করার নেপথ্যে মশিউর রাঙ্গার মনোনয়ন বাণিজ্যের যে খবর গণমাধ্যমে এসেছে, তা নিয়ে কথা বলেননি মাসুদা রশিদ। তবে তার ছেলে সানজিদ চৌধুরীর দাবি, বিনে পয়সায় দল তার মাকে মনোনয়ন দিলেও ৫ কোটি টাকা চেয়েছিলেন মহাসচিব। সে মোতাবেক দিয়েছেন ৩ কোটি। বাকি ২ কোটি দিতে না পারায় তার মায়ের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।

কিন্তু টাকা নেয়ার অভিযোগ নাকোচ করেছেন মশিউর রহমান রাঙ্গা।  

এ ঘটনা তদন্তের ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জিএম কাদের।

দেখুন ভিডিওতে-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর