channel 24

সর্বশেষ

  • ঢাকা সিটি নির্বাচন: ৩১ জানুয়ারি রাত ১২টা থেকে ১ ফেব্রুয়ারি...

  • সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত সব যানবাহন এবং ৩০ জানুয়ারি রাত ১২টা থেকে...

  • ২ ফেব্রুয়ারি ভোর ৬টা পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা: ইসি

  • হালনাগাদকৃত খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ...

  • সারা দেশে মোট ভোটার যুক্ত ৫৩ লাখ ৬৬ হাজার ১০৫ জন...

  • বর্তমানে ভোটার সংখ্যা ১০ কোটি ৯৬ লাখ ৬ হাজার ১৮৭...

  • এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫ কোটি ৫৩ লাখ ২৫ হাজার ২৯২...

  • নারী ভোটার ৫ কোটি ৪২ লাখ ৮০ হাজার ৫৪২ এবং হিজড়া ৩৫৩ জন

  • ১৬ বছরের ওপরে যাদের বয়স, তাদেরও জাতীয় পরিচয়পত্র দেবে ইসি

  • সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগে...

  • ১৪ জেলার ঘোষিত ফলাফল ৬ মাসের জন্য স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট

  • যশোরের পুলেরহাটে ১১ কেজি স্বর্ণসহ ৩ জন আটক

  • নাইমুল আবরারের মৃত্যু: হাইকোর্টে প্রথম আলো সম্পাদকের আগাম জামিন...

  • আনিসুল হকসহ ৫ জনকে গ্রেপ্তার বা হয়রানি না করার নির্দেশ

  • সিপিবির সমাবেশে বোমা হামলা: ১০ জনের মৃত্যুদণ্ড; খালাস ২

  • ১৯৮৮ সালের চট্টগ্রাম গণহত্যা মামলায় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড

৬ বছরেও ফেরত আসেনি ৬টি গার্মেন্টসের ১৩ লাখ ডলার

৬ বছরেও ফেরত আসেনি ৬টি গার্মেন্টসের ১৩ লাখ ডলার

দীর্ঘ ৬ বছরেও সুরাহা হয়নি যুক্তরাষ্ট্র থেকে চট্টগ্রামের ৬টি গার্মেন্টস কারখানার ১৩ লাখ ৩৬ হাজারের বেশি মার্কিন ডলার ফেরত না আসার ঘটনার। এরই মধ্যে বন্ধ হয়ে গেছে ৪টি কারখানা। যুক্তরাষ্ট্রের একটি আদালত রফতানিকারকদের পক্ষেই রায় দিয়েছে। তাই টাকা উদ্ধারে বাংলাদেশ দূতাবাস বা কমার্শিয়াল কাউন্সিলর জোরালো ভূমিকা রাখতে পারে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

২০১৩ সালে যে ডি ই অ্যাসোসিয়েট নামে যুক্তরাষ্ট্রের একটি প্রতিষ্ঠান চট্টগ্রামের ৬টি তৈরি পোশাক কারখানাকে ১৩ লাখ ৩৬ হাজার ১শ ২৬ মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্যের ক্রয় আদেশ দেয়। তবে সময়মতো না পৌঁছার অজুহাতে পণ্যগুলো গ্রহণ না করার কথা জানায় প্রতিষ্ঠানটি। অথচ ট্র্যাক রিপোর্ট বলছে, সব পণ্যই খালাস নেয়া হয়েছে।

আমদানিকারক টাকা না পাঠানোয় এক পর্যায়ে রফতানিকারক ৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৪টিই ব্যবসা গুটিয়ে নিতে বাধ্য হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্তদের দাবী, ফ্রেইট ফরওয়ার্ডার, শিপিং লাইন আর আমদানিকারক যোগসাজস করে অর্থ আত্মসাত করতেই নাটক সাজিয়েছে। তবে ছয়বছর হয়ে গেলেও এর কোন সুরাহা হয়নি। যদিও ফ্রেইট ফরওয়ার্ডারদের জন্য বাফার নেতারা এজন্য দোষ চাপাচ্ছেন শিপিং লাইন আর আমদানিকারকের ওপর।  

এক্ষেত্রে মাস্টার বিএল-এ মূল রফতানিকারকের নাম না থাকা আর ব্যাংকের ছাড়পত্র ছাড়া মালামাল খালাসের মাধ্যমেই বড় অনিয়ম হয়েছে বলে মত  ব্যাংকারদের। আর বিজিএমইএ বলছে, এ ধরনের সংকট লাঘবে বিদেশে সরকারের দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের তৎপর হওয়া জরুরি।   

এর আগে ২০১১ সালে লিলিপুট নামের ভারতীয় একটি প্রতিষ্ঠানের সাড়ে ৩ মিলিয়ন ডলারের প্রতারণায় বন্ধ হয়ে যায় চট্টগ্রামের ৩টিসহ ২৪টি গার্মেন্টস কারখানা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর