channel 24

সর্বশেষ

  • মানবাধিকার কমিশনের নতুন চেয়ারম্যান নাছিমা বেগম

  • পুঁজিবাজারে ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগ সামর্থ্য বাড়াতে...

  • সাময়িক তারল্য সুবিধা দিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপন

  • খুলনা জিআরপি থানার সাবেক ওসি উছমান গনিসহ...

  • ৫ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে আদালতে গণধর্ষণ মামলা দায়েরের আবেদন

  • ক্যাসিনো অবৈধ, কাউকে বেআইনি ব্যবসা করতে দেয়া হবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • অনিয়ম, দুর্নীতি রোধে ব্যর্থতায় সরকারের পদত্যাগ করা উচিত: ফখরুল

  • নাব্যতা সংকটে বন্ধ শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি চলাচল

  • টেকনাফে পুলিশের সাথে কথিত বন্দুকযুদ্ধে রোহিঙ্গা দম্পতি নিহত

  • উগান্ডায় প্রশিক্ষণ নিতে যাওয়া কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অনেকেই প্রকল্প সংশ্লিষ্ট নন; অনিয়মে বারবারই অভিযুক্ত চট্টগ্রাম ওয়াসা।

  • দখল-দূষণে অস্তিত্ব সংকটে বেশিরভাগ নদী; দখলদারদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশ ও খননের দাবি পরিবেশবাদীদের।

  • গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয়ে চতুর্থ দিনের মতো আমরণ অনশনে শিক্ষার্থীরা; ভিসি পদত্যাগ না করা পর্যন্ত আন্দোলন চালানোর ঘোষণা

রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ায় ধ্বংস হয়েছে বন: প্রধানমন্ত্রী

রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ায় ধ্বংস হয়েছে বন: প্রধানমন্ত্রী

মানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়া হলেও, ধ্বংস হয়েছে বন। বিশ্ব পরিবেশ দিবস ও পরিবেশ মেলা এবং জাতীয় বৃক্ষরোপণ অভিযান ও বৃক্ষমেলার উদযাপন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, যেকোনো উন্নয়নে পরিবেশের বিষয়টি বিবেচনায় রাখতে হবে। এ সময় তিনি প্রত্যেক নাগরিককে অন্তত তিনটি করে গাছ রোপণেরও আহবান জানান।

প্রত্যেক নাগরিককে অন্তত একটি করে ফলদ, বনজ ও ভেষজ গাছ রোপণের আহবান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার (২০ জুন) বিশ্ব পরিবেশ দিবস ও পরিবেশ মেলা এবং জাতীয় বৃক্ষরোপণ অভিযান ও বৃক্ষমেলার উদযাপন অনুষ্ঠানে দেশবাসীকে তিনি এই পরামর্শ দেন।

বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্ বলেন, আধুনিকায়নের সাথে সাথে অবিবেচনাপ্রসূত কাজের ফলে পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। আধুনিকভাবে বেচে থাকার জন্য আমরা যা যা ব্যবহার করছি সবই পরিবেশে দূষণ ছড়াচ্ছে।

দেশে যেমন উন্নয়ন দরকার তেমন প্রয়োজন পরিবেশের সুরক্ষাও। সভ্যতার ক্রমবিকাশের সাথে সাথে নজর রাখতে হবে পরিবেশের দিকেও।

ছোটোবেলার স্মৃতিচারণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আগে উখিয়া যেতে হতো গভীর জঙ্গলের ভেতর দিয়ে। তিনি বলেন, মানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়া হলেও ধ্বংস হয়েছে বন।

যার যার জায়গা থেকে গাছ লাগানোর আহবান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, গাছ রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে যারা থাকবেন তারা পাবেন ৭৫ শতাংশ লভ্যাংশ আর বাকি ২৫ শতাংশ রাষ্ট্রীয় কোষাগারে যাবে।

সুন্দরবন ও উপকূলীয় বন রক্ষার তাগিদ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ  হাসিনা বলেন,  সুন্দরবনকে রক্ষা করতে হবে, বাঘের সংখ্যা বাড়াতে হবে। রাজধানীসহ দেশের সবখানে জলাধার রক্ষার  আহবান  জানান তিনি।

বৃক্ষরোপণে জাতীয় অবদান রাখায় ১০ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত করেন প্রধানমন্ত্রী। বন ও বন্যপ্রাণী রক্ষায় অবদান রাখায় তিনটি ক্যাটাগরিত দুজন ব্যক্তি ও একটি প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত করা হয়।

বিশ্ব পরিবেশ দিবস ও পরিবেশ মেলা এবং জাতীয় বৃক্ষরোপণ অভিযান ও বৃক্ষমেলার উদযাপন অনুষ্ঠানে একথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।এসময় তিনি বলেন, নগরায়নের ফলে বনায়ন ধ্বংস হলেও থেমে থাকবে না উন্নয়ন। বর্তমানে ১৫ দশমিক ৫ শতাংশ বনায়ন থাকলেও ২০ শতাংশ বনায়ননের লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার। প্রধানমন্ত্রী জানান, দেশের উপকূলে সবুজ বেষ্টনী আরও বাড়ানো হবে। এসময় প্রত্যেক নাগরিককে অন্তত তিনটি গাছ রোপণের আহবান জানান তিনি।

নিউজটির ভিডিও-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর