channel 24

সর্বশেষ

  • এমপিদের উপজেলা পর্যায়ে দলীয় প্রার্থী না হতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ: কাদের

  • পর পর রেল দুর্ঘটনার পেছনে চক্রান্ত আছে কি না, তা তদন্ত হবে: প্রধানমন্ত্রী

  • হলি আর্টিজান মামলার রায় যেকোনো দিন

  • রোহিঙ্গা গণহত্যার পূর্ণ তদন্তে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের সম্মতি

  • বিশ্বকাপ বাছাই: ওমানের কাছে ৪-১ গোলে হারলো বাংলাদেশ

জাহালমের ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: তথ্যমন্ত্রী

জাহালমের ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: তথ্যমন্ত্রী

বিনাদোষে জাহালমের ৩ বছরের কারাভোগ করা দুঃখজনক। সচিবালয়ে সাংবাদিকদের কাছে এমন মন্তব্য করেন, তথ্যমন্ত্রী ডক্টর হাছান মাহমুদ। নির্দোষ ব্যক্তির জেল খাটার কারণ খুঁজে বের করে দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তির ব্যবস্থা নেয়ার কথাও জানান তিনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) একটি স্বাধীন প্রতিষ্ঠান। আমরা আশা করবো তদন্ত সাপেক্ষে তারা দায়ী কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।

গত (রোববার) কাশিমপুর কারাগার থেক মুক্তি পেয়ে বাড়ি ফেরেন জাহালম। এর আগে দুর্নীতির সব মামলায় জাহালমকে অব্যাহতি দিয়ে দুদকের খরচে রোববার (৩ ফেব্রুয়ারি) মুক্তির নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। একইসাথে নির্দোষ জাহালমের ৩ বছর ধরে সাজা খাটা নিয়ে ক্ষোভও প্রকাশ করেন আদালত। আদালত বলেন, আরেকটি জজ মিয়া নাটক হচ্ছে। চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের সার্চলাইট অনুষ্ঠানে জাহালমকে নিয়ে প্রতিবেদন, ঠিক মতো আমলে নেয়া হয়েছে কিনা তাও জানতে চান হাইকোর্ট।

এর আগে ২৬ মামলায় জেলে নিরপরাধ জাহালাম এর ব্যাখা কি, তা জানাতে হাইকোর্টে আসেন দুদকের তদন্ত শাখার প্রধান মামলার বাদীসহ ৪ জন। ব্যাখা দিতে হাজির হন আইন ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিবও।

তবে ব্যাখার শুরুতে আদালতের তোপের মুখে পড়েন দুদকের আইনজীবী। দুদকের এ ধরনের মামলায় ফলস ইনভেস্টিগেশনের সুযোগ কোথায় প্রশ্ন রেখে আদালত বলেন, এখানে একটি সিন্ডিকেট কাজ করেছে। জজ মিয়ার মত নাটক সাজানো হয়েছে কিনা তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন হাইকোর্ট।

চ্যানেল 24 এর অনুসন্ধান ভিত্তিক অনুষ্ঠান সার্চ লাইটের প্রতিবেদন দুদক ঠিক মতো আমলে নিয়েছে কি না তাও জানতে চাওয়া হয়। তবে এ নিয়ে দুদক নিজেদের সাফাই গাইতে শুরু করলে আদালত বলেন, একজন নির্দোষ ব্যক্তিকে এভাবে আটকে রাখার দায় দুদক এড়াতে পারে না।

প্রসঙ্গত, সোনালী ব্যাংক মিরপুর ক্যান্টনমেন্ট শাখা থেকে কৌশলে সাড়ে ১৮ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার ঘটনায় ৩২টি মামলা করেছিলো দুর্নীতি দমন কমিশন। সেই মামলায় প্রধান আসামি আবু ছালেকের জায়গায় আসামি করা হয়েছিলো নিরাপরাধ জাহালমকে। গত বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে চ্যানেল 24-এর 'সার্চলাইট' অনুষ্ঠানে 'উদোর পিণ্ডি বুদোর ঘাড়ে' নামে দুটি পর্ব প্রচারিত হয়েছিলো। যে প্রতিবেদনে প্রকৃত অপরাধী আবু ছালেহকে খুঁজে বের করা হয়।

দুটি পর্ব প্রচারের পর গত বছরের এপ্রিল দুদক আনুষ্ঠানিকভাবে ৩২টি মামলার কার্যক্রম স্থগিত করে। তার এক মাস পর, গত বছরের মে মাসে চ্যানেল 24 এর প্রতিবেদনে সত্যতা খঁজে পেয়ে জাহালমকে নির্দোষ প্রমাণ করে প্রতিবেদন দেয় জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। এরপর গত বছরে ২০ ডিসেম্বর দুদক জাহালমকে নির্দোষ পেয়ে মামলা থেকে তার নাম প্রত্যাহারের চিঠি দেয়।

এর দুসপ্তাহ পর একটি পত্রিকায় এ নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। পরে তা আদালতের নজরে আনেন সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট অমিত দাস গুপ্ত। 
  
এরপর ২৮ জানুয়ারি সোমবার টাকা আত্মসাতের অভিযোগসহ ৩৩ মামলায় ভুল আসামিকে তিন বছর কারাগারে রাখায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইন শাখার মহাপরিচালকসহ চারজনকে তলব করে হাইকোর্ট।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর