channel 24

সর্বশেষ

  • ঈদে রেলের টিকিট বিক্রি রাজধানীর টিএসসি, মিরপুরসহ ৬টি স্থান থেকে...

  • ঘরে বসেই কেনা যাবে ৫০ শতাংশ টিকিট: রেলমন্ত্রী; ২৮ এপ্রিল অ্যাপসের উদ্বোধন

  • জবাবদিহিতা না থাকায় অপরাধ বাড়ছে: ফখরুল

  • অধ্যক্ষ সিরাজের অপকর্মের বিষয় আগে থেকেই জানতো মাদ্রাসা কমিটি...

  • ওসির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে ব্যবস্থা: ডিআইজি

  • অনুমোদন না থাকায় তুরাগে সেতু বিভাগের নির্মাণাধীন...

  • সেতু ভেঙে দিয়েছে বিআইডব্লিউটিএ

  • অসচেতনতায় বারবার বনানীর মতো আগুনের ঘটনা ঘটছে: প্রধানমন্ত্রী

  • চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাবেক সভাপতি আহমদ শরীফ ও...

  • তার স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য ৩৫ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

  • রমজানে নিত্যপণ্যের দাম বাড়বে না, মনিটরিং অব্যাহত থাকবে: বাণিজ্যমন্ত্রী

  • নুসরাত হত্যা: শামীম ৫ দিনের রিমান্ডে; দ্রুত চার্জশিট: পিবিআই

  • সাভার সিআরপিতে দুর্ঘটনায় পা হারানো রাসেলের কৃত্রিম পা সংযোজন

  • ভারতে লোকসভা নির্বাচন: ২য় ধাপে ৯৫ আসনে ভোটগ্রহণ চলছে

প্রযুক্তির ব্যবহারে মাত্র ১০ মিনিটেই শনাক্ত অজ্ঞাত মরদেহ

প্রযুক্তির ব্যবহারে মাত্র ১০ মিনিটেই শনাক্ত অজ্ঞাত মরদেহ

প্রায়ই অজ্ঞাত মরদেহ পাওয়া যায় দেশের বিভিন্ন স্থানে। ময়নাতদন্তের পর নাম পরিচয়হীন মানুষের ঠিকানা হয় মর্গে। তবে প্রযুক্তির ব্যবহারে মাত্র ১০ মিনিটেই অজ্ঞাত মরদেহের পরিচয় বের করছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

ষাটোর্ধ এই ব্যক্তিকে মুমুর্ষু অবস্থায় মহাখালী থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয় গত বছরের ১৫ অক্টোবর। পরদিন মারা যান তিনি। পরিচয় না পেয়ে মরদেহ মর্গে রেখে আসে বনানী থানা পুলিশ। দাফনের আগ মুহূর্তে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন-পিবিআইয়ের একটি দল আঙ্গুলের ছাপ মিলিয়ে বের করেন তার পরিচয়।

জানা যায় আব্দুল মান্নান মুন্সী নামের ওই ব্যক্তি মাদারীপুর থেকে উত্তরার মেয়ের আসায় বেড়াতে এসে শিকার হন দুর্ঘটনার।

ওই ঘটনার চারদিন পর গলফ ক্লাবের পাশে রেললাইন থেকে গুরুতর আহতাবস্থায় উদ্ধার করা হয়, রিপন নামের আরেক ব্যক্তিকে। নেয়া হয় কুর্মিটোলা হাসপাতালে। কিন্তু নাম আর বাড়ি বগুড়া-এই তথ্যটুকু ছাড়া কিছুই জানাতে পারেননি।

২০ অক্টোবর মারা যাওয়ার পর তার মরদেহও বেওয়ারিশ হিসেবে পাঠানো হয় ঢাকা মেডিকেলে। পরে তারও পরিচয় নিশ্চিত করে পিবিআই। জানতে পারে রিপন কালশী এলাকার একটি পোশাক কারখানার কর্মকর্তা। দুর্ঘটনার দিনই বাড়ি থেকে ফেরেন তিনি।

জাতীয় তথ্য ভাণ্ডার ব্যবহার করে অজ্ঞাত ব্যক্তির আঙ্গুলের ছাপ মিলিয়েই পরিচয় নিশ্চিতের কাজ করছে পিবিআই। ঘটনাস্থল থেকে ছাপ নিয়ে তা পাঠানো হয়, সংস্থাটির সার্ভারে। সেখান থেকে নির্বাচন কমিশনের সার্ভারে সংরক্ষিত আঙ্গুলের ছাপের সাথে মেলালেই চলে আসে সব তথ্য।

পিবিআই বলছে, জাতীয় পরিচয়পত্র রয়েছে এমন ব্যক্তির ক্ষেত্রেই কেবল এ পদ্ধতি প্রযোজ্য হবে।

প্রায় প্রতিদিনই অজ্ঞাত মরদেহের ময়নাতদন্ত হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। পুলিশের আধুনিক প্রযুক্তি সহায়ক হবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের জন্যও।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর