channel 24

সর্বশেষ

  • ঈদ সামনে রেখে বাড়তে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম

  • অর্থনৈতিক অঞ্চল উন্নয়নে জাপানের সাথে বেজার চুক্তি

  • নুসরাত হত্যা: ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

  • কলকাতার ঈদের বাজারে বাংলাদেশিদের ভিড়

  • মৌলভীবাজারে আইনজীবী খুন, ভাড়াটিয়া পলাতক

  • মাগুরা, দিনাজপুর ও নাটোরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫

  • শান্তিচুক্তির দুই দশক পরও সন্ত্রাসের বলি পাহাড়ের সাধারণ মানুষ

  • সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় পাঁচজন নিহত

  • আদালত পরিবর্তন: খালেদার রিটের শুনানি কাল

  • পোল্ট্রি খাতে অ্যান্টিবায়োটিকের ৩৫টি মিশ্রন বাতিল

  • ইইউ পার্লামেন্ট নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ

  • মোবাইল চুরির বিরোধের জেরে কলেজ ছাত্রকে হত্যা, আটক ৩

  • রোহিঙ্গা হত্যার দায়ে সাজাপ্রাপ্ত মিয়ানমারের ৭ সেনা সদস্যকে গোপনে মুক্তি

  • কিশোরগঞ্জে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে নিহত ১

  • গাজীপুরে কারখানায় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নিহত ২

ঘূর্ণিঝড় ফণী সরাসরি আঘাত হানতে পারে বাংলাদেশে

ঘূর্ণিঝড় ফণী সরাসরি আঘাত হানতে পারে বাংলাদেশে

শক্তিশালী হয়ে উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ফণী। এতে মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৭ নম্বর এবং চট্টগ্রামকে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। এদিকে আগামী ৪ মের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা হবে ১৪ মে।

অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ফণি ভারতের পর যা বয়ে যাবে বাংলাদেশের ওপর দিয়েও।

আবহাওয়া অফিস জানায়, ঘণ্টায় ১৫ কিলোমিটার বেগে এগিয়ে আসছে ফণী। ঘূর্ণিঝড়টি সরাসরি দেশে আঘাত হানতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তবে সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি মোকাবিলায় ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। খোলা হয়েছে ২৪ ঘণ্টার নিয়ন্ত্রণ কক্ষ।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমদ জানান, আগামীকাল সন্ধ্যা নাগাদ বাংলাদেশে খুলনার কাছাকাছি অঞ্চলে এসে পৌছাতে পারে। সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস ৪-৫ ফুট পর্যন্ত হতে পারে।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, ঢাকাসহ সারা দেশে হালকা-মাঝারি ও ভারি বৃষ্টিসহ ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাবে। আবার ঘুর্ণিঝড়টির সরাসরি দেশে আঘাত হানারও আশঙ্কা রয়েছে আবহাওয়াবিদদের। তারা বলছেন, এক্ষেত্রে এর তাণ্ডব হবে ভয়াবহ।

সামছুদ্দিন আহমদ আরও জানান, ৩ মে সারারাত এটি বাংলাদেশে অবস্থান করবে। ৪ তারিখ ধীরে ধীরে এটি বাংলাদেশ থেকে বের হয়ে উত্তর দিকে অগ্রসর হবে।

ঘূর্ণিঝড় ফণির সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি মোকাবিলা ও উপকূলীয় জনগণের নিরাপত্তায় সরকারের সংশ্লিষ্ট সব বিভাগ প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিয়েছে। খোলা হয়েছে ২৪ ঘণ্টার কন্ট্রোল রুম। বাতিল করা হয়েছে সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর ছুটি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল জানান, উপকূলের প্রতিটি জেলা উপজেলায় সভা হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে কি করতে হবে সরকার ভালোভাবে জানিয়ে দিচ্ছে যাতে খয়খতির পরিমাণ কমিয়ে আনা যায়।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রান প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান জানান, আশ্রয়কেন্দ্রে যাতে খাদ্য পানি অভাব না হয় সেজন্য প্রতিটি জেলায় মোট ৪১ হাজার পেকেট শুকনা খাবার আমরা সরবারহ করেছি। এছাড়া জেলা প্রশাসকের কাছে নগদ ৫ লাখ টাকা দেওয়া হয়েছে।

সেনাপ্রধান জানিয়েছেন, দুর্যোগ মোকাবিলায় সর্বোচ্চ প্রস্তুতি রয়েছে সেনাবাহিনীর।

সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ জানান, আমাদের প্রত্যেটা ডিভিশন বা এরিয়া হেডকোয়ার্টারে যারা আছেন, তাঁরা প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিয়েছেন। যেকোন পরিস্থিতিতে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে আশেপাশের এলাকায় যেকোন দায়িত্ব পালনের জন্য আমরা প্রস্তুত আছি।

চট্টগ্রামসহ সব সমুদ্র বন্দরে বন্ধ রয়েছে পণ্য ওঠানামা। জাহাজগুলো অবস্থান নিয়েছে বর্হিনোঙরে। উপকূল অঞ্চলগুলোতে জনগণকে সতর্ক করতে এরই মধ্যে মাইকিং করা হচ্ছে।

বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে অভ্যন্তরীণ সব রুটের নৌযান চলাচল।

নিউজের ভিডিও-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর