channel 24

ব্রেকিং নিউজ

  • রাজধানীর চকবাজারে একটি ভবনে আগুন...

  • নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ৩৭টি ইউনিট...

  • নিহত অন্তত ৬২; দগ্ধ ১৬ জনসহ আহত অর্ধশতাধিক...

  • আশপাশের লোকজনকে নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয়েছে

বিরোধীদের সমালোচনায় বাধা দেয়া হবে না: প্রধানমন্ত্রী

বিরোধীদের সমালোচনায় বাধা দেয়া হবে না: প্রধানমন্ত্রী

যাত্রা শুরু হলো, একাদশ জাতীয় সংসদের। প্রথম অধিবেশনের শুরুতেই হয়, স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকার নির্বাচন। যাতে শিরীন শারমিন চৌধুরী ও ফজলে রাব্বী মিয়া পুনঃনির্বাচিত হন। পরে, প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে আশ্বাস দেন, বিরোধী দলের সমালোচনায় বাধা না দেয়ার।

সংসদ নেতা শেখ হাসিনা বলেন, সংসদে সব দলের সদস্যরা যাতে সমান সুযোগ পান সেটা দেখতে হবে। সরকারি দল এ ক্ষেত্রে সহযোগিতা করবে। তিনি বলেন, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় সমালোচনা সব সময় গুরুত্বপূর্ণ। বিরোধী দল যথাযথভাবে সরকারের সমালোচনা করতে পারবে। এখানে কোনো বাধা দেওয়া হবে না।

একাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করায় দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান শেখ হাসিনা। সংসদ সদস্যদের উদ্দেশে তিনি বলেন, জনগণের প্রতিনিধি হিসেবে সবাইকে নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করতে হবে। ভোটারদের সার্বিক উন্নয়ন ও স্বার্থ সংরক্ষণ করতে হবে এবং দেশে যাতে শান্তিপূর্ণ অবস্থা বিরাজ করে, বাংলাদেশ জঙ্গিমুক্ত, মাদক ও দুর্নীতিমুক্ত উন্নত সমৃদ্ধ দেশ যাতে গড়ে উঠে মানুষের জীবনের জীবনে শান্তি ও নিরাপদ হয় সেটাই লক্ষ রাখতে হবে।

ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়ার সভাপতিত্বে বিকেল তিনটায় শুরু হয়, একাদশ সংসদরে প্রথম অধিবেশন। দিনের কার্যসূচি অনুযায়ী প্রথমেই স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকার নির্বাচন করা হয়। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতা টানা তৃতীয়বারের মতো স্পিকার নির্বাচিত হন শিরিন শারমীন চৌধুরী। আর ডেপুটি স্পিকার হন ফজলে রাব্বী মিয়া। পরে তাদের শপথ পড়ান রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ। 

এরপর স্পিকার শিরিন শারমীনের সভাপতিত্বে চলে সংসদের কার্যক্রম। এ সময় বিরোধী দলীয় উপনেতা জি এম কাদের বলেন, বিরোধী দল হিসেব কার্যকর ভূমিকা রাখতে চায় জাতীয় পার্টি।

এরপর সরকারি ও বিরোধী দলের পাঁচ সংসদ সদস্যের সমন্বয়ে গঠন করা হয় সভাপতিমণ্ডলী। যারা স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকারের অনুপস্থিতিতে স্পিকারের দায়িত্ব পালন করবেন। 

কার্যসূচি অনুযায়ী, এরপর আসে শোক প্রস্তাব। আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের জন্য শোক প্রস্তাবের আলোচনায় সদস্যরা বলেন, তিনি ছিলেন নির্লোভ ও মেধাবী।

শোক প্রস্তাবের পর রেওয়াজ অনুযায়ী কিছুক্ষণের জন্য মুলতবি করা হয় সংসদ। তারপর ভাষণ দেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ। এ সময় সরকারের আগের মেয়াদে নেয়া উন্নয়ন কর্মসূচির ভূয়ষী প্রসংশা করেন তিনি। 

উন্নয়নের এ ধারা অব্যাহত রাখতে সংসদকে আরও কার্যকর ভূমিকা রাখারও আহ্বান জানান রাষ্ট্রপতি। 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর