channel 24

সর্বশেষ

  • ঢাবি ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁস: বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ...

  • পলাতক ৭৮ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

  • রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফেরত না পাঠালে নিরাপত্তা ও...

  • স্থিতিশীলতা ব্যাহত হওয়ার শঙ্কা প্রধানমন্ত্রীর

  • ঋণখেলাপিদের সুবিধা দিতে পাগল হয়ে গেছে...

  • বাংলাদেশ ব্যাংক: হাইকোর্ট; প্রজ্ঞাপনের বিষয়ে আদেশ কাল

  • ১৯৮৯ সালের হত্যা মামলা: ৩ মাসের মধ্যে নিস্পত্তির নির্দেশ হাইকোর্টের...

  • ২৮ বছর পর মামলা সচল হওয়ায় সাগেরা মোর্শেদের পরিবারের সন্তুষ্টি

  • ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে আইনানুযায়ী ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী...

  • অস্ত্রের লাইসেন্স বাতিল ও জব্দে দুদকের চিঠি

  • দুই সাংবাদিককে ভিন্ন ভাষায় তলবকারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে...

  • বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ কমিশনের; চিঠির অবমাননাকর অংশ...

  • বাদ না দিলে আরও কঠোর কর্মসূচির ঘোষণা গণমাধ্যমকর্মীদের

  • আসামে নাগরিকত্ব ইস্যু: খসড়া তালিকা থেকে ১ লাখ ২ হাজার...

  • ৪৬২ জনকে বাদ দিয়ে নতুন তালিকা প্রকাশ

বিএসএমএমইউতে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা শুরু

বিএসএমএমইউতে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা শুরু

চার মাস পর আবারো চিকিৎসা নিতে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে খালেদা জিয়া। সবশেষ গত বছরের ৮ই অক্টোবর এখানে আনা হয়েছিল তাকে, ছিলেন প্রায় মাসখানেক। মাঝখানে আরেকবার উদ্যোগ নেয়া হলেও, খালেদা জিয়া রাজি না হওয়ায় আনা যায়নি। এবার আগে থেকেই প্রস্তুত রাখা হয় কেবিন ব্লকের ৬২১ ও ৬২২ নম্বর কক্ষ। দুপুরে কড়া পুলিশ পাহারায় তাকে ঢাকার পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে হাসপাতালে আনা হয়। রাখা হয়েছে ৬২১ নম্বর কেবিনে।

হাসপাতালের অতিরিক্ত পরিচালক ড. নাজমুল করিম জানান, মেডিকেল বোর্ড বেগম জিয়ার সাথে কথা বলে শারীরিক সমস্যার কথা শুনেছেন। সে অনুযায়ী চিকিৎসা চলছে। এছাড়াও পাঁচ সদস্যের চিকিৎসক দলের সাথে খালেদা জিয়ার দুজন চিকিৎসক থাকছেন এবার।

বেশ কিছুদিন ধরেই বিএনপি নেতারা অভিযোগ করছিলেন, দলের চেয়ারপারসন অত্যন্ত অসুস্থ। তার বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসা দরকার। হাসপাতালে ভর্তির আবারও সেই দাবি তুললেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তবে হাসপাতালের পরিচালক বলছেন, দেশের সবচেয়ে বেশি বিশেষজ্ঞ ডাক্তার রয়েছেন এ হাসপাতালে। তাই এখানেই সেইমানের সেবা পাবেন খালেদা জিয়া।

খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় গঠিত মেডিক্যাল বোর্ডের প্রধান বিএসএমএমইউ'র মেডিসিন বিভাগের প্রধান জিলন মিঞা সরকার জানান, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করেছেন তারা।

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণের সময় মেডিক্যাল বোর্ডের প্রধানের সঙ্গে ছিলেন বোর্ড সদস্য এবং রিউমেটোলজি বিভাগের অধ্যাপক সৈয়দ আতিকুল ইসলাম, বিএসএমএমইউ পরিচালক (হাসপাতাল) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এবিএম মাহাবুবুল আলম, অতিরিক্ত পরিচালক (হাসপাতাল) নাজমুল করিম এবং রিউমেটোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক শামিম আহমেদ।

এর আগে কারা কর্তৃপক্ষ বিশেষ জজ আদালতকে জানান, বেগম জিয়া অসুস্থ থাকায়, তাকে এজলাসে আনা সম্ভব নয়। পরে নাইকো মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি পিছিয়ে ১০-ই এপ্রিল ধার্য করেন আদালত।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর