channel 24

সর্বশেষ

  • যুক্তরাজ্যের কনজারভেটিভ দলের নেতা নির্বাচিত বরিস জনসন...

  • পেয়েছেন ৯২ হাজার ১৫৩ ভোট; হতে যাচ্ছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী

  • গাজীপুরে ২ ও জামালপুরে নারীকে গণপিটুনি; নবাবগঞ্জে নারীকে পুলিশে সোপর্দ...

  • এ পর্যন্ত গণপিটুনিতে নিহত ৬ জন; ৯টি মামলায় গ্রেপ্তার ৮১...

  • সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়ালে ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • নেতৃত্বের প্রশ্নে জাতীয় পার্টিতে কোনো দ্বন্দ্ব নেই: জি এম কাদের

  • ঘুষ গ্রহণের মামলায় সাময়িক বরখাস্ত হওয়া দুদক পরিচালক...

  • এনামুল বাছিরের জামিন নামঞ্জুর; কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

  • শুধু ডেঙ্গুতে নয়, অন্য রোগ থাকলে মৃত্যুঝুঁকি বাড়ে: ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য বিএসএমএমইউ

  • সার্চলাইটে সংবাদ প্রচারের পর মেহেরপুরে ভুয়া ডাক্তার হান্নানকে...

  • ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও চেম্বার সিলগালা, চিকিৎসা না দেয়ার মুচলেকা

মালিবাগে দুই শহীদের স্মৃতিস্তম্ভের পাশে ডাস্টবিন নির্মাণে ক্ষুব্ধ স্থানীয়রা

মালিবাগে দুই শহীদের স্মৃতিস্তম্ভের পাশে ডাস্টবিন নির্মাণে ক্ষুব্ধ স্থানীয়রা

রাজধানীর মৌচাক মোড়ে মুক্তিযুদ্ধের প্রথম ও শেষ শহীদের সমাধিস্থলের পাশে, স্থায়ী ডাস্টবিন নির্মাণের প্রতিবাদে ক্ষুব্ধ স্থানীয়রা। জুমার নামাজের পর সহস্রাধিক মানুষ রাস্তায় নেমে আসেন। গত বছর এই ডাস্টবিন নির্মাণ শুরু করে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। কিন্তু বারবার তাগাদা দিয়েও কোনো ফল আসেনি। যদিও এখন কর্তৃপক্ষ বলছে, আলোচনার মাধ্যমে সুষ্ঠু সমাধান করা হবে।

রাজধানীর অন্যতম ব্যস্ত এলাকা মৌচাক মোড়। মালিবাগ রেলগেট থেকে মৌচাকের দিকে আসার রাস্তার শেষে চোখে পড়বে এই স্মৃতিস্তম্ভটি। যেখানে শুয়ে আছেন একাত্তরের তেসরা মার্চ পাকিস্তানি হানাদারদের গুলিতে নিহত মুক্তিযুদ্ধের প্রথম শহীদ ফারুক ইকবাল এবং ১৭ ডিসেম্বর যুদ্ধ থেকে ফেরার পথে নিহত শেষ শহীদ তসলিম উদ্দিন। বর্তমানে রাস্তাটির নামকরণও করা আছে শহীদদের নামেই। 

২০০৮ সালে অবিভক্ত সিটি করপোরেশন স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণ করে দেয় দুই শহীদের নামে। কিন্তু গত বছর এর ৫০০ গজের মধ্যেই একটি বৃহত্তম ডাস্টবিন নির্মাণ শুরু করে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। আনুষ্ঠানিক ভাষায় যাকে বলে এসটিএস অর্থাৎ সেকেন্ডারি ট্রান্সফার স্টেশন। যার শুরু থেকেই এটির প্রতিবাদ করে আসছে শহীদদের পরিবার ও এলাকাবাসী। গত বছর ডিসেম্বরে এ নিয়ে মেয়রের কাছে চিঠিও দেন শহীদ তসলিমের ছোট ভাই।

জুমার নামাজের পর প্রায় ১ হাজার মানুষ মানববন্ধন করেন এসটিএস নির্মাণের প্রতিবাদে। এর আগে গত ৫ জানুয়ারি একই দাবিতে মানববন্ধনন করেন তারা। কিন্তু সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে কোনো ইতিবাচক সাড়া না আসায় আবারও রাস্তায় নেমেছেন শহীদদের স্বজনরা।

মানবন্ধন থেকে অভিযোগ করা হয়, দুই শহীদের অবমাননা হবে ডাস্টবিন নির্মাণের ফলে। বিষয়টি নিয়ে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী বললেন, নগরবাসীর জন্যই কাজ করে নগরভবন। কারো অসুবিধা হলে সমাধানে চেষ্টা করা হবে।

তবে, দ্রুত স্থায়ী ডাস্টবিন শহীদদের স্মৃতিস্তম্ভের পাশ থেকে না সরানো হলে আরও কঠোর অবস্থানে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন স্থানীয়রা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর