channel 24

সর্বশেষ

  • সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনে ৪৯ জন বেসরকারিভাবে বিজয়ী

  • কক্সবাজারের টেকনাফে ১০২ ইয়াবা ব্যবসায়ীর আত্মসমর্পণ...

  • সাড়ে ৩ লাখ ইয়াবা ও ৩০টি অস্ত্র জমা...

  • আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কেউ মাদক ব্যবসায় জড়ালে ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী...

  • মধ্যস্থতা করায় চ্যানেল টোয়েন্টিফোরকে ধন্যবাদ

  • মাদক সেবনের দায়ে কুষ্টিয়ায় পৌর কাউন্সিলর রবিউলের ২ বছরের সাজা

  • জামায়াত ক্ষমা চাইলেও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বন্ধ হবে না: কাদের

  • বায়তুল মোকাররমে কবি আল মাহমুদের দ্বিতীয় জানাজা সম্পন্ন...

  • রাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পারিবারিক কবরস্থানে দাফন

  • ক্রিকেট: ইনজুরিতে মুশফিক ও মিঠুন; তৃতীয় ওয়ানডেতে অনিশ্চিত

প্রযুক্তির ব্যবহারে মাত্র ১০ মিনিটেই শনাক্ত অজ্ঞাত মরদেহ

প্রযুক্তির ব্যবহারে মাত্র ১০ মিনিটেই শনাক্ত অজ্ঞাত মরদেহ

প্রায়ই অজ্ঞাত মরদেহ পাওয়া যায় দেশের বিভিন্ন স্থানে। ময়নাতদন্তের পর নাম পরিচয়হীন মানুষের ঠিকানা হয় মর্গে। তবে প্রযুক্তির ব্যবহারে মাত্র ১০ মিনিটেই অজ্ঞাত মরদেহের পরিচয় বের করছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

ষাটোর্ধ এই ব্যক্তিকে মুমুর্ষু অবস্থায় মহাখালী থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয় গত বছরের ১৫ অক্টোবর। পরদিন মারা যান তিনি। পরিচয় না পেয়ে মরদেহ মর্গে রেখে আসে বনানী থানা পুলিশ। দাফনের আগ মুহূর্তে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন-পিবিআইয়ের একটি দল আঙ্গুলের ছাপ মিলিয়ে বের করেন তার পরিচয়।

জানা যায় আব্দুল মান্নান মুন্সী নামের ওই ব্যক্তি মাদারীপুর থেকে উত্তরার মেয়ের আসায় বেড়াতে এসে শিকার হন দুর্ঘটনার।

ওই ঘটনার চারদিন পর গলফ ক্লাবের পাশে রেললাইন থেকে গুরুতর আহতাবস্থায় উদ্ধার করা হয়, রিপন নামের আরেক ব্যক্তিকে। নেয়া হয় কুর্মিটোলা হাসপাতালে। কিন্তু নাম আর বাড়ি বগুড়া-এই তথ্যটুকু ছাড়া কিছুই জানাতে পারেননি।

২০ অক্টোবর মারা যাওয়ার পর তার মরদেহও বেওয়ারিশ হিসেবে পাঠানো হয় ঢাকা মেডিকেলে। পরে তারও পরিচয় নিশ্চিত করে পিবিআই। জানতে পারে রিপন কালশী এলাকার একটি পোশাক কারখানার কর্মকর্তা। দুর্ঘটনার দিনই বাড়ি থেকে ফেরেন তিনি।

জাতীয় তথ্য ভাণ্ডার ব্যবহার করে অজ্ঞাত ব্যক্তির আঙ্গুলের ছাপ মিলিয়েই পরিচয় নিশ্চিতের কাজ করছে পিবিআই। ঘটনাস্থল থেকে ছাপ নিয়ে তা পাঠানো হয়, সংস্থাটির সার্ভারে। সেখান থেকে নির্বাচন কমিশনের সার্ভারে সংরক্ষিত আঙ্গুলের ছাপের সাথে মেলালেই চলে আসে সব তথ্য।

পিবিআই বলছে, জাতীয় পরিচয়পত্র রয়েছে এমন ব্যক্তির ক্ষেত্রেই কেবল এ পদ্ধতি প্রযোজ্য হবে।

প্রায় প্রতিদিনই অজ্ঞাত মরদেহের ময়নাতদন্ত হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। পুলিশের আধুনিক প্রযুক্তি সহায়ক হবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের জন্যও।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর