channel 24

সর্বশেষ

  • জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনে যোগ দিতে...

  • কাল নিউইয়র্কের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

  • অবৈধ ক্যাসিনো: আটক যুবলীগ নেতা খালেদকে গুলশান থানায় হস্তান্তর

  • রাজধানীতে জুয়ার আসর বসতে দেয়া হবে না: ডিএমপি কমিশনার...

  • ক্যাসিনো মালিক প্রভাবশালী হলেও আইনের আওতায় আনা হবে...

  • মসজিদের শহরকে ক্যাসিনোর শহরে পরিণত করেছে সরকার: ড. মঈন

  • প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি দেয়ার অভিযোগে বিএনপি নেতা...

  • শামসুজ্জামান দুদুর বিরুদ্ধে মামলা; দ্রুত আটকের দাবি ছাত্রলীগের

  • কোনো প্রক্রিয়া ছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া...

  • ছাত্রলীগ নেতাদের ছাত্রত্ব বাতিলের দাবি ডাকসু ভিপির

  • পারিবারিক কলহ: নারায়ণগঞ্জে মা ও ২ শিশুকে ছুরিকাঘাতে হত্যা...

  • আহত আরও এক শিশুকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি

ডাকসু নির্বাচনে প্রার্থিতা ও প্যানেলে দৃষ্টি সবার

ডাকসু নির্বাচনে প্রার্থিতা ও প্যানেলে দৃষ্টি সবার

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ, ডাকসু নির্বাচনে প্রার্থিতা ও প্যানেল নিয়ে চলছে জোর আলোচনা। জোটবদ্ধ নির্বাচনের কথাও ভাবছে কোনো কোনো ছাত্র সংগঠন। ছাত্রলীগ বলছে, শুধু সংগঠনের নেতাকর্মী নয়, আদর্শিক মিল আছে এমন অনেকের সাথেই জোট হতে পারে। আর বিএনপির ছাত্র সংগঠন ছাত্রদল বলছে, ক্যাম্পাসে সহাবস্থান নিশ্চিত হলেই তারা নির্বাচনে যাবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদ নির্বাচন। হাতে সময় ৩৬ দিন সময়। এরই মধ্যে ছাত্র সংগঠনগুলোর নানামুখী কার্যক্রমে জমতে শুরু করেছে ক্যাম্পাসের রাজনীতি। নির্বাচনে কে, কিভাবে অংশ নেবে তা নিয়েও চলছে ভাবনা-চিন্তা। সাধারণ শিক্ষার্থী থেকে ছাত্রনেতা, সব আলোচনার মূলে প্রার্থীতা।

আরও জানতে: যে রোগ হলে মনে থাকে সব কিছু!

আসামির মরদেহে হারকিউলিসের চিরকুট নিয়ে প্রশ্ন

উদোর পিণ্ডি বুদোর ঘাড়ে

যোগ্যদের নিয়ে প্যানেল গঠনের লক্ষ্যে কাজ শুরু করেছে ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগ। এক্ষেত্রে, নিজেদের বাইরে একই মতাদর্শিক সংগঠনের প্রতিনিধি নিয়ে জোট বেঁধে লড়ার পরিকল্পনা আছে তাদের।

প্রার্থী বাছাইয়ে বিএনপি'র পক্ষ থেকে শহীদুল্লাহ চৌধুরী এ্যানীর নেতৃত্বে একটি কমিটি করা হয়েছে। যদিও ছাত্রদল নেতারা বলছেন, ক্যাম্পাসে গণতান্ত্রিক সহাবস্থান নিশ্চিত করার পরই হবে প্যানেল ঘোষণা।

কোটা সংস্কার নিয়ে আন্দোলনকারি ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ নিজেরাই প্রার্থী দেবার কথা ভাবছেন। সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে বামপন্থী ছাত্র সংগঠনের সাথে আন্দোলনের কথা জানিয়েছেন তারা।  

ক্যাম্পাসে ক্রিয়াশীল বামপন্থী সংগঠনগুলো দুই জোটে বিভক্ত থাকলেও এক হয়ে নির্বাচনের যাবার ইঙ্গিত মিলেছে।

সাধারণ ভোটারদের চাওয়া, জোটের জোয়ারে, ভোটে যেন সৎ-দক্ষ-যোগ্য প্রার্থীরা হারিয়ে না যায়।

ছাত্র সংসদ নির্বাচনের ঘোষিত তারিখ আর মাত্র ৩৬ দিন পরেই। এরইমধ্যে জমতে শুরু করেছে ক্যাম্পাসের রাজনৈতিক পরিবেশ। নির্বাচনে কে, কিভাবে অংশ নিবে সে নিয়েও চলছে ভাবনা-চিন্তা। সাধারণ শিক্ষার্থী থেকে ছাত্রনেতা সবার কাছেই এখন আলোচ্য বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে কে বা কারা প্রার্থী হচ্ছেন।

এনিয়ে ছাত্রদলের মুখোমুখি হলে, তারা জানান আগে গণতান্ত্রিক সহাবস্থান নিশ্চিত করতে হবে, পরে প্যানেল ঘোষণা। যদিও বলেন, বিএনপি'র পক্ষ থেকে শহীদুল্লাহ চৌধুরী এ্যানীর নেতৃত্বে একটি কমিটি করা হয়েছে প্রার্থী বাছাইয়ের জন্য।

কোটা সংস্কার নিয়ে আন্দোলনকারি ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ বলছেন, এখন পর্যন্ত তারা নিজেরাই প্রার্থী দেবার কথা ভাবছেন। তবে বিভিন্ন দাবি-দাওয়া আদায়ে বামপন্থী ছাত্র সংগঠনের সাথে যোগ দিয়ে সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে একযোগে আন্দোলনে নামতে পারেন।

ক্যাম্পাসে ক্রিয়াশীল বামপন্থী সংগঠনগুলো আবার দুই জোটে বিভক্ত। এবারের নির্বাচনে তাদের দুইজোট এক হয়ে নির্বাচনে যাবার ইঙ্গিত দিলেন।

ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠনও জানালেন, নির্বাচনে শুধু নিজেরা নয় বরং মতাদর্শিক ভাবে যায় এমন শিক্ষার্থীদের নিয়ে তারাও জোট বেঁধে লড়বেন।

জোটের জোয়ারে ভোটে যেন সৎ-দক্ষ-যোগ্য প্রার্থী প্রার্থীতা করে, এমনটাই চাওয়া সাধারণ ভোটারদের।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর