channel 24

সর্বশেষ

  • ঢাবি ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁস: বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ...

  • পলাতক ৭৮ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

  • রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফেরত না পাঠালে নিরাপত্তা ও...

  • স্থিতিশীলতা ব্যাহত হওয়ার শঙ্কা প্রধানমন্ত্রীর

  • ঋণখেলাপিদের সুবিধা দিতে পাগল হয়ে গেছে...

  • বাংলাদেশ ব্যাংক: হাইকোর্ট; প্রজ্ঞাপনের বিষয়ে আদেশ কাল

  • ১৯৮৯ সালের হত্যা মামলা: ৩ মাসের মধ্যে নিস্পত্তির নির্দেশ হাইকোর্টের...

  • ২৮ বছর পর মামলা সচল হওয়ায় সাগেরা মোর্শেদের পরিবারের সন্তুষ্টি

  • ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে আইনানুযায়ী ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী...

  • অস্ত্রের লাইসেন্স বাতিল ও জব্দে দুদকের চিঠি

  • দুই সাংবাদিককে ভিন্ন ভাষায় তলবকারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে...

  • বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ কমিশনের; চিঠির অবমাননাকর অংশ...

  • বাদ না দিলে আরও কঠোর কর্মসূচির ঘোষণা গণমাধ্যমকর্মীদের

  • আসামে নাগরিকত্ব ইস্যু: খসড়া তালিকা থেকে ১ লাখ ২ হাজার...

  • ৪৬২ জনকে বাদ দিয়ে নতুন তালিকা প্রকাশ

সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে ১১১ সুপারিশ চূড়ান্ত

সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে ১১১ সুপারিশ চূড়ান্ত

রাজধানীতে সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে রিকশা তুলে দেয়া, অবিলম্বে সড়ক পরিবহন আইনের বিধিমালা জারিসহ সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে ১১১ সুপারিশ চূড়ান্ত করেছে, সাবেক মন্ত্রী ও পরিবহন শ্রমিক নেতা শাজাহান খানের নেতৃত্বে বিশেষ কমিটি। দ্রুত এ সুপারিশ মন্ত্রণালয়ে জমা দেয়া হবে বলেও জানানো হয়েছে। সেই সাথে প্রধানমন্ত্রীর তত্ত্বাবধানে সড়ক নিরাপত্তা কর্তৃপক্ষ গঠনের প্রস্তাবও রয়েছে সুপারিশে।

সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার সুপারিশ তৈরীর জন্য গেলো ফেব্রুয়ারিতে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের নেতা, গবেষক, পুলিশ এবং বিআরটিএসহ সংশ্লিস্ট পক্ষগুলোর প্রতিনিধি নিয়ে ২২ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকরী সভাপতি ও সাবেক নৌ মন্ত্রী শাজাহান খানের নেতৃত্বে গঠিত কমিটি ১১১ দফা সুপারিশ চুড়ান্ত করেছে।

সুপারিশে  বলা হয়েছে অবিলম্বে সড়ক পরিবহন আইনের বিধিমালা জারি, সড়ক উন্নয়নে নেয়া প্রকল্পের ৫ শতাংশ অর্থ সড়ক নিরাপত্তার জন্য রাখা, রাজধানী থেকে রিক্সা তুলে দেয়া। এছাড়া এই সুপারিশে প্রধানমন্ত্রীর তত্ত্বাবধানে সড়ক নিরাপত্তা কতৃপক্ষ গঠনের প্রস্তাবও করা হয়েছে।

সুপারিশগুলোকে চার মেয়াদে বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে। এর মধ্যে আশু করনীয় সুপারিশগুলো এ বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে, স্বপ্ল মেয়াদী পরিকল্পনাগুলো ২০২১ সালের মধ্যে এবং দীর্ঘ মেয়াদি সুপারিশ গুলো ২০২৪ সালের মধ্যে বাস্তবায়ন করা উচি বলে কমিটি মনে করছে। আর একটি ভাগের সুপারিশগুলো চলমান প্রক্রিয়া হিসেবে থাকবে।
 
সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি বলছেন যেভাবেই হোক সড়ক দুর্ঘটনা বন্ধ করতেই হবে। সেই সাথে সড়ক দুর্ঘটনা সংশ্লিস্ট রিট মামলা গুলো দ্রুত শুনানির উপরও জোর দেন তিনি।

তবে অতীতেও এমন কমিটি হয়েছিলো সড়ক দূর্ঘটনা রুখতে। কাজ হয়নি, এবার কি হবে?? কমিটির সদস্যরা বলছেন এবার সরকারের টাস্কফোর্স গঠনের সুপারিশ করা হচ্ছে। এই টাস্কফোর্স একটি বা একাধিক হতে পারে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর