channel 24

সর্বশেষ

  • লাখো মোমবাতির আলোয় উজ্জ্বল নড়াইল

  • বসানো হলো পদ্মা সেতুর ২৫তম স্প্যান, দৃশ্যমান ৩৭৫০ মিটার

  • আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের ব্যানারে বীরশ্রেষ্ঠদের ছবি!

  • চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সর্বস্তরের মানুষের ঢল

  • অভিনব প্রতারনা!

  • টেকনাফে গোলাগুলিতে যুবক নিহত

  • চট্টগ্রামে ১৪ হাজার ইয়াবাসহ সেনা সদস্য আটক

  • কুষ্টিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় জাতীয় হ্যান্ডবল দলের গোলরক্ষক সোহান নিহত

  • জাতিধর্ম আর দলমত নির্বিশেষে সবাই এককাতারে

  • নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ: ভারতের কাছে হারলো অস্ট্রেলিয়া

  • যারা ইংরেজি উচ্চারণে বাংলা বলে, তাদের প্রতি করুণা হয়: প্রধানমন্ত্রী

  • ইরানে সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ চলছে, কট্টরপন্থীদের জয়ের সম্ভাবনা

  • শিশুদের খেলনা ও পোশাকে করোনাভাইরাসের প্রভাব

  • দেশের তরুণদের দক্ষতা বাড়াতে সহায়তা দিবে ইউএনডিপি

  • ছোট বড় সব ব্যবসায় করোনাভাইরাসের প্রভাব

স্বাধীনতার এতো বছর পরেও দুর্নীতি থেকে রেহাই পায়নি দেশ: হাইকোর্ট

স্বাধীনতার এতো বছর পরেও দুর্নীতি থেকে রেহাই পায়নি দেশ: হাইকোর্ট

সারাদেশে নিবন্ধিত ফিটনেসবিহীন গাড়ি, নিবন্ধন কিংবা নবায়ন হয়নি এমন চালকের বিষয়ে সঠিক তথ্য দিতে না পারায় বিআরটিএর প্রতি চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ২৩ জুলাইয়ের মধ্যে বিআরটিএকে সকল তথ্য জমা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সোমবার (২৪ জুন) সকালে হাইকোর্টের একটি দ্বৈত বেঞ্চ এ নির্দেশ দেন। সেইসাথে, এদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে তাও জানতে চেয়েছেন আদালত।

সোমবার (২৪ জুন) সকালে হাইকোর্টের তলবে হাজির হন বিআরটিএ পরিচালক। বিআরটিএর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে সারাদেশে  ৪ লাখ ৫৮ হাজার  ৩শ ৩৯টি ফিনটেনবিহীন যানবাহন রয়েছে। এরমধ্যে খোদ রাজধানীতেই ১ লাখ ৬৮ হাজার ৩শ ৮টি ফিটনেসবিহীন গাড়ি রয়েছে। কিন্তু তিনি ফিটনেসবিহীন গাড়ি ও লাইসেন্সহীন ড্রাইভারদের বিষয়ে সঠিক তথ্য দিতে পারেননি।

শুনানিতে আদালত বলেন, স্বাধীনতার এতো বছর পরেও দুর্নীতি থেকে রেহাই পায়নি দেশ। আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছি কি দেশের সড়কে বেহাল দশার জন্য। সিঙ্গাপুরের দিকে তাকান। আমাদের কাছাকাছি সময়ে স্বাধীনতা অর্জন করার পরও তারা কত উন্নতি করেছে। সিঙ্গাপুরে কি বাংলাদেশের মতো দুর্ঘটনা ঘটে? বাংলাদেশে কেন এত দুর্ঘটনা ঘটছে? আমেরিকায় কি এমন দুর্ঘটনা ঘটছে? ইংল্যান্ডে কি ঘটছে?

আমরা সোনার বাংলা গড়তে চাই। কিন্তু কোনো পরিবর্তন লক্ষ্য করছি না বলে ক্ষোভ প্রকাশ করে আদালত।

এরপর ২৩ জুলাই এ বিষয়ে শুনানির দিন ধার্য করেন আদালত। হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই দিন ঠিক করেন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর