channel 24

সর্বশেষ

  • অস্বাভাবিক হারে বাড়ছে যমুনার পানি, দেখা দিয়েছে ভাঙন ও আগাম বন্যা

  • শিগগিরই বাজারে আসছে অধিক ভিটামিন সমৃদ্ধ ভুট্টার নতুন জাত

  • করোনার প্রকোপে আয় কমে গেছে ৭৪ শতাংশ পরিবারের

  • ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের জন্য নগদ লভ্যাংশ ছাড় দেবে ব্যাংক

  • আসন্ন বাজেটে দেশের পুঁজিবাজার উন্নয়নের সুপারিশ

  • এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেলেও দেখে যেতে পারলেন না নূরা

  • এসএসসি পরীক্ষার ফল বিশ্লেষণ

  • রাজধানী থেকে বিভিন্ন রুটে যাত্রা, স্বাস্থ্যবিধি মানার চেষ্টা

  • যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার জেরে ৭ম দিনের মতো চলছে বিক্ষোভ

  • সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম করোনায় আক্রান্ত

  • প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত সুদ ছাড়ের প্রণোদনা পাবে মার্চেন্ট ব্যাংকগুলো

  • করোনাকালে ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিল নিয়ে গ্রাহকদের ক্ষোভ

  • লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিকে হত্যা: বাচ্চু মিলিটারি ৫ দিনের রিমান্ডে

  • পঞ্চগড়ে বজ্রপাতে বাবা ছেলেসহ ৩ জনের মৃত্যু

  • বাস-লঞ্চে উধাও স্বাস্থ্যবিধি

আইনজীবীর মৃত্যুর ঘটনা বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ হাইকোর্টের

আইনজীবীর মৃত্যুর ঘটনা বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ হাইকোর্টের

পঞ্চগড়ে কারাগারের ভেতর আগুনে পুড়ে আইনজীবী পলাশ কুমার রায়ের মৃত্যুর ঘটনা বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এক রিট আবেদনেরর শুনানি শেষে বুধবার (৮ মে) বিচারপতি শেখ হাসান আরিফের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আগামী ৩০ দিনের মধ্যে এই তদন্ত শেষ করে প্রতিবেদন দাখিলেরও নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। সেই সাথে কারাগারের ভেতর মৃত্যুর ঘটনায় কারা কতৃপক্ষের ব্যর্থতা কেন অবৈধ হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে স্বরাষ্ট্র সচিবসহ ৪ জনকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

গত সোমবার (৬ মে)  বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের তালিকাভুক্ত আইনজীবী পলাশ কুমার রায় আগুনে পুড়ে মারা যাওয়ার ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমন।

রিটে স্বরাষ্ট সচিব, আইজি প্রিজন, পঞ্চগড় কারা কর্তৃপক্ষ সহ সংশ্লিষ্টেদের রিটে বিবাদী করা হয়েছে।

এর আগে রোববার (৫ মে) পলাশ কুমার রায়কে পরিকল্পিতভাবে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ করেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন।

গত ২৫ মার্চ দুপুরে পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে তার বিরুদ্ধে কোহিনুর কেমিক্যাল কোম্পানি নামে একটি প্রতিষ্ঠানের করা মামলা প্রত্যাহার দাবিতে পরিবারের লোকজন নিয়ে অনশন শুরু করেন পলাশ কুমার রায়। পরে সেখান থেকে উঠে তারা জেলা শহরের শের-ই-বাংলা পার্ক সংলগ্ন মহাসড়কে এসে মানববন্ধন শুরু করেন। একপর্যায়ে রাস্তা বন্ধ করে হ্যান্ডমাইকের সাহায্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে কটূক্তি করেন পলাশ। এমনকি প্রশাসন ও পুলিশ বাহিনী সম্পর্কেও অশালীন বক্তব্য দেন। ক্ষুব্ধ হয়ে স্থানীয়রা তাকে সদর থানা পুলিশের কাছে তুলে দেন। ওইদিন বিকেলে প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করার অভিযোগে স্থানীয় রাজিব রানা নামের এক যুবক তার বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা করেন। ওই দিনই তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

আইনজীবী পলাশকে গত ২৬ এপ্রিল বিকেলে তাকে ঢাকা পাঠানোর কথা ছিল। কিন্তু সকালে হঠাৎ হাসপাতালের বাইরে থাকা একটি টয়লেট থেকে সে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় দৌঁড়ে বের হয়। এ সময় কারারক্ষীরা তাকে উদ্ধার করে এবং শরীরের আগুন নেভান। আগুনে তার শরীরের ৪৭ শতাংশ পুড়ে যায়। রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পরদিনই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। পরে গত ৩০ এপ্রিল দুপুরে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর